Barta24

শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

সেমি-ফাইনালের শুরুতেই চিড়েচ্যাপ্টা অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস!

সেমি-ফাইনালের শুরুতেই চিড়েচ্যাপ্টা অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস!
বোলারদের চমকে ম্যাচে দাপট ইংলিশদের
এম. এম. কায়সার
স্পোর্টস এডিটর
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
বার্মিংহ্যাম
ইংল্যান্ড থেকে


  • Font increase
  • Font Decrease

ঠিক যেন ভারতের সেমি-ফাইনালের ইনিংসকেই অনুসরণ করলো অস্ট্রেলিয়া! ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টসে জয়ী অস্ট্রেলিয়া বামিংহ্যামে ব্যাট করতে নেমেই চরম বিপদে পড়ে। ১৪ রানে শুরুর ৩ উইকেট হারিয়ে ত্রাহি অবস্থায় পড়ে অস্ট্রেলিয়া।

প্রথম পাওয়ার প্লে’তেই অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিংয়ের ‘পাওয়ার ফেল’! শুরুর ১০ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার যোগাড় ১০ ওভারে ৩ উইকেটে মাত্র ২৭ রান।

আগের দিন ওল্ড ট্রাফোর্ডে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমিফাইনালে ভারতেরও এমন শোচনীয় অবস্থায় ছিলো; ১০ ওভারে ২৭ রানে ৪ উইকেট!

বার্মিংহ্যামে ইংল্যান্ডের শুরুর দুই পেসার ক্রিস ওকস ও জোফরা আর্চার দলকে দুর্দান্ত শুরু এনে। আর্চার একটি এবং ওকস দুটো উইকেট পান। ৬.১ ওভারে স্কোরবোর্ডে ১৪ রান জমা হতেই অস্ট্রেলিয়া দুই ওপেনার ও মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান পিটার হ্যান্ডসকম্বকে হারিয়ে বসে। 

ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই উইকেট হারায় অস্ট্রেলিয়া। জোফরা আর্চার তার প্রথম ওভারের প্রথম বলেই অজি ওপেনার অ্যারেন ফিঞ্চকে বিদায় করেন। আর্চারের ইনসুইং বলটা উইকেটের ওপর এসে খেলতে গিয়ে টাইমিং মেলাতে পারেননি অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক অ্যারেন ফিঞ্চ। বল তার প্যাডে লাগে। আপিল উঠে। আম্পায়ার কুমার ধর্মাসেনা আঙ্গুল তুলে সাড়া দেন। কিন্তু ফিঞ্চ রিভিউ নেন। তবে তাতেও রক্ষা হয়নি তার। উইকেট হারালেন সেই সঙ্গে দলের একমাত্র রিভিউও নষ্ট হলো!

 গোল্ডেন ডাক নিয়ে অ্যারেন ফিঞ্চ ড্রেসিংরুমে ফিরে আসতেই ফের ধাক্কা অস্ট্রেলিয়া শিবিরে। এবার আউট ডেভিড ওয়ার্নার। ক্রিস ওকসের লাফিয়ে উঠা বল অফস্ট্যাম্পের বাইরে দিয়ে যাওয়ার সময় ওয়ার্নারের ব্যাটে লেগে দ্বিতীয় স্লিপে যায়। বেয়ারস্টো মুখের কাছে দু’হাত দিয়ে দক্ষতার সঙ্গে ক্যাচটা ধরেন। ওয়ার্নার বিদায় নিলেন মাত্র ৯ রান করে।

স্টিফেন স্মিথের সঙ্গে এসে জুটি বাঁধেন এই ম্যাচে ওসমান খাজার জায়গায় খেলতে নামা পিটার হ্যান্ডসকম্ব। তবে হ্যান্ডসকম্বও ব্যর্থ। ৪ রানে ওকসের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন তিনি।

৬.১ ওভারে ১৪ রানে ৩ উইকেট হারানো অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস এই সেমিফাইনালে কতদুর যাবে- শুরুতেই সেই সংশয়ের জন্ম। ইংল্যান্ডকে ফাইনালে তুলে আনার প্রাথমিক কাজটা দারুণভাবেই শুরু করলেন দলের দুই পেসার।

এই রিপোর্ট লেখার সময় অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস সামাল দিচ্ছিলেন স্টিভেন স্মিথ ও উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান অ্যালেক্স ক্যারে। স্মিথ খেলছিলেন ২৬ বলে ৪ রান নিয়ে। ক্যারে ব্যাট করছিলেন ৯ রানে। ১০ ওভারে দলের স্কোর ৩ উইকেটে ২৭ রান।

আপনার মতামত লিখুন :

মাথায় আঘাত পেলে নামানো যাবে বদলি ক্রিকেটার

মাথায় আঘাত পেলে নামানো যাবে বদলি ক্রিকেটার
সত্য শেষ বিশ্বকাপেই মাথায় আঘাত পেয়েছিলেন হাশিম আমলা

অবশেষে সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। এখন থেকে ম্যাচে মাথায় আঘাত পাওয়া ক্রিকেটারের বদলি হিসেবে আরেকজনকে মাঠে নামানো যাবে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সব ফরম্যাট ও প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের জন্য এই নিয়ম করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা।

একইসঙ্গে স্লো ওভাররেটের নিয়ম পাল্টানো হয়েছে। স্লো ওভার রেটে এখন থেকে দলের অধিনায়ক নিষিদ্ধ হবেন না। ধারাবাহিকভাবে মারাত্মক স্লো ওভার রেটের দায় নিতে হবে দলের সব ক্রিকেটারকে। অধিনায়ক ও তার সতীর্থদের একই অঙ্কের জরিমানা হবে।

বৃহস্পতিবার রাতে লন্ডনে আইসিসির চলতি বার্ষিক সম্মেলনে এসব সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির কর্তাব্যাক্তিরা।

অবশ্য গত কয়েক বছর ধরেই নিয়মনটি পাল্টানোর কথা ভাবছিলেন তারা। কারণ মাথায় আঘাত পেলে এরপর হাসপাতাল ঘুরে এসে সেই ক্রিকেটারটির জন্য মাঠের খেলায় ফেরা সহজ নয়। এ অবস্থায় ঘরোয়া ক্রিকেটে পরীক্ষামূলকভাবে নিয়মটি চালু করা করা হয়। এবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও দেখা মিলবে এই নিয়মের।

আইসিসির এই নতুন নিয়ম সবার আগে চালু হবে অ্যাশেজে। ১ আগস্ট থেকে শুরু হবে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার এই ঐতিহ্যবাহী লড়াই। তার আগে আইসিসি জানাল- ‘মাঠের বদলি খেলোয়াড়কে অভিন্ন হতে হবে। মানে ব্যাটসম্যানের বিকল্প ব্যাটসম্যান। আবার বোলার আহত হলে তার বদলে আরেকজন বোলারকেই মাঠে নামাতে হবে। আর এজন্য ম্যাচ রেফারির অনুমোদন নিতে হবে।’

২০১৪ সালের নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ওপেনার ফিলিপ হিউজ মাথায় চোট পেয়ে চলে গিয়েছিলেন না ফেরার দেশে। তারপরই সবাই নড়েচড়ে বসেন। হেলমেটেও নিয়ে আসা হয় পরিবর্তন। এজন্য ২০১৬-১৭ মৌসুমে ঘরোয়া ক্রিকেটে মাথায় আঘাত পাওয়া খেলোয়াড়ের বদলি নামানোর নিয়ম প্রবর্তন করে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

মাথায় আঘাত ক্রিকেটে নতুন কিছু নয়, সদ্য শেষ বিশ্বকাপেও হাশিম আমলা ও উসমান খাজার মাথার চোট নিয়ে ছেড়েছিলেন মাঠ। বিকল্প ক্রিকেটারের মাঠে নামার সুযোগ ছিল না বলে তাদের দল ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

ছুটির দিনে টিভিতে যত খেলার আয়োজন

ছুটির দিনে টিভিতে যত খেলার আয়োজন
ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপের ফাইনালে লড়বে তাজিকিস্তান-উত্তর কোরিয়া

ওয়ানডে বিশ্বকাপ শেষ। টেলিভিশনের পর্দাতেও শেষ ইংল্যান্ড ও ওয়েলস অনুষ্ঠিত এই বিশ্বসেরার রােমাঞ্চ। তবে আজ শুক্রবার ছুটির দিন দর্শকদের জন্য থাকছে ফুটবল উন্মাদনা। ইন্টারকন্টিনেল্টাল কাপ ফাইনালে তাজিকিস্তানের মুখোমুখি হবে উত্তর কোরিয়া। ম্যাচটি সরাসরি টেলিভিশনের পর্দায় দেখা যাবে রাত সাড়ে ৮টা থেকে। 

ব্যাডমিন্টন ওয়ার্ল্ড ট্যুরের লড়াই দেখার সুযোগ থাকছে ক্রীড়াপ্রেমীদের জন্য। ব্যাডমিন্টন লড়াই দর্শকরা সরাসরি টেলিভিশনের পর্দায় উপভোগ করতে পারবেন বেলা ১১টা থেকে।

টেনিস অনুরাগীদের মন খারাপ করার কিছু নেই। তাদের জন্যও থাকছে উইম্বলডন চ্যাম্পিয়নশিপ হাইলাইটস।

চলুন দেখে নেই শুক্রবার টেলিভিশনের পর্দায় কখন কী থাকছে-

ক্রিকেট
অ্যাশেজ রিওয়াইন্ড
বিকেল সাড়ে চারটা
সনি টেন ৩

ফুটবল
ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ ফাইনাল
তাজিকিস্তান-উত্তর কোরিয়া
সরাসরি রাত সাড়ে ৮টা
স্টার স্পোর্টস ওয়ান এশিয়া ও টু

ব্যাডমিন্টন
এইচএসবিসি বিডব্লিউএফ ওয়ার্ল্ড ট্যুর ২০১৯
সরাসরি বেলা ১১টা
স্টার স্পোর্টস ওয়ান

টেনিস
উইম্বলডন, হাইলাইটস
সকাল সাড়ে ৯টা
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট ওয়ান

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র