Alexa

ভারতীয় ক্লাবই নয়, চোটও আবাহনীর প্রতিপক্ষ

ভারতীয় ক্লাবই নয়, চোটও আবাহনীর প্রতিপক্ষ

ফটোসেশনে আবাহনী ও চেন্নাইনের কোচ ও অধিনায়ক- ছবি: বাফুফে

এবার ঢাকার মাঠে লড়াই। এএফসি কাপের ম্যাচে বুধবার ভারতের চেন্নাইন এফসির সঙ্গে লড়বে আবাহনী লিমিটেড। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৭টায় শুরু লড়াই। কিন্তু তার আগে ইনজুরি নিয়ে চিন্তায় স্বাগতিক দল। ইনজুরির মিছিলে যোগ হয়েছে একাধিক ফুটবলার।

ডিফেন্ডার তপু বর্মন ও মিডফিল্ডার আতিকুর রহমান ফাহাদ শুধু এই ম্যাচই নয়, গোটা মৌসুম থেকেই আউট। টুটুল হোসেন বাদশাও ইনজুরিতে নেই দলে। এরমধ্যে ডিফেন্ডার ওয়েলিংতন সেরিনো প্রিওরি ও ওয়ালী ফয়সালকে নিয়েও আছে শঙ্কা। তাদের একাদশে দেখা যাবে কীনা তা স্পষ্ট করে বলতে পারছে না টিম ম্যানেজম্যান্ট। সব মিলিয়ে শুধু ভারতের চেন্নাইন এফসিই নয়, চোটও বড় প্রতিপক্ষ আবাহনীর।

তারপরও এএফসি কাপে ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচ নিয়ে আশাবাদী আবাহনী লিমিটেড কোচ মারিও লেমোস। মঙ্গলবার যেমনটা বলছিলেন এই ব্রাজিলিয়ান, ‘আমরা অবশ্যই এই ম্যাচে তপু ও ফাহাদকে মিস করব। জাতীয় দলের এই দুই খেলোয়াড় ইনজুরিতে দলের বাইরে। চোট তাদের মৌসুম শেষ করে দিয়েছে। তারপরও আমাদের জয়ের জন্যই মাঠে নামতে হবে।’

চোট প্রসঙ্গে লেমোস আরো বলছিলেন, ‘আমরা এখনো জানি না বুধবারের ম্যাচে কারা একাদশে থাকবে। তপু-ফাহাদ নেই। সঙ্গে দুই-তিনজনের চোট রয়েছে। তবে ওয়েলিংতন হয়তো খেলবে। কিন্তু বাদশা থাকবে কীনা বলতে পারছি না।’

যারা খেলুক, আবাহনী ভারতীয় ক্লাবের বিপক্ষে ম্যাচটি ডু অর ডাই হিসাবেই নিচ্ছে। জয় ছাড়া অন্য কিছু ভাবছে না ধানমন্ডির ক্লাবটি। কোচ লেমোস সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘ম্যাচটা আমরা ফাইনাল হিসেবে নিচ্ছি। আমাদের ডিফেন্ডাররা ভালো খেলেছে। চেন্নাইনের বিপক্ষে ম্যাচে দারুণ লড়েছে। তবে এবার এরচেয়েও ভাল খেলতে হবে।’

ইনজুরি নিয়ে হতাশা থাকলেও আবাহনী এই ম্যাচে পাচ্ছে দলের দুই সেরা স্ট্রাইকার সানডে চিজোবা ও নাবীব নেওয়াজ জীবনকে। লিগে ৯ গোল করে জীবন ঝড় তুলতে চাইছেন এএফসি কাপের ম্যাচেও। সুযােগ কাজে লাগাতে প্রস্তুত তিনি।

‘ই’ গ্রুপে এখন দুই জয় ও এক ড্রয়ে ৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে চেন্নাইন এফসি। একটি জয় ও ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে এরপরই আছে আবাহনী লিমিটেড।

আপনার মতামত লিখুন :