Alexa

ফের ইংলিশ লিগের সেরা ম্যানেজার গার্দিওলা

ফের ইংলিশ লিগের সেরা ম্যানেজার গার্দিওলা

নতুন উচ্চতায় ম্যানচেস্টার সিটির ম্যানেজার পেপ গার্দিওলা

এ যেন প্রত্যাশার সঙ্গে প্রাপ্তির দেখা! ম্যানচেস্টার সিটি ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ট্রফি জয়ের পরই নিশ্চিত ছিল বর্ষসেরা ম্যানেজার হবেন তিনি। ঠিক তাই হলো। সিটিজেন শিবিরে ফের আনন্দের রেশ। ম্যানেজার অব দ্য ইয়ার হলেন সিটির হেড কোচ পেপ গার্দিওলা।

তবে এই লড়াইয়ে স্প্যানিশকে হারাতে হয়েছে লিভারপুলের ইয়ুর্গেন ক্লপ ও টটেনহ্যাম হটস্পারের মাউরিসিও পচেত্তিনোকে।

মৌসুমে শিরোপা লড়াইয়ে সমানে সমান লড়েছে ম্যানসিটি ও লিভারপুল। শেষ পর্যন্ত এক পয়েন্টের ব্যবধানে শেষ ম্যাচে এসে ট্রফি জয়ের আনন্দে মাতে সিটি। তারপরও সেরা ম্যানেজারের দৌড়ে ছিলেন লিভারপুলের ইয়ুর্গেন ক্লপ। তবে তাকে টপকে বাজিমাত গার্দিওলার।

টানা দুইবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের বর্ষসেরা কোচ হলেন এই স্প্যানিশ। গতবারও লিগে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তার দল। এই সাফল্যে পুরনো স্মৃতি ফিরিয়ে এনেছেন তিনি। ১০ বছর আগে স্যার ফার্গুসনের অধীনে টানা দুটি শিরোপা জিতেছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। এবার এবার সেই কিংবদন্তি কোচের কীর্তি স্পর্শ করলেন ৪৮ বছর বয়সী গার্দিওলা।

এমন অর্জনে দারুণ খুশি গার্দিওলা বলছিলেন, ‘এটা অনন্য এক সম্মান। এই অর্জন আমি আমার ফুটবলারদের সঙ্গে ভাগাভাগি করে নিতে চাই। তারাই আসলে সব কিছুর কারিগর।’

ম্যানসিটির সামনে এবার আরেকটি ট্রফির হাতছানি। আগামী শনিবার এফএ কাপের ফাইনাল। যেখানে দলটি লড়বে ওয়াটফোর্ডের বিপক্ষে। প্রথমবারের ঘরোয়া ট্রেবলের অপেক্ষায় গার্দিওলার দল।

মোট তিন ক্লাবের হয়ে গার্দিওলা জিতেছেন ২৬টি শিরোপা। বার্সেলোনার হয়ে ১৪টি (৩টি লা লিগা, ২টি কোপা ডেল রে, ২টি চ্যাম্পিয়নস লিগ, ৩টি সুপারকোপা, ২টি উয়েফা সুপার কাপ ও ২টি ক্লাব বিশ্বকাপ)। বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে ৭টি (৩টি বুন্দেসলিগা, ২টি জার্মান কাপ, একটি উয়েফা সুপার কাপ ও একটি ক্লাব বিশ্বকাপ)। ম্যানচেস্টার সিটির হয়ে ৫টি  শিরোপা উঠেছে তার হাতে (২টি প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা, ২টি লিগ কাপ ও ১টি কমিউনিটি শিল্ড)।

সর্বকালের সেরা কোচদের তালিকায় গার্দিওলা আছে পাঁচ নম্বরে। তার ওপরে অ্যালেক্স ফার্গুসন (৪৯ শিরোপা), মিরেসা লুসেসকু (৩২), ভ্যালেরি লেবানোভস্কি (৩০) আর ওটমার হিটজফিল্ড (২৮)।

আপনার মতামত লিখুন :