ইমরান খানের পরামর্শ শুনলেন না সরফরাজ!

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম
সরফরাজদের পাশে আছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

সরফরাজদের পাশে আছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক তিনি। ইংল্যান্ডের কন্ডিশনে খেলার অভিজ্ঞতাটাও বেশ সমৃদ্ধ। সেই ইমরান খান এখন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচের আগে টুইটারে সরফরাজ আহেমদকে বেশ কিছু পরামর্শ দিয়েছিলেন তিনি। অথচ অগ্রজের একটি টিপস কানেই নেননি পাকিস্তান অধিনায়ক।

ইমরান খান টুইটে সরফরাজকে উদ্দেশ্য করে লিখেছিলেন, ‘পিচ যদি ভেজা না থাকে, তাহলে অবশ্যই টস জিতলে ব্যাটিং নিতে হবে। একইসঙ্গে আক্রমণাত্মক ক্রিকেট খেলতে হলে দলে স্পেশালিস্ট বোলার-ব্যাটসম্যান রাখতে হবে।’

উইকেট শুকনো থাকলেও রোববার ম্যানচেস্টারে সরফরাজ টসে জিতে বোলারদের হাতেই বল তুলে দেন। এরপর ভারত ব্যাটিংয়ে নেমে দুর্দান্ত খেলে যাচ্ছে। অবশ্য সরফরাজের ওপর আস্থা আছে ইমরানের। টুইটারে লিখেছেন, ‘ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে দুই দল বড় চাপে থাকবে।  যারা মানসিকভাবে শক্তিশালী হতে পারবে জিতবে তারাই। পাকিস্তানের সরফরাজের মতো দৃঢ়চেতা একজন অধিনায়ক রয়েছে।’

টুইটার অ্যাকাউন্টে ইমরান খান আরো লিখেছেন, ‘আমি যখন খেলা শুরু করি তখন মনে করতাম জয়ের জন্য ৭০ ভাগ চাই প্রতিভা আর ৩০ ভাগ মানসিক শক্তি। যখন আমি ক্যারিয়ার শেষ করি তখন এই হার ফিফটি-ফিফটি! এখন আমি বন্ধু সুনীল গাভাস্কারের সঙ্গে একমত যে বড় ম্যাচ জিততে হলে আজকের দিনে চাই ৬০ ভাগ মানসিক শক্তি, আর ৪০ ভাগ প্রতিভা।’

একইসঙ্গে দুই বৈরি দলের লড়াইয়ে আগে সাহসও দিয়েছেন ইমরান। এই কিংবদন্তি ক্রিকেটার লিখেছেন, ‘হারের ভয় মন থেকে দূর করতে হবে। হারের ভয় দলে নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। সাহসী মনই ফল পক্ষে আনতে পারে।’

ইমরান মেনে নিয়েছেন রোববারের লড়াই ভারত ফেভারিট। এ কারণেই অনুজদের বললেন, তোমরা শেষ বল পর্যন্ত লড়াই করবে, নিজেদের সেরাটা দেবে। ‘মাঠে সত্যিকারের ক্রীড়াবিদের মতো মাথা উঁচু করে খেলবে। দেশের মানুষের দোয়া সব সময়ই তোমাদের সঙ্গে রয়েছে। গুড লাক।’

এরপরই সরফরাজের দলের উদ্দেশ্যে ইমরান বলেছেন, ভারত ফেবাটির টিম তাই হারের ভয় মন থেকে দূর করে খেলায় মনোযোগ দাও। শেষ বল পর্যন্ত লড়াই করে যাও।

কিন্তু ইমরানের সেই টস জিতে ব্যাটিং করার পরামর্শ রাখতে পারেননি পাকিস্তান অধিনায়ক। ম্যানচেস্টারে গত দুই দিন ধরে বেশ বৃষ্টি হচ্ছে। পিচ ও আউট ফিল্ড অনেকটাই ভেজা, যে কারণে তিনি টস জিতে ফিল্ডিং নিয়েছেন। অবশ্য ইমরানের টুইটেও আভাস ছিলো পরিস্থিতি ‍বুঝে সিদ্ধান্ত নেয়ার। হয়তো সেটাই করেছেন সরফরাজ।

আপনার মতামত লিখুন :