‘সেমিতে অস্ট্রেলিয়াকে পেয়ে খুশি ইংল্যান্ড’

স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে মুখোমুখি অ্যারন ফিঞ্চ ও ইয়ন মরগান

ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে মুখোমুখি অ্যারন ফিঞ্চ ও ইয়ন মরগান

  • Font increase
  • Font Decrease

সেমি-ফাইনালের প্রতিপক্ষ হিসেবে ভারতকে কখনো চায়নি ইংল্যান্ড। মনে মনে চেয়েছিল অস্ট্রেলিয়াকে। বাস্তবে তাদের সেই চাওয়া ফলে গেছে। ওয়ানডে বিশ্বকাপের শেষ চারে ভারতের বদলে অজিদের পেয়েই খুশী ইংলিশ শিবির। এমনটাই মনে করেন মাইকেল ভন।

এনিয়ে ভন বলেন, ‘ইংল্যান্ড দল এটা স্বীকার করবে না। কিন্তু ভিতরে ভিতরে তারা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলতে পেরে খুব খুশীই হবে।’

ইংল্যান্ড কেন এজবাস্টনে অস্ট্রেলিয়াকে পেয়ে খুশী। কারণ এখানে অজিরা ২০০১ সালের পর এখনো পর্যন্ত জয়ের দেখা পায়নি।  

সেটাই ইঙ্গিত করে ভন বলেন, ‘কঠিন একটি ম্যাচ হতে যাচ্ছে। কিন্তু দুদলের মধ্য থেকে একটি দল বেছে নিতে হলে আপনি এজবাস্টনে অস্ট্রেলিয়াকেই নিবেন। কারণটা তো জানাই, লর্ডসে তাদের বিপক্ষে খেলা উচিত হবে না আপনার।’

এজবাস্টনে গত চার ওয়ানডেতেই জয় ছিনিয়ে নিয়েছে ইংল্যান্ড। হারিয়ে দিয়েছে ভারতকেও। সেসুবাদেই ১৯৯২ সালের এই প্রথম বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনালে জায়গা করে নিয়ে স্বাগতিকরা। দুই বছর আগে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে এই বার্মিংহামেই অস্ট্রেলিয়াকে  ৪০ রানের ব্যবধানে হারিয়েছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু গত মাসে লর্ডসে বিশ্বকাপের লিগ পর্বে তাদেরকে স্বাচ্ছন্দ্যে হারিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

তাই ভন যোগ করেন, ‘এজবাস্টন ও ট্রেন্ট ব্রিজে ইংলিশ খেলোয়াড় হিসেবে আপনি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন। তাই ইংল্যান্ড সেখানে খেলতে পেরে খুশীই হবে।’ ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক ভন বলেন, কয়েক বছর ধরে ইংল্যান্ড যে ভাবে খেলে যাচ্ছে। আর তারা যে দুরন্ত ফর্মে এখন। এখন যদি বিশ্বকাপ জিততে না পারে তাহলে সেটা হবে তাদের ব্যর্থতা।

ভন বলেন, ‘সবধরণের কন্ডিশনে গত চার বছরে তারা সবাইকে হারিয়েছে। এখন দেখানোর সময় এসেছে যে সর্বোচ্চ চাপের মধ্যেও তারা জিততে পারে।’

সাবেক এ তারকা ক্রিকেটারের দৃষ্টি এখন বিশ্বকাপ জয়ে, ‘আমার কাছে না জিততে পারাই হবে ইংল্যান্ডের ব্যর্থতা। তারা অনেক ভালো একটি দল। অন্যতম ফেভারিট। তাদের এগিয়ে যাওয়া উচিত। উচিত টুর্নামেন্টটাই জেতা।’

ইংল্যান্ড টুর্নামেন্ট শুরু করে ছিল হট ফেভারিটদের মতো। কিন্তু শেষ দিকে তাদের ফর্মটা পড়ে যায়। পরে শেষ দুই ম্যাচ জিতে সেমি-ফাইনালে জায়গা করে নেয় তারা।

লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে হার মানে অস্ট্রেলিয়া। যে কারণে আয়োজক ইংল্যান্ড ১১ জুলাই এজবাস্টনের ফাইনালে উঠার লড়াইয়ে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়েছে অ্যারন ফিঞ্চদের।

এখনো পর্যন্ত ৫০ ওভারের বিশ্বকাপ জেতা হয়নি ইংল্যান্ডের। ২৭ বছরের ইতিহাসে বিশ্বকাপে এখনো পর্যন্ত নক-আউট ম্যাচ জিততে পারেনি তারা।

আপনার মতামত লিখুন :