মরগানদেরই ফেভারিট বলছেন ক্যালিস

স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
দুই ফাইনালিস্ট ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের প্রশংসায় পঞ্চমুখ জ্যাক ক্যালিস

দুই ফাইনালিস্ট ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ডের প্রশংসায় পঞ্চমুখ জ্যাক ক্যালিস

  • Font increase
  • Font Decrease

ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড সৌভাগ্যবশত বিশ্বকাপের ফাইনালের টিকিট কাটেনি। যোগ্যতা দেখিয়ে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচ খেলতে যাচ্ছে তারা। টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক কলামে জ্যাক ক্যালিস এমনটাই লিখেছেন, ‘আমি বিশ্বাস করি না হঠাৎ করে কোনো দল বিশ্বকাপের মতো আসরের ফাইনালে উঠে যেতে পারে।’

বিশ্বের অন্যতম সেরা এ অলরাউন্ডার বিশ্বাস করেন, ফাইনালে খেলার যোগ্যতা রাখে ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। শুধু তারা কেন? কোনো ফেভারিট দলই ফাইনাল নিয়েই মাথাই ঘামায়নি শুরুতে, ‘বিশ্বকাপের শুরুতে সকল ফেভারিট দলেরই একই দৃষ্টিভঙ্গি ছিল- সেমিফাইনালে উঠা যাক। তারপর দেখা যাবে কী হয়।’

ক্যালিস ইঙ্গিত দেন, ফাইনালের মতো বড় ম্যাচের জন্য ভালোভাবেই প্রস্তুতি শেষ করেছে ইংল্যান্ড। কেননা শেষ তিনটি ম্যাচ প্রচণ্ড চাপে নিয়েও তারা জিতে গেছে। শুরুতে তারা সেমি-ফাইনালে কোয়ালিফাই করেছে। পরে নাম লিখিয়েছে ফাইনালে।

শিরোপা জয়ের লড়াইয়ে ইংল্যান্ডকেই ফেভারিট মানছেন ক্যালিস, ‘ইংল্যান্ডের শেষ তিনটি ম্যাচ প্রেরণাদায়ক। বিশেষ করে দুরন্ত অস্ট্রেলিয়াকে বিদায় করে দেওয়াটা। স্বাগতিকরা আসলে টানা তিন সেমি-ফাইনাল খেলে ফেলেছে। তাদের পারফরম্যান্স দিন দিন ক্ষুরধার হচ্ছে। স্বাভাবিকভাবেই বিশ্বকাপ জয়ের দৌড়ে ইয়ন মরগানরাই ফেভারিট। কিন্তু বিপরীতটাও আমি চিন্তা করছি। তাদের স্বপ্ন গুড়িয়ে দিতে পারে ব্ল্যাক ক্যাপস শিবির।’

দক্ষিণ আফ্রিকার ৪৩ বছরের সাবেক এ কিংবদন্তি ক্রিকেটারের মতে, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কিউইরা খেলতে পারে কৌশলী ও বুদ্ধিদীপ্ত ম্যাচ, ‘প্রত্যাশা করি, নিউজিল্যান্ড আরো একবার সতর্ক ও সুপরিকল্পিত ক্রিকেট ম্যাচ খেলবে। ঝুঁকি যতটা কম নেওয়া যায় সেটাই চেষ্টা করবে। তাদের দলে রয়েছে ব্যাট-বল হাতে ধ্বংসাত্মক হয়ে উঠতে পারা কয়েকজন ক্রিকেটার। কিন্তু আমার চোখে ধ্বংসাত্মকের চেয়ে তারা বুদ্ধিদীপ্ত। বক্সিং ম্যাচে প্রতিপক্ষকে নকআউট না করে তারা জিততে চায় পয়েন্টের ব্যবধানে।’

ইংল্যান্ড তাদের সেরা পারফরম্যান্সটাই উপহার দেবে। এমনটাই বিশ্বাস করেন ক্যালিস, ‘সন্দেহ নেই ইংল্যান্ড একই ভাবে খেলে যাবে। যে ফর্মে তারা গত দুই-তিন বছরে বিশ্বের সেরা দল বনে গেছে।’

টুর্নামেন্টে দুর্দান্ত খেলে গেলেও ইংলিশ ওপেনার জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টোকে ফাইনালে ভিন্ন ধরণের চাপের মধ্যে খেলতে হবে বলেই মনে করছেন ক্যালিস।

ভারতের বিদায়কে দুর্ভাগ্য হিসেবে দেখছেন সাবেক এ প্রোটিয়া ক্রিকেটার, ‘দুর্ভাগ্য ভারতের। বিদায় নিতে হয়েছে তাদের। তবে নিজেদের ক্যাম্পেইনের জন্য তারা গর্ব করতে পারে। দলের হয়ে তাদের অনেকে ব্যক্তিগত সেরা পারফরম্যান্স উপহার দিয়েছে।’

আপনার মতামত লিখুন :