Alexa

পাকিস্তানকে সেমিফাইনালে দেখছেন সৌরভও

পাকিস্তানকে সেমিফাইনালে দেখছেন সৌরভও

সৌরভ জানালেন এবারের বিশ্বকাপের চার সেমিফাইনালিস্টদের এক দল হতে পারে পাকিস্তান

বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে ফেভারিটদের দলে রাখলেন সৌরভ গাঙ্গুলিও। ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক এবারের আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিটালসের উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করেন। আট মৌসুম পরে দিল্লি এবারের আইপিএলের শেষ চারে খেলে। আইপিএল শেষে এখন বিশ্বকাপ নিয়ে সবার চিন্তা-ভাবনা শুরু। বিশ্বকাপ নিয়ে সেই আলোচনায় সৌরভও বলছিলেন-‘ এবারের বিশ্বকাপের চার সেমিফাইনালিস্টদের একটা দল হতে পারে পাকিস্তান।’

-কোন যুক্তিতে পাকিস্তানকে এগিয়ে রাখছেন সৌরভ?

উত্তরে সৌরভ জানান-‘ইংল্যান্ডের মাটিতে পাকিস্তানের রেকর্ড খুবই চমৎকার। দু’বছর আগে ইংল্যান্ডে তারা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলো। ২০০৯ সালে ইংল্যান্ডে টি-টুয়েন্টির শিরোপাও জিতেছিলো। পাকিস্তান সবসময় ইংল্যান্ডে ভালো ক্রিকেট খেলে। চলতি সিরিজেই সাউদাম্পটনে ইংল্যান্ডের ৩৭৪ রানের জবাবে পাকিস্তান দারুণ লড়াকু ক্রিকেট খেলে। ম্যাচটা যদিও পাকিস্তান হারে, কিন্তু মাত্র ১২ রানে! টেস্ট ম্যাচেও ইংল্যান্ডের মাটিতে ইংল্যান্ডকে হারায় পাকিস্তান। কারণ আর কিছু নয়, পাকিস্তানের বোলিং লাইনআপটা অনেক শক্তিশালী।’

বিশ্বকাপ অনেক ম্যাচের খেলা। তবে সব আপাতত সব ফোকাস এখন ১৬ জুন ম্যানচেস্টারের ম্যাচকে ঘিরেই। ওল্ড ট্রাফোর্ডে সেদিন ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। যে ম্যাচের সব টিকিট বিক্রি শুরুর মাত্র কয়েক ঘন্টায় শেষ। বিশ্বকাপের মাঠে পাকিস্তান অবশ্য এখন পর্যন্ত ভারতকে হারাতে পারেনি। বিশ্বকাপের ইতিহাসে পাকিস্তানের বিপক্ষে পেছনের ছয় মোকাবেলার ছয়টিতেই ভারত জয়ী।

এবার কি সেই রেকর্ড বদলাতে পারবে পাকিস্তান? ১৬ জুনের রাতে মিলবে এই প্রশ্নের উত্তর। ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে বর্তমানে ভারত দ্বিতীয় অবস্থানে আছে। পাকিস্তান আছে ছয় নম্বরে।

তবে ক্রিকেট মাঠে খেলতে নেমে পেছনের ইতিহাস নিয়ে বেশি চর্চায় যেতে রাজি নন সৌরভ গাঙ্গুলি। সেই সুত্রে জানান-‘আমি রেকর্ডে বিশ্বাস করি না। নির্দিষ্ট দিনে যে দল ভালো খেলবে সেই দলই জিতবে। ভারত বেশ ভালো দল। বিশ্বকাপে ভারতকে হারানো যে কোনো দলের জন্যই কঠিন হবে। যে দলে কোহলি, রোহিত, শিখর ধাওয়ানের মতো ক্রিকেটার আছে, সেই দল দুর্বল হতে পারে না।’

বিশ্বকাপ ক্রিকেট সৌরভ গাঙ্গুলির জন্য নতুন কোনো বিষয় নয়। বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের অধিনায়কও ছিলেন গাঙ্গুলি। তার নেতৃত্বে ২০০৩ সালের বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলে ভারত। সেবারের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে যায় ভারত। ২০০৩ সালের তার সেই দলের সঙ্গে এবারের বিশ্বকাপে ভারতীয় দলের তুলনা করতে বলা হলে সৌরভ একটু কুটনীতিক সুরে উত্তরটা দেন-‘দুটো দুই জেনারেশনের দল। আমরা ২০০৩ সালের ফাইনালে খেলেছিলাম। আশা করছি এবারও ফাইনালে খেলবো এবং জিতবো।’

আপনার মতামত লিখুন :