Barta24

শনিবার, ১৭ আগস্ট ২০১৯, ২ ভাদ্র ১৪২৬

English

মাঠ, হোটেল, শপিং মলেও ক্রিকেটারদের পিছু নেবেন তারা

মাঠ, হোটেল, শপিং মলেও ক্রিকেটারদের পিছু নেবেন তারা
ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে দূর্নীতি আটকাতে আটঘাট বেধে নেমেছে আইসিসি
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ক্রিকেটে দূর্নীতি নতুন কিছু নয়! দূর্নীতিবাজদের জন্য বারবারই কলঙ্কিত হয়েছে ব্যাট-বলের লড়াই। সপ্তাহ দুয়েক পরই বিশ্বকাপ। তার আগে এই ব্যাপারটিই বেশি ভাবাচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলকে (আইসিসি)। এজন্য আটঘাট বেধেই মাঠে নামছে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থাটি।

বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া দশ দেশের জন্য একজন করে দুর্নীতি-দমন কর্মকর্তা নিয়োগ দিতে যাচ্ছে আইসিসি। দূর্নীতি মুক্ত বিশ্বকাপ আয়োজনে প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে শুরু করে শেষ অব্দি প্রতিটি দলের সঙ্গেই থাকবেন আইসিসি’র দূর্নীতি দমন শাখার একজন কর্মকর্তা।

৩০ মে ইংল্যান্ডে শুরু হতে যাওয়া বিশ্বকাপে অংশ নেবে দশটি দেশ। তবে এবার ফরম্যাটে ভিন্নতা থাকায় ম্যাচের সংখ্যা বেড়েছে। এ অবস্থায় পাতানো ম্যাচ কিংবা স্পট ফিক্সিংসহ অন্য দুর্নীতির শঙ্কাও দেখছে আইসিসি। কিন্তু কঠোর হাতে সব দমন করতে প্রস্তুত ক্রিকেটের অভিবাবক সংস্থাটি।

ব্রিটেনের প্রভাবশালী পত্রিকা ‘দ্য টেলিগ্রাফ’ এরইমধ্যে জানিয়েছে- প্রস্তুতি ম্যাচের শুরু থেকে প্রতিটি দলের সঙ্গে থাকবেন একজন অ্যান্টি করাপশন অফিসার। আসর শেষে দেশের বিমানে ধরার আগ পর্যন্ত দলের সঙ্গে থাকবেন তিনি। এর আগে প্রতিটি ভেন্যুতে একজন করে কর্মকর্তা রাখতো আইসিসির দুর্নীতি-দমন ইউনিট (আকসু)। এ কারণে মাঠের বাইরে ক্রিকেটাররা এই কর্মকর্তাদের দেখা পেতেন না।

এবার নিয়ম পাল্টে মাঠ, হোটেল এমন কী শপিং মলে যেখানেই ক্রিকেটাররা যাবেন সঙ্গী হবেন দূর্নীতি দমন শাখার কর্মকর্তা। সার্বক্ষণিক নজরে থাকবেন প্রতিটি ক্রিকেটার। 

অবশ্য ফিক্সিংসহ নানা দূর্নীতি থেকে ক্রিকেটকে মুক্ত রাখতে আইসিসি ক্রিকেটারদেরও সহযোগিতা চেয়েছে। এ কারণেই ক্রিকেটারদের সঙ্গে আকসুর সম্পর্কটা আরো মজবুত করতে চাইছে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা।

আপনার মতামত লিখুন :

ঘরে ফিরলেন লেফট্যানেন্ট কর্নেল ধোনি

ঘরে ফিরলেন লেফট্যানেন্ট কর্নেল ধোনি
নতুন দ্বায়িত্ব শেষ করলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি

দেশসেবা করবেন এই ভেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন নিজেকে। টেরিটোরিয়াল আর্মির সঙ্গে সীমান্তরক্ষার কাজে নেমে পড়েন লেফট্যানেন্ট কর্নেল মহেন্দ্র সিং ধোনি। পনের দিনের সেই দেশসেবা শেষ। ঘরে ফিরলেন তিনি। শনিবার নয়াদিল্লিতে ফেরেন ধোনি। রাজধানী হয়ে জন্মশহর রাঁচিতে নিজের বাড়িতে ফেরার কথা তার।

৩১ জুলাই টেরিটোরিয়াল আর্মির একজন সক্রিয় সদস্য হিসেবে প্রশিক্ষণে যোগ দেন তিনি।

নতুন এই ভূমিকায় সময়টা বেশ উপভোগ করেছেন ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক। শেষ দিনে আর্মি ব্যাটেলিয়নের সঙ্গে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করেন তিনি। এরপরই যান লাদাখের আর্মি হাসপাতালে। সেখানে ভর্তি জওয়ান ও তাদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলেন বিশ্বকাপ জয়ী ভারত অধিনায়ক।

এর আগে সেনা পোশাকে ব্যাটে অটোগ্রাফ দিতেও দেখা যায় ধোনিকে। এমন কী ভলিবল খেলার ভিডিও ভাইরাল হয় তার।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের পরই সীমান্তরক্ষী হিসেবে দেশসেবা করতে চেয়েছিলেন ধোনি। সেই ইচ্ছের প্রতি সম্মান জানিয়ে তাকে টেরিটোরিয়াল আর্মির ১০৬ টিএ প্যারা ব্যাটেলিয়ন হিসেবে জম্মু-কাশ্মীরে প্রশিক্ষণ করতে দেয় ভারতীয় সেনাবাহিনী। জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিলের সময় লাদাখে ছিলেন তিনি।

২০১১ বিশ্বকাপ জেতার পর ভারতীয় টেরিটোরিয়াল আর্মি ধোনিকে প্রদান করে কর্নেল (সাম্মানিক) পদ। এরপর এয়ারক্র্যাফটের প্রশিক্ষণে পাঁচটি প্যারাশুট জাম্প সম্পূর্ণ করেন তিনি।

কন্ডিশনিং ক্যাম্পে আছেন মাশরাফিও

কন্ডিশনিং ক্যাম্পে আছেন মাশরাফিও
মিরপুরে বিসিবি কার্যালয়ে মাশরাফি বিন মর্তুজা

ঈদের ছুটি কাটিয়ে ক্রিকেটাররা মাঠের অনুশীলনে ফিরছেন ১৯ আগস্ট। ৫ সেপ্টেম্বর আফগানিস্তানের সঙ্গে এক ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু হবে। টেস্ট সিরিজ শেষে তিনজাতি টি-টুয়েন্টি সিরিজও অনুষ্ঠিত হবে সেপ্টেম্বর জুড়ে। এই দুই সিরিজকে কেন্দ্র করে নির্বাচকরা বাংলাদেশের ৩৫ জন ক্রিকেটারকে নিয়ে একটি কন্ডিশনিং ক্যাম্পের আয়োজন করেছেন। এই ক্যাম্পে চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারদের সবাই থাকছেন। এমনকি টেস্ট এবং টি- টোয়েন্টি না খেলা মাশরাফি বিন মর্তুজাকে কন্ডিশনিং ক্যাম্পে রেখেছেন নির্বাচকরা।

সিরিজে খেলার ন্যূনতম সম্ভাবনা নেই, এমন খেলোয়াড়দের কেন কন্ডিশনিং ক্যাম্পে রাখা হয়েছে? বার্তাটোয়েন্টিফোরের কাছে এই প্রশ্নের জবাবে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানালেন-‘কোন ক্রিকেটারের শারীরিক অবস্থা কি, ফিটনেস কেমন সেটা তো আমাদের ঠিক মতো জানা নেই এখন। কন্ডিশনিং ক্যাম্পে যোগ দিলে ফিজিও এবং ফিটনেস ট্রেনার সব ক্রিকেটারদের ফিটনেস সম্পর্কে জানতে পারবেন। মুলত সেই জন্যই চুক্তিতে থাকা সব ক্রিকেটারদের এই কন্ডিশনিং ক্যাম্পে ডাকা হয়েছে।’

আগামী ১৯ আগস্ট মিরপুরে কন্ডিশনিং কোচ মারিও ভিলাভারায়ানের কাছে ক্যাম্পে ডাক পাওয়া ক্রিকেটারদের রিপোর্ট করতে বলা হয়েছে। কন্ডিশনিং ক্যাম্পে ফিটনেস টেস্ট, জিম ও রানিং সেশন চলবে ২২ আগস্ট পর্যন্ত।

বিয়ের আনুষ্ঠানিকতার জন্য ছুটি নেয়া এই কন্ডিশনিং ক্যাম্পে যোগ দিতে পারছেন না সাব্বির রহমান।

কন্ডিশনিং ক্যাম্পে ডাক পাওয়া ক্রিকেটাররা-
ইমরুল কায়েস, সৌম্য সরকার, লিটন কুমার দাস, সাদমান ইসলাম, জাহিরুল ইসলাম, মুশফিকুর রহিম, মুমিনুল হক, সাকিব আল হাসান, মাহমুদুউল্লাহ রিয়াদ, মোহাম্মদ মিথুন, মোসাদ্দেক হোসেন, সাব্বির রহমান, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, তাসকিন আহমেদ, এবাদত হোসেন চৌধুরী, শফিউল ইসলাম, ফরহাদ রেজা, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহি, আবু হায়দার রনি, তাইজুল ইসলাম, মেহেদি হাসান মিরাজ, আরিফুল হক, ইয়াসির আলী চৌধুরী, নাজমুল হোসেন শান্ত, সাইফ হাসান, নাইম শেখ, নাইম হাসান,শহিদুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম, ইয়াসিন আরাফাত মিশু, মেহেদি হাসান ও আমিুনল ইসলাম বিপ্লব।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র