Barta24

রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

English

আফগানদের কাছেই হেরে গেলেন ইমরুল-সাব্বির-এনামুলরা

আফগানদের কাছেই হেরে গেলেন ইমরুল-সাব্বির-এনামুলরা
হতাশা নিয়ে মাঠ ছাড়েন ইমরুল কায়েসরা
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

দলে তারকা ক্রিকেটারের কমতি ছিল না! অথচ সেই দলটিই কীনা আফগানিস্তানের কাছে নাজেহাল। ঘরের মাঠে ব্যর্থতার প্রদর্শনী দেখাল বাংলাদেশ ‘এ’ দল। শ্রীলঙ্কা সফরের আগে ম্যাচ খেলতে নেমে ভিন্ন অভিজ্ঞতাই হলো এনামুল হক আর সাব্বির রহমানদের। তাদের হারিয়ে ৫ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে এগিয়ে গেল আফগানরা।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে শুক্রবার আফগানিস্তান ‘এ’ অনায়াসেই জিতেছে ১০ উইকেটে।

ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ইমরুল কায়েসরা করে মাত্র ২০১ রান। জবাবে ৩৭ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে নোঙর করে আফগান দল।

বাংলাদেশ জাতীয় দল নিয়ে না নামলেও শক্তির বিচারে প্রতিপক্ষের চেয়ে ঢের এগিয়ে ছিল। কিন্তু তারাই কীনা হেরে গেল ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে। এর আগে এই আফগানদের কাছেই  আনঅফিশিয়াল টেস্টে দেশের মাাঠে  সিরিজে হেরেছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল।

শুক্রবার হারই নয়, যোগ হয়েছে রুবেল হোসেনের ইনজুরি। শ্রীলঙ্কা সফরের আগে এই ম্যাচের দলে ছিলেন তিনি। কিন্তু গোড়ালিতে চোট পেয়েছেন এই পেসার। এরপর সতর্কতার অংশ হিসেবে বল করতে দেখা যায়নি তাকে। প্রাথমিকভাবে চোট গুরুতর নয় বলে মনে করা হচ্ছে!

ম্যাচে টস ভাগ্য ছিল স্বাগতিকদের পক্ষেই। শুরুটাও ছিল বেশ ভাল। ইমরুল কায়েস-এনামুল হক বিজয় গড়েন ৫২ রানের উদ্বোধনী জুটি। ২৮ রানে ফেরেন ইমরুল। এরপর হতাশ করেন মোহাম্মদ মিঠুনও (৩)।। তবে কিছুটা সময় লড়াই করেন এনামুল (১৯)। সাব্বিরের ব্যাট থেকে আসে ১৫।

এরপর ১০৬ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে দল যখন চাপে তখন হাল ধরেন আফিফ হোসেন ও ফরহাদ রেজা। আফিফ ৭১ বলে খেলেন ৫৯ রানের দারুণ এক ইনিংস। ৩০ রান করেন ফরহাদ রেজা।

জবাবে নেমে অনায়াসেই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় সফরকারীরা। দুই ওপেনার কোন সুযোগই দিলেন না! ১৩৮ বলে তিন ছক্কা ও ১১ চারে রহমানউল্লাহ করেন অপরাজিত ১০৫। ১২৫ বলে ৮৬ রান তুলেন ইব্রাহিম।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

বাংলাদেশ ‘এ’ দল: ৫০ ওভারে ২০১/৮ (ইমরুল ২৮, এনামুল ১৯, মিঠুন ৩, সাব্বির ১৫, মাহমুদ ৯, আফিফ ৫৯, মেহেদি ৪, রেজা ৩০, নাজমুল ১৩*, রুবেল ২*; নাভিন ২/৪৯, করিম ২/১৭, ফজল ১/২৬, আশরাফ ১/২৮, কায়েস ১/৩০)
আফগানিস্তান ‘এ’ দল: ৪৩.৫ ওভারে ২০২/০ (রহমানউল্লাহ ১০৫*, ইব্রাহিম ৮৬*; রুবেল ০/২৪, আবু জায়েদ ০/৩৬, অপু ০/৩৬, রেজা ০/৩৬, মেহেদি ০/২৬, সাব্বির ০/২৩, আফিফ ০/১৬)
ফল: ১০ উইকেটে জয়ী আফগানিস্তান ‘এ’ দল

 

আপনার মতামত লিখুন :

আফগান চ্যালেঞ্জের অপেক্ষায় মিরাজ

আফগান চ্যালেঞ্জের অপেক্ষায় মিরাজ
বাংলাদেশ দলের অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজ

বাংলাদেশ যখন তাদের প্রথম টেস্ট খেলছে, তখন আফগানিস্তানের অধিনায়ক রশিদ খান দুধের শিশু; বয়স তার দুই! টেস্ট ক্রিকেট বাংলাদেশের অভিষেক ২০০০ সালে। আর আফগানিস্তান টেস্ট ক্রিকেটে পা রাখলো, এই তো সেদিন-গত বছরের ১৪ জুন। সবমিলিয়ে বাংলাদেশের টেস্ট ম্যাচের অভিজ্ঞতা ১১৪ ম্যাচ। আর আফগানিস্তান খেলেছে মাত্র দুটি টেস্ট ম্যাচ।

অভিজ্ঞতা, অর্জন, দক্ষতা- সব ‘বিভাগেই’ বাংলাদেশের চেয়ে অনেক পিছিয়ে আছে আফগানিস্তান। তাই বলে বাংলাদেশ ৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট সিরিজ নিয়ে আয়েশি হাই তুলছে-এমন কিছু নয়।

বরং একটু বেশিই সিরিয়াস বাংলাদেশ!

দলের অফস্পিনার কাম লেটঅর্ডার ব্যাটসম্যান মেহেদি হাসান মিরাজও সেই কথাই বললেন-‘মানছি যে অভিজ্ঞতার দিক থেকে আমরা আফগানিস্তানের তুলনায় অনেক এগিয়ে। আমরা টেস্ট খেলছি প্রায় ২০ বছর হতে চলছে। আর ওরা মাত্র বছর খানেক আগে থেকে টেস্ট খেলছে। তবে মনে রাখতে হবে ক্রিকেট ম্যাচে সেই দলই জেতে যারা মাঠের ক্রিকেটে ভালো খেলে। আফগানিস্তানকে হালকা ভাবে নেয়ার কিছু নেই। আমরা আমাদের স্কিল নিয়ে কাজ করছি। দক্ষতা আরো বাড়ানোর চেষ্টা করছি। র‌্যাঙ্কিংয়ে ওরা পিছিয়ে আছে এসব চিন্তা আমরা মাথায় রাখছি না। ভাবছি যে টেস্ট সিরিজে আমাদের প্রভাব বিস্তার করে খেলতে হবে। নিয়ন্ত্রনটা নিজেদের হাতে রাখতে হবে।’

চট্টগ্রাম টেস্টে আফগানিস্তানের বিপক্ষে জয়ের পূর্বশর্ত জানিয়ে দিলেন মিরাজ। এক ম্যাচের এই টেস্ট সিরিজ এবং জিম্বাবুয়েকে নিয়ে তিনজাতি টি-টুয়েন্টি টুর্নামেন্টের জন্য বাংলাদেশ দল ঈদের পর থেকে জোরে সোরে কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরু করেছে। ব্যাটিং- বোলিং- ফিল্ডিংয়ের সঙ্গে প্ল্যানিংয়ের কাজও একত্রিতভাবে সেরে ফেলছে বাংলাদেশ।

র‌্যাঙ্কিংয়ে পিছিয়ে থাকা প্রতিপক্ষের বিপক্ষে খেলতে নামলে উপরে থাকা দলের একটা আশঙ্কা থাকে, আরে পা না আবার পিছলে যায়! তেমন কোনো চাপ কি বাংলাদেশ অনুভব করছে আফগান সিরিজের আগে?

এই প্রশ্নের উত্তরে মিরাজের সহজ ব্যাখা-‘আর্ন্তজাতিক ক্রিকেট মানেই তো চাপ। সেই চাপ যারা সইতে পেরে নিজেদের পারফরমেন্স দেখাতে পারে-তারাই ম্যাচ জিতে।’

দেশের মাটিতে টেস্ট ম্যাচ মানেই তো বাংলাদেশ একাদশে স্পিনারে ঠাসা। কিন্তু প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান বলেই সম্ভবত বাংলাদেশ এবার একটু ভিন্ন চিন্তায়, ভিন্ন পরিকল্পনায়। স্পিন উইকেট তৈরি করলেও উল্টো ফলও হতে পারে! আফগানিস্তানের স্পিনাররাও যে দুর্দান্ত।

 এই প্রসঙ্গে মিরাজ রোববার মিরপুরে অনুশীলন শেষে জানান-‘এই ম্যাচে চ্যালেঞ্জের মাত্রাটা আরো বাড়ছে। এই ম্যাচে আমাদের স্পিনারদের ওপরও বাড়তি দায়িত্ব থাকবে যাতে আমরা ম্যাচে প্রভাব ছড়িয়ে খেলতে পারি। দেশের মাটিতে আমরা যাদের সঙ্গেই খেলেছি, আমাদের স্পিনাররা ভালো করেছে। এবারও সেই লক্ষ্যটাই থাকবে। টেস্ট ক্রিকেটে উইকেট থেকে সহায়তা মিললে বোলারদের জন্য কাজটা কিছুটা সহজ হয়ে যায়। তবে উইকেট যেমনই থাক, টেস্ট ক্রিকেটে একই স্পটে লাইন লেন্থ বজায় রেখে বল করতে হয়। তাহলেই উইকেট শিকারের পরিস্থিতি তৈরি হবে। আমার কাছে তো মনে হয় এই ম্যাচটা আমাদের মাটিতে হচ্ছে, আমরা স্পিনাররা তো অবশ্যই কিছুটা সুবিধা পাবো।’

জয়োৎসবে শুরু বার্তার ফুটবল মিশন

জয়োৎসবে শুরু বার্তার ফুটবল মিশন
এক ফ্রেমে বার্তাটোয়েন্টিফোরের ফুটবল দল -ছবি সুমন নিলয়

খেলা শুরু সাড়ে দশটায়! কিন্তু পল্টনের জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে বার্তাটোয়েন্টিফোরের রিপোর্টার, নিউজরুম এডিটর, ফটো সাংবাদিক, ক্যামেরা পার্সনরা হাজির সকাল সাড়ে সাতটায়! টিম ম্যানেজার মবিনুল ইসলাম বাসা থেকে নিয়ে আসেন গরম গরম চালের রুটি। আর স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট খুররম জামান আনেন বুটের ডাল দিয়ে রান্না করা মাংস! ব্যস, মাঠে নামার আগেই উৎসব আমেজ!

নাস্তা শেষেই মরণচাঁদের মিষ্টি আর কোমল পানীয়তে গলা ভিজিয়ে মাঠে নেমে পড়ে বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-এর ফুটবল টিম। ওয়ালটন-ডিআরইউ মিডিয়া ফুটবল টুর্নামেন্টের ম্যাচে প্রতিপক্ষ দৈনিক ইত্তেফাক।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/25/1566728822506.jpg

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট সেরাজুল ইসলাম সিরাজের নেতৃত্বে ডিআরইউ মিডিয়া ফুটবলে রোববার অভিষেক হলো দেশের প্রথম মাল্টিমিডিয়া অনলাইন নিউজপোর্টাল বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমের। জার্সি পরে ৯ ফুটবলার মাঠে নামতেই জানা গেল প্রতিপক্ষ দৈনিক ইত্তেফাকের রিপোর্টাররা তখনো হাজির হয়নি। খেলা শুরুর নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেলে ফের রেফারি নিলেন বাড়তি ৫ মিনিট।

অপেক্ষা যদি প্রতিপক্ষ দল আসে! তারপরও দেখা নেই দৈনিক ইত্তেফাকের। শেষ পর্যন্ত ওয়াকওভার পেয়ে টুর্নামেন্টের পরের ধাপে এগিয়ে গেল বার্তা!

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/25/1566723268321.jpg

অন্য অনেক মিডিয়া হাউজগুলো খেলোয়াড় সঙ্কটে থাকলেও বার্তার রিজার্ভ বেঞ্চও শক্তিশালী। শেষ পর্যন্ত নিজেরাই দুই ভাগে ভাগ হয়ে গা গরমের ম্যাচটাও খেলে নেয়!

ঢাকার রিপোর্টারদের শীর্ষ সংগঠনের এই টুর্নামেন্টে এবার বার্তার প্রতিপক্ষ জিটিভি। ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ২৭ আগস্ট!

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/25/1566723329671.jpg

মাংস-পরোটায় শুরু হয়েছিল শেষ হলো ডাবের ঠান্ডা পানিতে গলা ভিজিয়ে। পরের ম্যাচে জয়ের প্রত্যয় নিয়েই মাঠ ছাড়লেন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-এর ফুটবলাররা!

বার্তা ফুটবল দল-
সেরাজুল ইসলাম সিরাজ (অধিনায়ক), মাজেদুল নয়ন, শাহজাহান মোল্লা, খুররম জামান, আপন তারিক, শেখ নাসির, মাহফুজুল ইসলাম, ইসমাইল হোসেন রাসেল, ইশতিয়াক হোসেন ও মবিনুল ইসলাম (ম্যানেজার)।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র