ভারত ম্যাচে ভালো কিছু হবে, ইনশাল্লাহ: মেহেদী মিরাজ

এম. এম. কায়সার, স্পোর্টস এডিটর, বার্তা২৪.কম, বার্মিংহ্যাম, ইংল্যান্ড থেকে
আরেকটি জয়ের অপেক্ষায় মেহেদী হাসান মিরাজ

আরেকটি জয়ের অপেক্ষায় মেহেদী হাসান মিরাজ

  • Font increase
  • Font Decrease

একটা চ্যালেঞ্জ শেষ না হতেই, সামনে আরেক চ্যালেঞ্জ! বিশ্বকাপ আসলে এমনই!

তবে প্রতি ম্যাচে নতুন চ্যালেঞ্জের সামনে দাড়ানো বাংলাদেশ মোটেও পিছু হটছে না। অমুক দল অনেক শক্তিশালী-তাদের হারানো যাবে না, এমন সনাতনী কোনো চিন্তাই নেই বাংলাদেশ দলের কোনো খেলোয়াড়ের মাথায়। এই বিশ্বকাপের প্রতিটি দলকেই বাংলাদেশ হারানোর ক্ষমতা রাখে, সেই ধাঁচের ক্রিকেট খেলার যোগ্যতা আছে এই দলের-আর এই বিশ্বাস বাকিদের চেয়ে  সবচেয়ে বেশি আস্থা দলের ১৫ ক্রিকেটারের। মেহেদী মিরাজ তাদেরই একজন।

বার্মিংহ্যামে এসে পৌছেছে বাংলাদেশ দল মঙ্গলবার দুপুরেই। তবে কোনো অনুশীলন নেই। পুরোদুস্তর ছুটির মেজাজে আছেন ক্রিকেটাররা। সেই ফাঁকে টিম হোটেলের সামনে মেহেদী মিরাজ বাংলাদেশের মিডিয়াকে সময় দিলেন। বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সাফল্য এবং সামনের পথ নিয়ে সম্ভাবনার কথাও উঠে এলো সেই কয়েক মিনিটের সেই ক্রিকেট গল্পে।

২ জুলাই বার্মিংহ্যামের এজবাস্টনে বাংলাদেশ লড়বে ভারতের বিপক্ষে।

সেই ম্যাচ প্রসঙ্গে মেহেদী হাসান মিরাজ বললেন-ভারত ম্যাচে চাপের কিছু নেই। প্রক্রিয়া ঠিক রেখে সামনে বাড়তে পারলে এই ম্যাচ থেকেও সাফল্য নিয়ে ফিরবে বাংলাদেশ দল। বিস্তারিত ব্যাখায় মিরাজ জানান-‘ বিশ্বকাপের প্রতিটা ম্যাচেই তো চ্যালেঞ্জ। আমাদের দলটা এখন খুব ভালো ক্রিকেট খেলছে। শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, দক্ষিণ আফ্রিকা এসব বড়ো এবং অভিজ্ঞ দলগুলো পয়েন্ট তালিকায় আমাদের নিচে আছে। আমরা এখনো পয়েন্ট তালিকার পাঁচ নম্বরে। ভারত ম্যাচে চাপের কিছু নেই। আগের ম্যাচগুলো যেভাবে খেলেছি, এই ম্যাচও সেভাবেই খেলবো। যে তিনটি ম্যাচ জিতেছি আমরা সেই প্রক্রিয়াটা পরের দুই ম্যাচেও বজায় রাখতে হবে। জিততেই হবে, না জিতলে বাদ অথবা সেমিফাইনালে উঠতে হবে-এমন ভাবে চিন্তা করে আমরা চাপ নিচ্ছি না। শুধু ভাবছি প্রক্রিয়াটা ঠিক রাখতে হবে। ভাগ্যেরও কিছু সহায়তা প্রয়োজন। আল্লাহ যদি রহম করে তবে ইনশাল্লাহ অবশ্যই ভালো কিছু করবো আমরা।’

ভারত তো স্পিনের বিপক্ষে সবসময় দক্ষ। এমন দলের সঙ্গে বাংলাদেশের স্পিনারদেরও নিশ্চয়ই বাড়তি চ্যালেঞ্জ  নিয়ে নামতে হবে?

এই প্রসঙ্গে মিরাজ বললেন-‘ আমরা যদি ভারতের বিপক্ষে জিততে পারি তবে সেটা আমাদের জন্য অনেক বড় পাওয়া হবে। তখন পরের ম্যাচের জন্য কাজটা আরো সহজ হয়ে যাবে। ভারত ম্যাচে স্পিনারদের ভুমিকাও ভালো ভাবে পালন করার চ্যালেঞ্জ তো আছেই। ম্যাচের মাঝের ওভারগুলো তে যেন নিয়ন্ত্রণ আমরা রাখতে পারি সেই চেষ্টাই করতে হবে।’

সেই চেষ্টার জোরেই তো ৭ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট পাওয়া বাংলাদেশের চোখে এখন বিশ্বকাপের শেষ চারের সবুজ স্বপ্ন!

আপনার মতামত লিখুন :