Alexa

বিশ্বকাপে স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গ পাচ্ছেন না সরফরাজরা

বিশ্বকাপে স্ত্রী-সন্তানদের সঙ্গ পাচ্ছেন না সরফরাজরা

স্ত্রী-সন্তানকে বিশ্বকাপে পাশে পাবেন না সরফরাজ আহমেদ

শেষ পর্যন্ত সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। বিশ্বকাপে মনোযোগে চিড় ধরতে পারে এ কারণে পরিবারের সঙ্গ পাবেন না পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। বিশ্বকাপ চলাকালীন সময়ে স্ত্রী-সন্তানদের থেকে দূরেই থাকতে হচ্ছে সরফরাজ আহমেদদের।

৩০ মে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে শুরু আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ। মাঠের লড়াই শুরু হতে যখন সপ্তাহখানেকের কম বাকী তখনই দুঃসংবাদটা শুনিয়েছে পিসিবি।

অথচ এবারের বিশ্বকাপের ফরম্যাট ভিন্ন। রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে দশ দলই একে অপরের মুখোমুখি হবে। দেড় মাসের মতো ইংল্যান্ডে থাকতে হবে ক্রিকেটারদের।এ কারণেই পরিবারের মানুষ সঙ্গ চেয়েছিলেন খেলোয়াড়রা। অন্য দেশের ক্রিকেট বোর্ড উদার থাকলেও মন গলেনি পিসিবি কর্তাদের। বিশ্বকাপ চলাকালীন টিম হোটেলে ক্রিকেটারদের স্ত্রী-সন্তানদের নিষিদ্ধ করেছে তারা।

যদিও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সবশেষ সিরিজ চলাকালীন স্ত্রী-সন্তানকে পাশে রাখতে পেরেছিলেন পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। তবে মাঠের লড়াইয়ে সুপার ফ্লপ ছিল দলটি। হোয়াইট ওয়াশের লজ্জায় ডুবে পাকিস্তান। এ কারণেই কীনা কে জানে বিশ্বকাপে স্ত্রী-সন্তানদের পাশে রাখতে পারছেন না সরফরাজ আহমেদরা।

বিশ্বকাপের ম্যাচ চলাকালীন টিম হোটেলে পরিবারকে রাখা নিষেধ করেছে পিসিবি। অবশ্য বোর্ডের বিশেষ অনুমতি নিয়ে বিশ্বকাপ চলাকালীন স্ত্রীকে রুমে রাখতে পারছেন শুধু হারিস সোহেল।

পাকিস্তানের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটারের স্ত্রী-সন্তানরা এখন রয়েছেন বিশ্বকাপের দেশ ইংল্যান্ডে। এ অবস্থায় কোনো ক্রিকেটার যদি তার পরিবারের সদস্যদের দেশটিতে রাখতে চায় তবে সব খরচ বহন করতে হবে তাকেই। কিন্তু কোনভাবেই ক্রিকেটাররা যে হোটেলে থাকবেন সেই হোটেলে থাকতে পারবেন না স্ত্রী-সন্তানরা!

আপনার মতামত লিখুন :