Barta24

শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

দ্রুতগতিতে ফাইনালের পথে ইংল্যান্ড

দ্রুতগতিতে ফাইনালের পথে ইংল্যান্ড
জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টোর ব্যাটে দাপটে এগিয়ে যাচ্ছে ইংল্যান্ড
এম. এম. কায়সার
স্পোর্টস এডিটর
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
বার্মিংহ্যাম
ইংল্যান্ড থেকে


  • Font increase
  • Font Decrease

টার্গেট মাত্র ২২৪। ইংল্যান্ডের যে লম্বা ও মারকাটারি ব্যাটিং লাইনআপ তাতে এটা ভীষণ মামুলি টার্গেট। যে গতিতে ইংল্যান্ডের শুরুর ব্যাটিং এই লক্ষ্যের পথে ছুটছিলো তাতে নিশ্চিত মনে হচ্ছিলো ম্যাচ জেতার জন্য বেশি অপেক্ষায় থাকতে হবে না তাদের!

শুরুর ১০ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়ে ইংল্যান্ড তুলে নেয় ৫০ রান। একটু জানিয়ে দেই, শুরুর ১০ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার রান ছিলো ৩ উইকেটে ২৭!

প্রথম পাওয়ার প্লে’তে দুই ইংলিশ ওপেনার জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টো অস্ট্রেলিয়ার বোলিংকে পাত্তা না দিয়ে আক্রমনাত্মক ব্যাটিং চালিয়ে যান। স্পিনার নাথান লায়নকে ম্যাচের ১১ নম্বর ওভারে আক্রমণে আনেন অ্যারেন ফিঞ্চ। ওপেনার জ্যাসন রয় তাকে প্রথম বলেই উইকেট সোজা ছক্কা হাঁকিয়ে স্বাগত জানান! নিজের প্রথম ওভারে নাথান লায়ন ব্যয় করেন ১৩ রান।

ঠিক যাকে বলে ছিঁড়েখুঁড়ে খাওয়া- সেই মেজাজ নিয়েই ইংল্যান্ডের দুই ওপেনার অস্ট্রেলিয়ার বোলিংকে একেবারে মামুলি বানিয়ে দিচ্ছিলেন! মিচেল স্টার্ক তার শুরুর তিন ওভারে ২৩ রান খরচা করার পর বোলিংয়ে বদল আনতে বাধ্য হন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক।

ম্যাচের ১৪ ওভারের সময় ইংল্যান্ডের স্কোরবোর্ডে জমা হয় কোনো উইকেট না হারিয়ে ৮০ রান। ম্যাচ জিততে বাকি ৩৬ ওভারে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন তখন মাত্র ১৪৪ রান। ওপেনার জ্যাসন রয়ের ব্যাট যেন হয়ে উঠছিলো খাপখোলা তলোয়ার! ৪৭ বলে ৪৫ রান নিয়ে খেলছিলেন তিনি। সঙ্গী ওপেনার জনি বেয়ারস্টো ছিলেন ২৭ রানে অপরাজিত।

টসে জিতে এজবাস্টনের এই উইকেটে ব্যাট করতে নামা অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিংয়ের পুরোটা সময় কাটে কষ্ট ও যন্ত্রনায় যেন! স্টিভেন স্মিথ ও অ্যালেক্স ক্যারি ছাড়া দলের আর কোনো ব্যাটসম্যান বলার মতো যে রানই পেলেন না! শুরুতে ১৪ রানে ৩ উইকেট হারানোর পরে অস্ট্রেলিয়ার খুঁড়িয়ে চলা শুরু। ইনিংসের বাকিটা সময় আর মাথা তুলে দাড়াতেই পারেনি তারা। স্টিভেন স্মিথ একপ্রান্ত আকঁড়ে ধরে ৮৫ রান করায় কোনো মতো অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস ২২৩ রানের পুঁজি পায়। তাও আবার কোটার পুরো ওভার খেলতে পারেনি তারা।

মামুলি স্কোর তাড়া করতে নেমে ইংল্যান্ড তাদের পরিচিত ‘ব্র্যান্ডের’ ক্রিকেটই খেললো। ব্যাটিংয়ে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত আক্রমণ এবং আক্রমণ করার দুর্দান্ত নজির তৈরি করেছে ইংল্যান্ড।

সহজ ব্যাটিং উইকেটে আগে ব্যাট করার সুযোগ পেয়েও অস্ট্রেলিয়া সেখানে গুটিয়ে গেছে মাত্র ২২৩ রানে। এজবাস্টনের এই উইকেটে যেখানে তিনশ রানকেও নিরাপদ ভাবা হয় না, সেখানে ২২৩ রান নিয়ে সেমিফাইনাল জেতার উপায় যে নেই!

অস্ট্রেলিয়া মূলত এই ম্যাচ থেকে ছিটকে গেছে ব্যাটিংয়েই। আরেকটু সুনির্দিষ্ট করে বললে-শুরুর ব্যাটিং ব্যর্থতায় আটকে গেছে অস্ট্রেলিয়ার ফাইনালে খেলার স্বপ্ন!

আপনার মতামত লিখুন :

কলম্বোতে পা রাখল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল

কলম্বোতে পা রাখল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল
নিরাপদেই শ্রীলঙ্কায় পৌঁছলেন তামিম-মোসাদ্দেক হোসেনরা

তামিম ইকবালের নেতৃত্বে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল এখন শ্রীলঙ্কায়। শনিবার দুপুরেই দেশ ছেড়েছিলেন টাইগার ক্রিকেটাররা। এরপর স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টার দিকে কলম্বোতে পা রাখেন তামিম-মুশফিকুর রহিমরা। তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলতে অবশ্য পুরো দল একসঙ্গে যেতে পারেনি।

গত ২১ এপ্রিল শ্রীলঙ্কার হোটেল ও চার্চে ভয়ংকর সন্ত্রাসী হামলায় প্রাণ হারিয়েছিল আড়াই শর বেশি মানুষ। এরপর থেকেই জরুরি অবস্থা জারি করে শ্রীলঙ্কা। সেই ঘটনার পর প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক দল হিসেবে বাংলাদেশ দল গেল শ্রীলঙ্কা সফরে। এ কারণেই বাংলাদেশ দলকে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দিচ্ছে শ্রীলঙ্কা। বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রীয় প্রতিনিধিদের জন্য যে নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকে তাই পাবেন তামিম ইকবালরা।

চট্টগ্রামে আফগানিস্তান ‘এ’ দলের বিপক্ষে সিরিজ ও ভারতে মিনি রঞ্জি ট্রফিতে খেলার কারণে ১৪ জনের দলের মধ্যে ৭ জন যাচ্ছেন পরে। এরমধ্যে শনিবার কলম্বো গেলেন তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুশফিকুর রহিম, সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ও মুস্তাফিজুর রহমান। রোববার যাওয়ার কথা রুবেল হোসেনের। ইনজুরি সামলে নিয়েছেন এই পেস বোলার।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/20/1563635963858.jpg

আফগানিস্তানের ‘এ’ দলের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডে খেলে দ্বীপ দেশটিতে যাবেন এনামুল হক বিজয়, মোহাম্মদ মিঠুন, সাব্বির রহমান ও ফরহাদ রেজা। ভারত থেকে শ্রীলঙ্কায় যাবেন- তাসকিন আহমেদ ও তাইজুল ইসলাম।

এর আগে শুক্রবার ইনজুরিতে এই সফর শেষ হয়ে যায় অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার। চোটের কারণে খেলতে পারছেন না পেসার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনও। তাদের বদলে দলে আছেন তাসকিন আহমেদ ও ফরহাদ রেজা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/20/1563635980900.jpg

আগামী ২৩ জুলাই একটি প্রস্তুতি ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে শ্রীলঙ্কা সফর। এরপর আগামী ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই স্বাগতিকদের সঙ্গে তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ১ আগষ্ট দেশে ফেরার কথা টাইগার ক্রিকেটারদের।

শ্রীলঙ্কা সফরে বাংলাদেশ দল-

তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, এনামুল হক বিজয়, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন, সাব্বির রহমান, মোহাম্মদ মিঠুন, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, ফরহাদ রেজা ও তাসকিন আহমেদ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলেই অবসরে যাবেন মালিঙ্গা?

বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলেই অবসরে যাবেন মালিঙ্গা?
ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে দাঁড়িয়ে লাসিথ মালিঙ্গা

অবসর নিয়ে চিন্তা-ভাবনা অনেক আগে থেকে শুরু করেছেন লাসিথ মালিঙ্গা। ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে ক্রিকেট বিশ্বকাপ চলাকালে তার আভাসও দিয়ে ছিলেন শ্রীলঙ্কার এ ফাস্ট বোলার। দেশের মাটিতে দেশী দর্শকদের সামনে খেলেই ক্রিকেটকে বিদায় বলে দিতে চান মালিঙ্গা। তাই গণমাধ্যমে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে- বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলেই অবসরে চলে যাচ্ছেন মালিঙ্গা।

বিশ্বকাপ চলাকালেই অবসরের আভাসটা দিয়ে রেখেছেন ৩৫ বছর বয়সী মালিঙ্গা, ‘লড়াই করতে করতে আমি এখন ক্লান্ত। প্রত্যাশা করি টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলতে পারব। কিন্তু বিশ্বকাপ শেষে আমি শ্রীলঙ্কায় ফিরব। এটা নিয়ে এসএলসির সঙ্গে কথা বলব। নিজের ভিশনটা তাদেকে দেখাব।’

সাবেক লঙ্কান ওয়ানডে অধিনায়ক মালিঙ্গা আরো বলেন, ‘যদি আমার ভিশনের সঙ্গে তাদের ভিশন মিলে যায়। তাহলে আমি থেকে যাব। অন্যথায় শিগগিরই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছেড়ে দেব। বিশ্বকাপের পর শ্রীলঙ্কার হয়ে একটি ম্যাচ খেলে বিদায় বলে দিতে চাই।’

বিশ্বকাপ শেষে এখন শ্রীলঙ্কা সফরে আছে বাংলাদেশ। এর পর যাবে নিউজিল্যান্ড। মালিঙ্গা ইঙ্গিত দেন এ সিরিজ দুটিই হতে পারে তার শেষ আন্তর্জাতিক অ্যাসাইনমেন্ট। এনিয়ে মালিঙ্গা বলেন, ‘আমি ৩৬ বছরে পা রেখেছি। আগের মতো শক্তি নেই আমার।’

অবসর নেওয়ার আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে ফাস্ট বোলিং আক্রমণে নেতৃত্ব দেবেন মালিঙ্গা। তার সঙ্গে থাকবেন কাসুন রাজিথা, নুয়ান প্রদ্বীপ ও লাহিরু কুমারা।

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের জন্য ঘোষিত ২২ জনের দলে ফিরেছেন নিরোশান ডিকভেলা, দানুশকা গুনাথিকালা, আকিলা ধনাঞ্জয়া ও লাকসান সান্দাকান।

তবে দল থেকে ছিটকে গেছেন মিলিন্দা সিরিবর্ধনা, জীবন মেন্ডিস, সুরঙ্গা লাকমল, জেফরে ভ্যান্ডারসে ও দিনেশ চান্দিমাল।

কলম্বোর আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলঙ্কা তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলবে ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই।

শ্রীলঙ্কার ওয়ানডে দল: দিমুথ করুনারত্নে, কুশল পেরেরা, আভিশকা ফার্নান্ডো, কুশল মেন্ডিস, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস, লাহিরু থিরিমান্নে, শিহান জয়াসুরিয়া, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, নিরোশান ডিকভেলা, দানুশকা গুনাথিলাকা, দাসুন শানাকা, ভানিদু হাসারাঙ্গা, আকিলা ধনাঞ্জয়া, আমিলা আপোন্সো, লাকসান সান্দাকান, লাসিথ মালিঙ্গা, নুয়ান প্রদীপ, কাসুন রাজিথা, লাহিরু কুমারা, থিসারা পেরেরা, ইসুরু উদানা ও লাহিরু মাদুশঙ্কা।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র