Barta24

রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

English

প্রস্ততি ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বড় জয়

প্রস্ততি ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বড় জয়
পেলুকুওয়া: ৩৪ বলে ৩৫ রান ও ৩৬ রানে ৪ উইকেট শিকার, ছবি: সংগৃহীত
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

প্রস্ততি ম্যাচে ৩৩৭ রান তুলে দক্ষিণ আফ্রিফা ব্যাটিংয়ের সবল পেশি দেখালো। আর সেই রানে ভর করে তাদের বোলাররা ম্যাচে অনুশীলন সেরে নিলো। দক্ষিণ আফ্রিকা এই দুই কাজের ফাঁকে ৮৭ রানের বড় ব্যবধানে ম্যাচও জিতে নিলো।

ভালো ব্যাটিংয়ের সঙ্গে ভালো বোলিং-বাড়তি পাওনা হিসেবে সহজে ম্যাচ জয়। এমন একটা প্রস্তুতি ম্যাচই তো চেয়েছিলো দক্ষিণ আফ্রিকা।

কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেনের এই ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকা টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নামে। ওপেনার কুইন্টন ডি কককে এই ম্যাচে বিশ্রামে রাখে তারা। ওপেনার হাসিম আমলা ৬১ বলে ৬৫ রানের ইনিংস খেলে ফর্মে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন।

ওয়ানডাউন পজিশনে অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি ৭ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় ৬৯ বলে ৮৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন। ভান ডার ডুসেন করেন ৪১ বলে ৪০।

এরপর লোয়ার অর্ডার ব্যাটিংয়ে জেপি দুমিনি করলেন ২৯ বলে ২২। আর অলরাউন্ডার আন্দেলি পেলুকুওয়ার ব্যাট হাসেন ৩৪ বলে ৩৫ রানে।

খানিকবাদে বল হাতেও ডানহাতি এই মিডিয়াম ফাস্ট বোলার ৩৬ রানে ৪ উইকেট শিকার করে প্রস্তুতি ম্যাচে নিজের প্রস্তুতিটা সবচেয়ে ভালো মেজাজে সারেন।

শ্রীলঙ্কার ব্যাটিংয়ে অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে ও সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলা ম্যাথুস হাফসেঞ্চুরি পান। কুশাল মেন্ডিস করেন ৩১ বলে ৩৭ রান। দলের বাকি সব ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ।

ছয়জন ব্যাটসম্যান ডাবল ফিগারে পৌছাতে ব্যর্থ হন। প্রস্তুতি ম্যাচের কোনো প্রস্তুতিই শ্রীলঙ্কার মন মতো হলো না!

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

দক্ষিণ আফ্রিকা: ৩৩৭/৭(৫০ ওভারে, আমলা ৬৫, ফাফ ডু প্লেসি ৮৮, দুসেন ৪০, পেলুকুওয়া ৩৫, লাকমাল ২/৬৩, নুয়ান প্রদ্বীপ ২/৭৭)।

শ্রীলঙ্কা: ২৫১/১০ (৪২.৩ ওভারে, করুনারত্নে ৮৭, মেন্ডিস ৩৭, ম্যাথুস ৬৪, পেলুকুওয়া ৪/৩৬, এনগিডি ২/১২)।

ফল: দক্ষিণ আফ্রিকা ৮৭ রানে জয়ী।

আপনার মতামত লিখুন :

ব্যাটে-বলে বিবর্ণ শান্তর এইচপি দল

ব্যাটে-বলে বিবর্ণ শান্তর এইচপি দল
প্রথম ম্যাচেই ব্যর্থ বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দল--ফাইল ছবি

সিরিজের প্রথম ম্যাচেই পথ হারাল বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দল (এইচপি)। ঘরের মাঠে ব্যাট-বল দুটোতেই ব্যর্থ! অবশ্য অন্যভাবে বলা যায়- ভানিদু হাসারাঙ্গার কাছেই হার মানল স্বাগতিকরা। শুরুতে ব্যাটে ঝড় তুললেন এই শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার। এরপর লেগ স্পিনে সর্বনাশ করে দিলেন তিনি!

হাসারাঙ্গার দাপটেই হাসিমুখ শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দলের। তার সাফল্যে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে হার দেখেছে বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দল। ১৮৬ রানের বড় জয়ে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে এগিয়ে গেল সফরকারীরা।

রোববার সাভারের বিকেএসপিতে বড় লক্ষ্যের সামনে ব্যাট করতে নেমে কিছুই করতে পারেনি নাজমুল হোসেন শান্তর দল। ৩০৪ রানের জবাবে নেমে ভয়াবহ ব্যর্থ দল। ২৮.৩ ওভারে অলআউট ১১৮ রানে!

সকালে টস ভাগ্যটাও সঙ্গে ছিল না বাংলাদেশ দলের। সফরকারী শ্রীলঙ্কান দল ব্যাট করতে নেমে অবশ্য শুরুতেই হারায় দুই ওপেনার পাথুম নিসানকা ও সাদুন বিরাক্কডিকে। বাঁহাতি পেসার শফিকুল ইসলামের শিকার তারা। কিন্তু এরপরই ঘুরে দাঁড়ায় ইমার্জিং দল। ৭৯ বলে ৭১ রান করে ফেরেন অধিনায়ক চারিথ আসালঙ্কা।

শেষদিকে টাইগার বোলারদের হতাশ করেন হাসারাঙ্গা ও আশেন বান্দারা। ৭ ওভারে ঝড় তুলে করেন ৭৮। এরমধ্যে ৪৬ বলে ৭০ রান তুলেন হাসারাঙ্গা। ১৭ বলে অপরাজিত ২৯ বান্দারার ব্যাটে। ২২ রানে ২ উইকেট শিকার করেন শফিকুল। সমান উইকেট নেন শহিদুল ইসলাম।

বড় সংগ্রহের জবাবে ব্যাট করতে নেমে চেনাই যায়নি শান্ত-ইয়াসিরদের।বিস্ময়কর হলেও সত্য দলের আট ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কের দেখা পেলেন না। যা একটু লড়াই করেন সাইফ হাসান। করেন ৭০ বলে ৫০ রান। ১২ রানে ৪ উইকেট হাসারাঙ্গার। ম্যাচসেরা তিনি ছাড়া আবার কে?

সিরিজে ফেরার সুযোগটা বুধবারই পাবে বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দল। বিকেএসপিতেই এদিন শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দলের সঙ্গে লড়বেন নাজমুল হোসেন শান্তরা।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দল: ৫০ ওভারে ৩০৪/৭ (নিসানকা ১৮, বিরাক্কডি ৩১, আসালঙ্কা ৭১, আশান ৩৩, মেন্ডিস ২৮, হাসারাঙ্গা ৭০, বান্দারা ২৯*, ড্যানিয়েল ৮, ফার্নান্দো ২*; শহিদুল ২/৭১, ইয়াসিন ১/৮৯, শফিকুল ২/২২, আফিফ ১/২৮, আমিনুল ১/৪৩)
বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দল: ২৮.৩ ওভারে ১১৮/১০ (সাইফ ৫০, নাঈম ৫, শান্ত ৮, ইয়াসির ০, আফিফ ১৯, আমিনুল ০, মাহিদুল ১০, নাঈম ১, শহিদুল ০, ইয়াসিন ১, শফিকুল ০*; ফার্নান্দো ২/২৮, তুষারা ২/২১, আপন্সো ২/২৫, হাসারাঙ্গা ৪/১২)
ফল: শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দল ১৮৬ রানে জয়ী
ম্যাচসেরা: ভানিদু হাসারাঙ্গা

ভাঙল জোকোভিচের শিরোপা স্বপ্ন

ভাঙল জোকোভিচের শিরোপা স্বপ্ন
শেষ চারে হেরে হতাশ জোকোভিচ, ছবি: সংগৃহীত

শিরোপা জয়ের স্বপ্নই দেখেছিলেন নোভাক জোকোভিচ। কিন্তু ভাগ্য সহায় হয়নি। তাই শিরোপা তো দূরে থাক সিনসিনাটি মাস্টার্সের ফাইনালেই উঠা হয়নি এ সার্বিয়ান তারকার। প্রতিপক্ষ দানিল মেদভেদেভের কাছে অঘটনের শিকার হয়ে ১৬ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী এ মেগাস্টার বিদায় নিলেন টুর্নামেন্টের সেমিফাইনাল থেকে।

শেষ চারের লড়াইয়ে প্রথম সেট ৬-৩ গেমে জিতে এগিয়ে ছিলেন বিশ্ব টেনিস র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর তারকা। কিন্তু পরের দুই সেটে খেই হারিয়ে ফেলেন জোকোভিচ। ৬-৩ ও ৬-৩ গেমে হার মানেন নবম বাছাই রুশ প্রতিপক্ষের কাছে।

অঘটনের এ জয়ে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের টিকিট পেয়ে গেছেন মেদভেদেভ। আসরে পুরুষদের একক ইভেন্টের শেষ ম্যাচে তার প্রতিপক্ষ আরেক অনাকাঙ্ক্ষিত ফাইনালিস্ট ডেভিড গোফিন।

১৬তম বাছাই এ বেলজিয়ান তারকা সেমিফাইনালে ৬-৩ ও ৬-৪ গেমে ফ্রান্সের রিচার্ড গ্যাসকুয়েটকে ধরাশায়ী করে প্রথম বারের মতো পৌঁছে গেছেন এটিপি মাস্টার্স ১০০০ টুর্নামেন্টের ফাইনালে।

এ আসর থেকে বিদায় নেওয়ায় ২৬ আগস্ট থেকে শুরু হতে যাওয়া ইউএস ওপেন নিয়েই এখন মনোযোগী হবেন জোকোভিচ।

 

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র