Barta24

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

English

‘চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সবাইকে আমন্ত্রণ’

‘চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সবাইকে আমন্ত্রণ’
নতুন মিশনে চোখ ইয়ুর্গেন ক্লপের
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

মাত্র এক পয়েন্ট! একটুর জন্য এবারও ধরা দিল না ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা। ৯৭ পয়েন্ট পেয়েও হতাশ হতে হয়েছে লিভারপুলকে। এতো বেশি পয়েন্ট নিয়ে এর আগে প্রিমিয়ার লিগ রানার্সআপ হয়নি কোন ক্লাবই। এই রেকর্ড কষ্টই বাড়াচ্ছে অলরেডদের। ম্যানচেস্টার সিটিই ফের লিগ চ্যাম্পিয়ন।

তবে হতাশা জিইয়ে রাখতে রাজী নয় এনফিল্ডের ক্লাবটির সমর্থকরা। সামনেই বড় মিশন। হাতছানি দিচ্ছে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। ১ জুন মাদ্রিদের ওয়ান্দা মেট্রোপলিটনে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল। যেখানে লিভারপুলের প্রতিপক্ষ আরেক ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পার।

ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ টুর্নামেন্টের শিরোপা জিতেই লিগের দুঃখ ভুলতে চায় লিভারপুল। ইয়ুর্গেন ক্লপের চোখ এখন চ্যাম্পিয়ন্স লিগে। জানিয়ে রাখলেন, ‘মৌসুম শেষ! তবে এখনো শিরোপা জেতার সুযোগ আছে আমাদের। সামনেই নতুন আরেক চ্যালেঞ্জ। আমরা ফের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠেছি। এটা অসাধারণ এক ব্যাপার। ইতিহাসের অন্যতম সেরা সময় কাটাচ্ছি আমরা। ভক্তদের বলবো চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সবাইকে আমন্ত্রণ।’

তবে লিগ শিরোপার কাছে গিয়েও জিততে না পেরে হতাশ ক্লপ। লিভারপুলের জার্মান কোচ জানাচ্ছিলেন, ‘৯৭ পয়েন্ট নিয়েও শিরোপা জিততে পারিনি আমরা। ম্যানসিটিকে অভিনন্দন। যোগ্যতর দল হিসেবেই ওরা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। শেষটা আমাদের পক্ষে আসেনি বলে গোটা মৌসুমের পরিশ্রম মিথ্যা হয়ে যাবে না।’

অন্যদিকে লিগ শিরোপা জিতে স্বস্তিতে আছেন পেপ গার্দিওলা। ম্যানচেস্টার সিটির কোচ জানালেন, এটিই তার কোচিং ক্যারিয়ারে সবচেয়ে কঠিন শিরোপা। লিগের শেষ ম্যাচে ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিওনের মাঠে ৪-১ গোলে জয়ই এনে দিয়েছে ট্রফি। স্প্যানিশ লা লিগা, বুন্দেসলিগা জিতলেও এবারেরটি আলাদা করেই রাখছেন।

টানা দুই মৌসুমের শিরোপা জিতে গার্দিওলা জানাচ্ছিলেন, ‘ট্রফি পেতে টানা ১৪টা ম্যাচ জিততে হয়েছে আমাদের। এ পর্যন্ত এটিই আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে কঠিন শিরোপা জয়। তবে আমি লিভারপুলকে অভিনন্দন জানাতে চাই। আমাদের গত মৌসুমের চেয়েও ভাল খেলতে ওরা বাধ্য করেছে।’

আপনার মতামত লিখুন :

‘সাকিব ভাই থাকলে কাজটা সহজ হয়ে যায়’

‘সাকিব ভাই থাকলে কাজটা সহজ হয়ে যায়’
অনুশীলনে কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর মনোযোগী ছাত্র তাইজুল ইসলাম (বামে), ছবি: বিসিবি

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ছিলো কন্ডিশনিং ক্যাম্পের ছুটির দিন। তবে এদিন কেউ মন চাইলে অনুশীলনে আসতে পারে, সমস্যা নেই। সামনে টেস্ট সিরিজ। আফগানিস্তানের বিপক্ষে এক ম্যাচের সেই টেস্ট সিরিজ সামনে রেখে নিজেকে তৈরির জন্য বাড়তি প্রস্তুতি নিচ্ছেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম। আর তাই ছুটির দিনেও চলে এলেন মাঠে। ব্যাটিং অনুশীলনেই সময় কাটলো তার। মিরপুরে হোম অব ক্রিকেটে তাইজুল কথা বললেন মন খুলে।

#ব্যাটিংয়ের দিকে বাড়তি নজর দিচ্ছেন যে খুব?

ক্রিকেট এখন অনেক প্রতিযোগিতামূলক হয়ে পড়েছে। ভালো পারফরম্যান্স করতে হলে আপনাকে সব বিভাগেই দক্ষতা দেখাতে হবে। আমি এখন আমার ব্যাটিং উন্নতি করারও চেষ্টা করছি, যাতে করে আমার ব্যাটিং দলের কাজে লাগতে পারে।

# দলের সাম্প্রতিক বোলিং ব্যর্থতা প্রসঙ্গে

বিশ্বকাপের ঠিক আগেভাগে আমরা একটা টুর্নামেন্ট জিতেছি। তবে প্রতিটি সিরিজই যে আপনার আশা আকাঙ্ক্ষা পুরো হবে সেই ভাবনাটাও ঠিক নয়। একটা দুটো সিরিজ পক্ষে না গেলে যে আপসেট হয়ে পড়তে হবে-এমন কিছুও না। তাছাড়া আমাদের দলের কেউ তেমনভাবে চিন্তা করে না। অনুশীলন ক্যাম্পে অংশ নেয়া সবাই নিজের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করছে। আশা করছি মাঠের ক্রিকেটে সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে।

# সাকিবের সঙ্গে বোলিং জুটি প্রসঙ্গে

সাকিব ভাইকে ছাড়া বোলিং করাটা বেশ কঠিনই হয়ে দাঁড়ায়। তিনি খুবই অভিজ্ঞ এবং বিশ্বের নাম্বার ওয়ান বোলার। বিশ্বের যে কোনো ব্যাটসম্যান সাকিব ভাইকে সতর্কতার সঙ্গে খেলে, আর তাতেই আমাদের মতো বোলারদের জন্যও ম্যাচে সুযোগ তৈরি হয়। তার উপস্থিতি আমাদের কাজটা সহজ করে দেয়। আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে সাকিব ভাই যোগ দিচ্ছেন, এটা আমাদের জন্য বেশ ভালো খবর।

# তাহলে আফগানিস্তানের বিপক্ষেও স্পিন উইকেটই তৈরি হচ্ছে?

উইকেট কেমন হবে, সেটা নিয়ে আমরা এখনো কিছু জানি না। এটা ম্যানেজমেন্টের ব্যাপার। আর দলের স্পিনার হিসেবে আমি যে কোনো ধরনের উইকেটেই বল করার জন্য প্রস্তুত।

#ওয়ানডে ক্রিকেট নিয়ে চিন্তাভাবনা প্রসঙ্গে

ওয়ানডে ক্রিকেটে খেলার স্বপ্ন আমারও আছে। খেলেছিও। নির্বাচকরা যদি মনে করে থাকেন, আমি ওয়ানডেতে পারফর্ম করতে সক্ষম, তাহলে হয়তো তারা আমাকে নিয়মিত দলে রাখতেও পারেন। দলে সুযোগ পেলে আমি নিয়মিত পারফর্ম করার চেষ্টা করবো।

#প্রতিপক্ষ হিসেবে আফগানিস্তান কেমন দল?

মোটেও সহজ কোনো প্রতিপক্ষ হবে না আফগানিস্তান। মাঠের ক্রিকেটে যে দল ভালো খেলবে, তারাই জিতবে। আমরা এবার ঘরের মাটিতে খেলছি, চেষ্টা থাকবে সিরিজ জেতার।

#ড্যানিয়েল ভেটোরিকে স্পিন কোচ হিসেবে পাচ্ছেন।

ভেটোরি তো লিজেন্ড। এটা আমাদের বোলারদের খুবই সৌভাগ্য যে তার মতো স্পিনারের কাছ থেকে পরামর্শ নিতে পারবো আমরা। তার কাছ থেকে যতবেশি শেখা যায়- সেই চেষ্টাই থাকবে আমাদের।

# টেস্টে সেঞ্চুরি উইকেটের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে। চাই আরেকটি উইকেট মাত্র।

দেখুন আমি একটা উইকেট নেয়ার জন্য ম্যাচে খেলি না। যখনই মাঠে নামি, চিন্তা থাকে, চেষ্টা থাকে যেন পাঁচ উইকেট পাই। ছয় উইকেট পাই। কিভাবে বাংলাদেশ দলকে সহায়তা করা যায় সেটা নিয়েই শুধু ভাবি।

#নতুন হেড কোচ এবং বোলিং কোচকে কেমন লাগলো?

নতুন কোচ তো মাত্রই এলেন। এখনো পুরোপুরি তেমন মাত্রায় কাজ শুরু হয়নি। তবে প্রথম দেখায় যা বুঝেছি, তারা বেশ বন্ধুবৎসল।

কোহলিদের হত্যার হুমকিদাতা গ্রেপ্তার

কোহলিদের হত্যার হুমকিদাতা গ্রেপ্তার
ব্রিজ মোহন দাস (বামে) নামের এ যুবকই কোহলিদের হত্যার হুমকি দিয়েছি, ছবি: সংগৃহীত

বেনামী ইমেইল বার্তায় বিরাট কোহলি ও তার বাহিনীকে হত্যার হুমকি পেয়ে নড়েচড়ে বসেছিল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। সঙ্গে সঙ্গে অ্যান্টিগায় ভারতীয় ক্রিকেট দলের নিরাপত্তা বাড়ানোর ব্যবস্থা করে সংস্থাটি।

অবশেষে সেই ভুয়া ইমেইল বার্তা প্রেরক ১৯ বছরের যুবক ব্রিজ মোহন দাসকে গ্রেপ্তার করেছে মহারাষ্ট্র অ্যান্টি-টেররিজম স্কোয়াড (এটিএস)।

হুমকি পেয়ে বিসিসিআই সঙ্গে সঙ্গে মহারাষ্ট্র পুলিশের দ্বারস্থ হয়। তারা তদন্ত শেষে হুমকিদাতাকে খুঁজে বের করে।

জানা যায়, ওই যুবক হুমকি সম্বলিত ইমেইল বার্তা বিসিসিআই ও পিসিবিসহ বিভিন্ন দেশের ক্রিকেট বোর্ডের কাছে পাঠায়। আসামের নাগরিক ওই যুবককে ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র