লর্ডসে অন্য ‘গল্পের’ অপেক্ষায় গাপটিল

এম. এম. কায়সার, স্পোর্টস এডিটর,বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম,লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ড, লন্ডন, ইংল্যান্ড থেকে
ফাইনালে ব্যাটে ঝড় তোলার অপেক্ষায় মার্টিন গাপটিল

ফাইনালে ব্যাটে ঝড় তোলার অপেক্ষায় মার্টিন গাপটিল

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রথম ম্যাচে অপরাজিত ৭৩। ৫১ বলে ৮ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় এই রান। প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কার। ভেন্যু কার্ডিফ।

ব্যস, সেই প্রথমের পর মার্টিন গাপটিল বাকি ৭ ম্যাচে যে ব্যাটিং করলেন তাতেই তিনি এখন বিশ্বকাপের ব্যাটিংয়ে ব্যাকবেঞ্চার! শুরুর সেই ৭৩ রানের পর তার ইনিংস যেন ভগ্ন স্বাস্থ্য! ২৫, ০, ৩৫, ০, ৫, ২০, ৮, ও ১! সবমিলিয়ে ৮ ম্যাচে মোট রান ১৬৬। বিশ্বকাপের শীর্ষ ব্যাটসম্যানদের যে তালিকা আছে সেখানে শুরুর ৫০ জনের মধ্যে মার্টিন গাপটিলের অবস্থান ৪৯ নম্বরে!

অথচ তিনি নিউজিল্যান্ডের ওপেনার। যে দল এখন বিশ্বকাপের ফাইনালে। প্রথম ম্যাচ বাদে প্রতিটি ম্যাচেই তিনি ব্যর্থ। শুরুতেই তার উইকেট হারিয়ে নিউজিল্যান্ডের ইনিংসের ভাঙ্গাচোরা শুরু। অথচ সেই তিনিই এখন সবচেয়ে বেশি আলোচিত-একই সঙ্গে প্রশংসিতও!

এই যে নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপের ফাইনালে খেলছে, সেটাও নাকি তার কৃতিত্বে! তার করা সরাসরি থ্রোতেই তো মহেন্দ্র সিং ধোনি রানআউট। ক্রিজ থেকে ধোনির ব্যাট মাত্র এক মিলিমিটার দুরে, তখনই দারুন নিশানায় সরাসরি থ্রোতে উইকেট ভেঙ্গে দেন গাপটিল।

মূলত ওল্ড ট্রাফোর্ডের সেমিফাইনালের সমাধান ধোনির ওই রানআউটেই। আর তাই ব্যাট হাতে ৮ ম্যাচে মামুলি ১৬৬ রান করা (গড় ২৩.৭১) মার্টিন গাপটিলই নিউজিল্যান্ডকে ফাইনালে তুলে আনার কারিগর।

সেমি-ফাইনাল জেতার পর নিউজিল্যান্ড বোলারদের কৃতিত্বের জয়গান গাইলেও সেখানে ফিল্ডার মার্টিন গাপটিলের অবদানের কথা ভুলেনি তারা। ব্যাট হাতে সময়টা ম্রিয়মান কাটলেও এই ওপেনারের সামনে ফর্মে ফেরার আরেকটি সুযোগ থাকছে-ফাইনাল ম্যাচে।

নিউজিল্যান্ড কোচ গ্যারি স্টিডও যে ব্যাখা দিলেন তাতে লর্ডসের ফাইনাল ম্যাচের একাদশে গাপটিল থাকছেন-‘গাপটিল নেটে চমৎকার ব্যাটিং করেছে। কি জানি, ফাইনালে সে করে ফেলে! ক্রিকেটে আগে থেকে কোনো কিছু বলার উপায় নেই। হয়তো দেখা গেলো ব্যাটিং অর্ডারে বদল আনা হলো, কিন্তু যাকে আনা হলো সেও প্রথম বলেই আউট হয়ে যেতে পারে! বড় ম্যাচে খেলার অভিজ্ঞতা আছে তার। নিউজিল্যান্ডের হয়ে অনেক বড়ো বড়ো সেঞ্চুরি করেছে সে। এই ইংল্যান্ডের মাটিতেও তার সেঞ্চুরি আছে।’

ক্যারিয়ারের ১৬টি ওয়ানডে সেঞ্চুরির মধ্যে দুটি সেঞ্চুরি করেছেন মার্টিন গাপটিল ইংল্যান্ডের মাটিতে। সাউদাম্পটনে ২০১৩ সালের ২ জুন খেলেছিলেন অপরাজিত ১৮৯ রানের বিশাল সেঞ্চুরি। লর্ডসের সঙ্গেও তার সেঞ্চুরির সখ্য আছে। ২০১৩ সালের ৩১ মে লর্ডসে খেলেছিলেন অপরাজিত ১০৩ রানের ইনিংস। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেই ম্যাচ নিউজিল্যান্ড জিতেছিলো ৫ উইকেটে। মারটিন গাপটিল ম্যাচ সেরা।

১৪ জুলাই লর্ডসে নামার আগে সেই স্মৃতিটাই মারটিন গাপটিলের জন্য সবচেয়ে বড় প্রেরণা!

আপনার মতামত লিখুন :