ফুটবল থেকে অবসরে স্নেইডার

স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ফুটবল ছেড়ে ক্লাব ইউট্রাখটের সঙ্গে স্নেইডারের ব্যবসায়িক চুক্তি, ছবি: সংগৃহীত

ফুটবল ছেড়ে ক্লাব ইউট্রাখটের সঙ্গে স্নেইডারের ব্যবসায়িক চুক্তি, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ফুটবল ক্যারিয়ারকে না বলে দিলেন ওয়েসলি স্নেইডার। ১৭ বছরের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে পর্দা টেনে দিলেন নেদারল্যান্ডসের এ তারকা মিডফিল্ডার।

দেশের জার্সি গায়ে স্নেইডার ম্যাচ খেলেছেন রেকর্ড ১৩৪টি। জন্মভূমির প্রতিনিধিত্ব করেন ২০১০ বিশ্বকাপের ফাইনালেও। তবে বিশ্বকাপ জিততে পারেননি। দক্ষিণ আফ্রিকান আসরের ফাইনালে দ্য অরেঞ্জ শিবিরের হয়ে হেরে যান স্পেনের কাছে। তাই রানার্স-আপ মেডেল নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় স্নেইডারকে।

সঙ্গে ২০১০ বিশ্বকাপের সিলভার বলও জেতেন স্নেইডার। উরুগুয়ের দিয়েগো ফোরলানের পর দ্বিতীয় সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হন তিনি। চার বছর পর ব্রাজিল আসরে লুইস ফন গলের দলকে করেন তৃতীয় সেরা।

ক্যারিয়ারে অনেক শিরোপাই জিতেছেন স্নেইডার। ২০০৭ সালে ২৩ মিলিয়ন পাউন্ডে আয়াক্স ছেড়ে পাড়ি জমান বার্নাব্যুতে। স্পেনের মাটিতে রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে জেতেন একটি লা লিগা ট্রফি। তার আগে আমস্টারডামে ডাচ লিগের সঙ্গে জেতেন দুটি ডাচ কাপ ট্রফি।

পরে ঘাঁটি গাড়েন ইতালিতে। বনে যান ইন্টার মিলানের তৎকালীন কোচ হোসে মরিনহোর দলের গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলার। ২০০৯-১০ মৌসুমে ইতালিয়ান এ জায়ান্ট ক্লাবকে উপহার দেন ট্রেবল শিরোপা। চ্যাম্পিয়নস লিগের সঙ্গে দলকে এনে দেন সেরি-এ ও কোপা ইতালিয়া ট্রফি।

স্নেইডার খেলেন তুরস্কের গ্যালাতাসারে ও ফরাসি ক্লাব নিসের হয়েও। কাতারি শীর্ষ লিগ ক্লাব আল ঘারাফার হয়ে খেলে শেষ করলেন খেলোয়াড়ি ক্যারিয়ার।

কাতার ছেড়ে স্নেইডার এখন ফিরেছেন জন্ম শহরে। সেখানেই ইউট্রাখট এফসির সঙ্গে ব্যবসায়িক চুক্তি করেছেন এ তারকা ফুটবলার।

এই ক্লাবের ইউটিউব চ্যানেলে স্নেইডার বলেন, ‘আমি ফুটবল থেকে অবসর নিয়েছি। স্মৃতিগুলো ভাগ করে নিতে আমার সুন্দর একটা জায়গা চাই। এ শহরের সঙ্গে আমার যোগাযোগ অনেক গভীর। ' তবে তার এজেন্ট জানিয়েছেন, খেলে যাবেন স্নেইডার।

 

আপনার মতামত লিখুন :