Barta24

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

English

ভারতীয় ক্লাবই নয়, চোটও আবাহনীর প্রতিপক্ষ

ভারতীয় ক্লাবই নয়, চোটও আবাহনীর প্রতিপক্ষ
ফটোসেশনে আবাহনী ও চেন্নাইনের কোচ ও অধিনায়ক- ছবি: বাফুফে
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

এবার ঢাকার মাঠে লড়াই। এএফসি কাপের ম্যাচে বুধবার ভারতের চেন্নাইন এফসির সঙ্গে লড়বে আবাহনী লিমিটেড। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৭টায় শুরু লড়াই। কিন্তু তার আগে ইনজুরি নিয়ে চিন্তায় স্বাগতিক দল। ইনজুরির মিছিলে যোগ হয়েছে একাধিক ফুটবলার।

ডিফেন্ডার তপু বর্মন ও মিডফিল্ডার আতিকুর রহমান ফাহাদ শুধু এই ম্যাচই নয়, গোটা মৌসুম থেকেই আউট। টুটুল হোসেন বাদশাও ইনজুরিতে নেই দলে। এরমধ্যে ডিফেন্ডার ওয়েলিংতন সেরিনো প্রিওরি ও ওয়ালী ফয়সালকে নিয়েও আছে শঙ্কা। তাদের একাদশে দেখা যাবে কীনা তা স্পষ্ট করে বলতে পারছে না টিম ম্যানেজম্যান্ট। সব মিলিয়ে শুধু ভারতের চেন্নাইন এফসিই নয়, চোটও বড় প্রতিপক্ষ আবাহনীর।

তারপরও এএফসি কাপে ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচ নিয়ে আশাবাদী আবাহনী লিমিটেড কোচ মারিও লেমোস। মঙ্গলবার যেমনটা বলছিলেন এই ব্রাজিলিয়ান, ‘আমরা অবশ্যই এই ম্যাচে তপু ও ফাহাদকে মিস করব। জাতীয় দলের এই দুই খেলোয়াড় ইনজুরিতে দলের বাইরে। চোট তাদের মৌসুম শেষ করে দিয়েছে। তারপরও আমাদের জয়ের জন্যই মাঠে নামতে হবে।’

চোট প্রসঙ্গে লেমোস আরো বলছিলেন, ‘আমরা এখনো জানি না বুধবারের ম্যাচে কারা একাদশে থাকবে। তপু-ফাহাদ নেই। সঙ্গে দুই-তিনজনের চোট রয়েছে। তবে ওয়েলিংতন হয়তো খেলবে। কিন্তু বাদশা থাকবে কীনা বলতে পারছি না।’

যারা খেলুক, আবাহনী ভারতীয় ক্লাবের বিপক্ষে ম্যাচটি ডু অর ডাই হিসাবেই নিচ্ছে। জয় ছাড়া অন্য কিছু ভাবছে না ধানমন্ডির ক্লাবটি। কোচ লেমোস সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘ম্যাচটা আমরা ফাইনাল হিসেবে নিচ্ছি। আমাদের ডিফেন্ডাররা ভালো খেলেছে। চেন্নাইনের বিপক্ষে ম্যাচে দারুণ লড়েছে। তবে এবার এরচেয়েও ভাল খেলতে হবে।’

ইনজুরি নিয়ে হতাশা থাকলেও আবাহনী এই ম্যাচে পাচ্ছে দলের দুই সেরা স্ট্রাইকার সানডে চিজোবা ও নাবীব নেওয়াজ জীবনকে। লিগে ৯ গোল করে জীবন ঝড় তুলতে চাইছেন এএফসি কাপের ম্যাচেও। সুযােগ কাজে লাগাতে প্রস্তুত তিনি।

‘ই’ গ্রুপে এখন দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে চেন্নাইন এফসি। একটি জয় ও ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে এরপরই আছে আবাহনী লিমিটেড।

আপনার মতামত লিখুন :

কাশ্মীর ইস্যুতে থমকে গেল ভারতীয় দলের পাকিস্তান সফর

কাশ্মীর ইস্যুতে থমকে গেল ভারতীয় দলের পাকিস্তান সফর
পিছিয়ে গেল ভারত-পাকিস্তানের ডেভিস কাপ লড়াই

সেই ২০০৭-০৮ মৌসুমে সবশেষ বার ভারত সফরে গিয়েছিল পাকিস্তান দল। আর ভারতীয় ক্রিকেট দল পাকিস্তানে খেলতে গিয়েছিল তারও বছর দুয়েক আগে। এরপর থেকেই দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ নেই। আইসিসি আর এসিসির টুর্নামেন্টেই মুখোমুখি হতে দেখা গেছে দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী দলকে। ক্রিকেটে না হলেও আশার আলো দেখা দিয়েছিল টেনিসে!

ঠিক ছিল দীর্ঘ ৫৫ বছর পর সেপ্টেম্বরে ডেভিস কাপ খেলতে পাকিস্তান সফরে যাবে ভারতীয় টেনিস দল। ইসলামাবাদে পাকিস্তান ক্রীড়া কমপ্লেক্সে এশিয়া ও ওশেনিয়া গ্রুপ ওয়ানে স্বাগতিকদের বিপক্ষে খেলবে ভারত। ১৪-১৫ সেপ্টেম্বর ম্যাচ খেলার কথা ছিল।

কিন্তু হঠাৎ করেই কাশ্মীর ইস্যুতে সর্বনাশ। পূর্ণাঙ্গ রাজ্যের মর্যাদা হারানোর সঙ্গে দুই ভাগ হচ্ছে ভারত সরকার নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর।  ৩৭০ ও ৩৫ এ ধারায় জম্মু-কাশ্মীর বিশেষ মর্যাদা ভোগ করত। তা বাতিল করেছে ভারতীয় সরকার। এরপর থেকেই ছড়িয়ে পড়েছে উত্তেজনা। ভারত-পাকিস্তানের কূটনৈতিক সম্পর্কের ফের অবনতি হয়েছে।

এ অবস্থায় ভারত-পাকিস্তান টাই আপাতত স্থগিত করেছে আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন। আগামী ১৪-১৫ সেপ্টেম্বর ইসলামাবাদে এই টাই অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। আপাতত নভেম্বর পর্যন্ত ম্যাচ স্থগিত করেছে আইটিএফ।

আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন এক বিবৃতিতে জানায়,  ‘বর্তমান পরিস্থিতিতে নিরাপত্তার দিকটি খতিয়ে দেখে ডেভিস কাপ কমিটি ইসলামাবাদে এশিয়া-ওশেনিয়া গ্রুপ ওয়ানে ভারত-পাকিস্তান ডেভিস কাপ টাই নভেম্বর পর্যন্ত পিছিয়ে দিয়েছে।’

আইটিএফ সবসময় অ্যাথলিট, অফিসিয়াল আর দর্শকদের নিরাপত্তা ও স্বাচ্ছন্দ্যের কথা ভেবেই নিয়েছে এমন সিদ্ধান্ত। ম্যাচের নতুন তারিখ ৯ সেপ্টেম্বরের মধ্যে চূড়ান্ত করবে বলে জানিয়েছে আইটিএফ। তবে এ অবস্থায় অল ইন্ডিয়া টেনিস অ্যাসোসিয়েশন পাকিস্তান সফরে যেতে রাজী হবে কীনা তা নিয়ে সংশয় থেকেই যাচ্ছে!‌

৫৫ বছর পর যে আশার আলো দেখা গিয়েছিল তা নিয়ে শঙ্কা থাকলই। ডেভিস কাপে ভারত-পাকিস্তান সবশেষ খেলেছিল ২০০৬ সালে। মুম্বাই ব্র্যাবোর্ন স্টেডিয়ামে পাকিস্তানকে ৩-২ ব্যবধানে হারায় ভারত। ডেভিস কাপে ছয় বার খেলে এখনো পর্যন্ত পাকিস্তানের কাছে হারনি ভারত।

তিন টেস্টের সঙ্গে ইউরোপিয়ান লিগের উত্তেজনা

তিন টেস্টের সঙ্গে ইউরোপিয়ান লিগের উত্তেজনা
রাতে থাকছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের রোমাঞ্চ

এক সপ্তাহ বিরতি দিয়ে আজ শুক্রবার রাতে ফের মাঠে গড়াচ্ছে ইউরোপিয়ান লিগ ফুটবল। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, লা লিগা ও বুন্দেসলিগার ম্যাচ উপভোগ করা যাবে টেলিভিশনের র্পদায়। সঙ্গে আছে তিনটি টেস্ট ম্যাচও।

হেডিংলিতে চলছে পাঁচ ম্যাচের অ্যাশেজ সিরিজের তৃতীয় টেস্ট। ক্যাপ্টেন টিম পাইনের অস্ট্রেলিয়া ও জো রুটের ইংল্যান্ডের মধ্যে বিকাল চারটায় শুরু হবে টেস্টের দ্বিতীয় দিনের খেলা।

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অধীনে অ্যান্টিগায় লাল বলের লড়াই চলছে ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি ও জেসন হোল্ডারের দলের মধ্যে। ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায়।

বৃষ্টির কারণে কলম্বোতে শ্রীলঙ্কা ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের প্রথম দিনে খেলা হয়েছে মাত্র ৩৬.৩ ওভার। ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে আজ মাঠে নেমেছে দুদল।

ক্রিকেট প্রেমীদের জন্য থাকছে টুয়েন্টি রোমাঞ্চ। টিভিতে দেখা যাবে কর্ণাটক প্রিমিয়ার লিগের জমজমাট লড়াই।

দর্শকদের জন্য থাকছে কাবাডির লড়াইও। প্রো-কাবাডি লিগের ম্যাচ সরাসরি দর্শকরা টেলিভিশনের পর্দায় উপভোগ করতে পারবেন রাত ৮টা থেকে। 

চলুন দেখে নেই শুক্রবার টেলিভিশনের পর্দায় কখন কী থাকছে-

ফুটবল
প্রিমিয়ার লিগ
অ্যাস্টন ভিলা-এভারটন
সরাসরি রাত ১টা
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি ওয়ান

লা লিগা
গ্রানাডা-সেভিয়া
সরাসরি রাত ১২টা

লেভান্তে-ভিয়ারিয়াল
সরাসরি রাত ২টা
ফেসবুক লাইভ

বুন্দেসলিগা
কোলন-বরুশিয়া ডর্টমুন্ড
সরাসরি রাত সাড়ে ১২টা
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি টু

ক্রিকেট
অ্যাশেজ সিরিজ
ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া
তৃতীয় টেস্ট, দ্বিতীয় দিন
সরাসরি বিকেল ৪টা
সনি সিক্স

ওয়েস্ট ইন্ডিজ-ভারত
প্রথম টেস্ট, দ্বিতীয় দিন
সরাসরি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা
সনি টেন ওয়ান ও সনি টেন ওয়ান এইচডি

শ্রীলঙ্কা-নিউজিল্যান্ড
দ্বিতীয় টেস্ট, দ্বিতীয় দিন
সরাসরি সকাল ১০টা ১৫ মিনিট
সনি ইএসপিএন

কর্ণাটক প্রিমিয়ার লিগ
সরাসরি বিকাল সাড়ে ৩টা ও সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা
স্টার স্পোর্টস থ্রি

কাবাডি
প্রো-কাবাডি লিগ
সরাসরি রাত ৮টা
স্টার স্পোর্টস টু

ব্যাডমিন্টন
ওয়ার্ল্ড ট্যুর
সরাসরি বেলা ৩টা
স্টার স্পোর্টস ওয়ান

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র