Barta24

রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

English

কোথাও যাওয়ার ছিলো না, তাই বোতলের কাছেই গেলাম-মানিন্দার সিং

কোথাও যাওয়ার ছিলো না, তাই বোতলের কাছেই গেলাম-মানিন্দার সিং
সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার মানিন্দার সিং, ছবি: সংগৃহীত
স্পোর্টস এডিটর
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

মানিন্দার সিংকে মনে আছে?

আশির দশকের মাঝামাঝি সময়টায় তাকে ভাবা হচ্ছিল বিষেন সিং বেদির প্রতিভু হিসেবে। ধারণা করা হচ্ছিল টেস্ট ক্রিকেটে তিনিই হতেই চলেছেন ভারতের আরেক বিষেন সিং বেদি! বেদির মতো মানিন্দার সিংও বাঁহাতি অর্থোডক্স স্পিনার। বোলিং স্টাইলেও দারুণ মিল!

কিন্তু মাত্র ১৭ বছর ১৯৩ তম দিনে টেস্ট অভিষেক হওয়া মানিন্দার যে বেদির ধারে কাছেও পৌঁছাতে পারলেন না। প্রতিভা ছিল। কিন্তু স্ফুরণ ঘটাতে পারলেন না যে! ৩৫ টেস্টে ৮৮ উইকেট। ৫৯টি ওয়ানডেতে ৬৬ উইকেট শিকার-খুব আহামরি কোনো ক্যারিয়ার নয়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে টিকে থাকার জন্য যে দৃঢ়তার প্রয়োজন, ব্যর্থতার কবল থেকে বেরিয়ে এসে লড়াইয়ের যে জেদ- সেই জায়গায় হার মানেন ভারতের এই বাঁহাতি স্পিনার।

ক্যারিয়ারের শুরুতে সাফল্য ধরা না দিলে ব্যর্থতার বলয় থেকে বেরিয়ে এসে লড়াইয়ে জেতা অনেক কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। সেই কঠিন পথ সবাই পাড়ি দিতে পারে না। তখন মানসিকভাবে অনেকে পিছিয়ে পড়ে। ভাবতে শুরু করে-নাহ, আমাকে দিয়ে হবে না। আমি বোধহয় যথেষ্ট প্রতিভাবান না। আমি ক্রমশ বোঝা হয়ে দাঁড়াচ্ছি সবার। মাত্র ৩০ বছর বয়সে স্পিনার মানিন্দার সিংকে এই হতাশা পেয়ে বসে। যে বয়স আকাশকে স্পর্শ করার স্বপ্ন দেখে সবাই; মানিন্দার তখন ডুব দিলেন নেশার জগতে! মদের বোতলে! সেই সংকটেই মাত্র ত্রিশেই শেষ তার ক্রিকেট ক্যারিয়ার! ক্রিকেট ছাড়ার পরের জীবনটা আরও অন্ধকার! বিয়ে করলেন, সেখানেও অসুখী জীবন। আশে পাশের মানুষজন, পরিবেশ সবকিছুই একসময় তার কাছে অসহ্য হয়ে উঠলো। বিপদের চূড়ান্ত হলো যখন কোকেনসহ পুলিশের হাতে ধরা পড়লেন!

এক কথায় বলা যায়- ধ্বংসের চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছে যান ভারতের এই স্পিনার। তবে জীবন সবাইকে দ্বিতীয় সুযোগ দেয়। সেই দ্বিতীয় সুযোগ মানিন্দার সিংকে হয়তো ক্রিকেটে ফিরিয়ে আনতে পারেনি, কিন্তু নেশার পঙ্কিলতার গর্ত থেকে টেনে তুলে আনলো ঠিকই!

আর তাই একসময় সারাদিন মুখ গোমড়া করে রাখা মানিন্দার সিং এখন হাসতে পারেন প্রাণখুলে। বলতে পারেন তার জীবনের গল্প। যে গল্পের নষ্ট সময়কে ঠিকই পরাজিত করতে পেরেছেন তিনি।

ক্রিকেটের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ক্রিকইফোর কাছে এক সাক্ষাতকারে নিজের জীবনের সেই ক্ষতবিক্ষত অধ্যায়ের কথা বলছিলেন মানিন্দার সিং।

বাকিটা শুনি তার কথায়- ‘হঠাৎ করেই বোলিংয়ে ধার হারিয়ে ফেলি আমি। মনে হয় কি যেন ছিল আমার। সেটা খুইয়ে ফেলেছি। ভিডিও দেখলাম। কোচের কাছে ছুটলাম। কিন্তু কিছুতেই সমাধান মিলল না। পারফরমেন্স হারিয়ে ফেললাম। আমার তখন মাত্র ২২/২৩ বছর। প্রচণ্ড আবেগের বয়স। চারধারের হতাশায় আমি পাগল হয়ে যাওয়ার মতো অবস্থায় পড়লাম। কারো কোনো কথা, কোনো সমালোচনা সহ্যই করতে পারতাম না। সবার সঙ্গে মেজাজ দেখাতে শুরু করলাম। হঠাৎ করে দেখলাম-আমার কোনো বন্ধু নেই। আশপাশে কেউ নেই! মদের বোতল হাতে নিলাম। দেখলাম ওটাই আমার সবচেয়ে কাছের বন্ধু। আস্তে আস্তে আমি পুরোদুস্তর অ্যালকোহলিক হয়ে গেলাম। বাবাকে আমি ভয় পেতাম। তার কাছে যেতাম না। মা’ কে কিছু বলতে পারতাম না। মনে হতো তিনি আমাকে বুঝতে পারবেন না। বোন আমার চেয়ে দশ বছরের বড়। বিয়ে করে সে অন্যত্র থাকতো। তাকেও বিরক্ত করতে চাইতাম না। ভাই বিদেশি চাকরি করতো। সব থেকেও যেন কোথাও আমার কেউ নেই। কারো কাছে যাওয়ার কোনা জায়গা ছিল না, তাই আমি বোতলের কাছেই গেলাম!'

তিনি বলেন, 'আমার বাজে রুক্ষ মেজাজের কারণে ক্রিকেট দলেও জায়গা হারালাম। বাজে রাগ ও আচরণ দিয়ে আসলে কিছু জেতা যায় না। ধীরে ধীরে মানুষজন আমাকে এড়িয়ে চলতে শুরু করলো। কপিল দেব ও মহিন্দার অমরনাথ আমাকে অনেক বোঝানোর চেষ্টা করলেন, কিন্তু আমি যে তখন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছি!'

’৯১ সালে বিয়ে করলাম। কিন্তু সেও আমাকে বুঝতে পারলো না। আমাকে সহায়তা করতে পারলো না। আসলে আমার যে রুক্ষ এবং কড়া মেজাজ ছিল তাতে কেউ আমাকে সহ্য করারই কথা নয়! আমাকে বুঝবে কিভাবে? আমার সবসময়ের সঙ্গী তখন মদের বোতল। বাসায় মদ খেতাম। গাড়ির মধ্যে বোতল থাকত। বাসা-বাইরে যেখানেই যেতাম মদের বোতল আমার নিত্যসঙ্গী। সবাই যখন ঘুমে থাকতো, আমি তখন বোতলের ছিপি খোলা শুরু করতাম!'

তবে বাবার মাত্র একটা কথা আমার এই ক্ষতবিক্ষত জীবনটা বদলে দিলো। মারা যাওয়ার আগে বাবা আমাকে বলেছিলেন- ‘তুমি যদি কোনোকিছু করে আনন্দ না পাও তবে সেটা ত্যাগ কর। তুমি যদি একটা দরজা বন্ধ না কর তবে অন্য দরজা খুলবে না।’

'আমি বাবার এই কথাটা মেনে পরদিনই সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিলাম। তখন আমার বয়স মাত্র ৩০। খাদের কিনারায় পৌঁছে যাওয়া জীবন থেকে আমাকে উদ্ধার করলেন দিল্লির ডাক্তার অমিত্রা ওয়াদাহ। তিনিই শেখালেন-জীবন কোনো এক ব্যর্থতায় কখনো আটকে যায় না। আমি এখন বলতেই পারি-এখনকার আমি অনেক ভালো মানুষ। রাগ যে করি না তা হয়, তবে জানি সেই রাগ কিভাবে দমিয়ে শান্ত থাকতে হয়!'

'বিশ্বাস করি যে মানুষ শান্ত থাকতে পারে, জীবনে সঠিক সিদ্ধান্তও সেই নিতে পারে।'

আপনার মতামত লিখুন :

করুনারত্নের সেঞ্চুরিতে শ্রীলঙ্কার অনায়াস জয়

করুনারত্নের সেঞ্চুরিতে শ্রীলঙ্কার অনায়াস জয়
সেঞ্চুরির পর দুহাত উঁচিয়ে শ্রীলঙ্কার জয়ের নায়ক ম্যাচসেরা দিমুথ করুনারত্নের উদযাপন , ছবি: সংগৃহীত

দাপুটে এক সেঞ্চুরি হাঁকালেন অধিনায়ক দিমুখ করুনারত্নে। তার অধিনায়কোচিত ব্যাটিং পারফরম্যান্সের ওপর ভর করে প্রথম টেস্টে নিউজিল্যান্ডকে অনায়াসে ৬ উইকেটে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। এনিয়ে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে জয় দিয়ে শুভ সূচনা করল স্বাগতিকরা। দুই টেস্টের সিরিজে এগিয়ে গেল ১-০ ব্যবধানে।

গলে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছতে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ৪ উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। তাদের আগে নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংসে ২৮৫ রানে অল-আউট হলে ২৬৮ রানের সহজ লক্ষ্য পায় লঙ্কানরা।

আসলে চতুর্থ দিনেই জয়ের ভিত গড়েন দেন দুই ওপেনার করুনারত্নে ও লাহিরু থিরিমান্নে। উদ্বোধনী জুটি ১৩৩ রানে অবিচ্ছিন্ন থেকে রোববার সকালে পঞ্চম ও শেষ দিনের খেলা শুরু করেন। শেষে ১৬১ রানে ভাঙে তাদের পার্টনারশিপ।

ব্যক্তিগত ৭১ রানের ইনিংসটাকে শতকে রূপ দেন করুনারত্নে। পঞ্চম দিনে লঙ্কান ক্যাপ্টেন দলীয় স্কোরে যোগ করেন আরো ৫১ রান। দলকে জয়ের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়ে শেষমেশ ছয় চার ও এক ছক্কায় ১২২ রানে থামেন এ তারকা ওপেনার।

অপর উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান থিরিমান্নে সাজঘরে ফেরেন ৬৪ রানে। শেষ দিন তার ব্যাট থেকে আসে মাত্র ৭ রান। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস (২৮*) ও ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা (১৪*) দলকে জিতিয়ে তবেই মাঠ ছাড়েন।

লঙ্কানদের দ্বিতীয় ইনিংসে নির্বিষ বোলিং আক্রমণ দিয়ে কাজের কাজ কিছুই করতে পারেনি নিউজিল্যান্ড। বল হাতে কেউ জ্বলে উঠতে পারেননি। মাত্র একটি করে উইকেট নেন ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি, উইলিয়াম সমারভিলে ও আজাজ প্যাটেল।

স্পিন বিষ ছড়িয়ে আকিলা ধনাঞ্জয়া পাঁচ উইকেট শিকার করলে প্রথম ইনিংসে নিউজিল্যান্ড গুটিয়ে যায় ২৪৯ রানে। জবাবে প্রতিপক্ষের আজাজ প্যাটেল ঘূর্ণি জাদুতে নেন পাঁচ উইকেট। সুবাদে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংসে ২৬৭ রানে সবকটি উইকেট হারিয়ে ফেললে জমে উঠে ম্যাচ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
নিউজিল্যান্ড: ২৪৯/১০ ও ২৮৫/১০ (ওয়াটলিং ৭৭, লাথাম ৪৫, সমারভিলে ৪০*; এমবুলদেনিয়া ৪/৯৯, ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা ২/২৫ ও কুমারা ২/৩১)

শ্রীলঙ্কা: ২৬৭/১০ ও ২৬৯/৪ (করুনারত্নে ১২২, থিরিমান্নে ৬৪; সাউদি ১/৩৩, বোল্ট ১/৩৪)

ফল: শ্রীলঙ্কা ৬ উইকেটে জয়ী।

সিরিজ: দুই টেস্টের সিরিজ ১-০ তে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা।

ম্যাচসেরা: দিমুথ করুনারত্নে

প্রথম জয়ের খোঁজে ল্যাম্পার্ড

প্রথম জয়ের খোঁজে ল্যাম্পার্ড
লেস্টার সিটির মুখোমুখি আজ ল্যাম্পার্ডের চেলসি

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে চেলসির কোচ হিসেবে অভিষেক হলেও এখনো জয়ের দেখা পাননি ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড। আজ রোববার ঘরের মাঠ স্টামফোর্ড ব্রিজে অভিষেকের রাতটা তাই স্মরণীয় করে রাখতে চান এই ইংলিশ কোচ। জয়ের রঙে রাঙিয়ে নিতে চান বিশেষ দিনক্ষণটা। 

ক্লাব চেলসির হয়ে প্রথম জয়ের খোঁজে কোচ ল্যাম্পার্ড আজ মাঠে নামাচ্ছেন সেরা একাদশ। রাত সাড়ে ৯টায় লেস্টার সিটিকে নিজেদের মাঠে আতিথ্য দিবে দ্য ব্লুজ শিবির।

এদিকে লা লিগার নতুন মৌসুমে নতুন মিশন শুরু করছে আজ কোচ দিয়েগো সিমিওনের অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। নিজেদের মাঠে নবাগত স্ট্রাইকার জোয়াও ফেলিক্সকে আক্রমণে রেখে তারা লড়বে গেতাফের বিপক্ষে।

অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ-গেতাফের লড়াই ক্রীড়াপ্রেমীরা টিভিতে সরাসরি উপভোগ করবেন রাত ২টা থেকে। ফরাসি লিগ ওয়ানে নেইমারকে ছাড়াই রেঁনের মাঠ সফরে যাচ্ছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি )।

ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার অ্যাশেজ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের পঞ্চম ও শেষ দিনের লাল বলের লড়াই শুরু বিকেল ৪টা থেকে। গল টেস্টের পঞ্চম ও শেষ দিনে আজ সকাল সাড়ে ১০টায় জয়ের লক্ষ্য নিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নেমেছে শ্রীলঙ্কা।

দর্শকদের জন্য থাকছে কাবাডির লড়াইও। প্রো-কাবাডি লিগের ম্যাচ সরাসরি দর্শকরা টেলিভিশনের পর্দায় উপভোগ করতে পারবেন রাত ৮টা থেকে।

চলুন দেখে নেই রোববার টেলিভিশনের পর্দায় কখন কী থাকছে-

ফুটবল
ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ
শেফিল্ড ইউনাইটেড-ক্রিস্টাল প্যালেস
সরাসরি সন্ধ্যা ৭টা
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি ওয়ান

চেলসি-লেস্টার সিটি
সরাসরি রাত সাড়ে ৯টা
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি ওয়ান

লা লিগা
আলাভেজ-লেভান্তে
সরাসরি রাত ৯টা
ফেসবুক লাইভ

এসপানিওল-সেভিয়া
সরাসরি রাত ১১টা
ফেসবুক লাইভ

রিয়াল বেটিস-রিয়াল ভ্যালাদোলিদ
সরাসরি রাত ১টা
ফেসবুক লাইভ

অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ-গেতাফে
সরাসরি রাত ২টা
ফেসবুক লাইভ

বুন্দেসলিগা
ফ্রাঙ্কফুর্ট-হোফেনহেইম
সরাসরি সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি টু

ইউনিয়ন বার্লিন-আরবি লিপজিগ
সরাসরি রাত ১০টা
স্টার স্পোর্টস সিলেক্ট এইচডি টু

ফরাসি লিগ ওয়ান
রেঁনে-পিএসজি
সরাসরি রাত ১টা
বেট৩৬৫

ক্রিকেট
অ্যাশেজ সিরিজ
ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া
দ্বিতীয় টেস্ট, পঞ্চম দিন
সরাসরি বিকেল ৪টা
সনি সিক্স ও সনি টেন টু

শ্রীলঙ্কা-নিউজিল্যান্ড
প্রথম টেস্ট, পঞ্চম দিন
সরাসরি সকাল সাড়ে ১০টা
সনি সিক্স, সনি টেন থ্রি ও জিটিভি

কাবাডি
প্রো-কাবাডি লিগ
সরাসরি রাত ৮টা
স্টার স্পোর্টস টু

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র