Barta24

রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

English

টি-টুয়েন্টির নেতৃত্ব ডি ককের কাঁধে

টি-টুয়েন্টির নেতৃত্ব ডি ককের কাঁধে
টি-টুয়েন্টিতে প্রোটিয়াদের নতুন অধিনায়ক ডি কক, ছবি: সংগৃহীত
স্পোর্টস ডেস্ক
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

আভাসটা আগেই মিলে ছিল। টি-টুয়েন্টিতে দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক নাও থাকতে পারেন ফাফ ডু প্লেসিস। নেতৃত্বে আসতে পারেন অন্য কেউ। এবার সেটাই সত্য হল। ভারত সফরে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম সংস্করণে প্রোটিয়াদের নেতৃত্ব দিতে যাচ্ছেন কুইন্টন ডি কক।

আর ডি ককের সহকারী হিসেবে ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা (সিএসএ) ঘোষণা করেছে রসি ফন ডার ডুসেনকে। তবে টি-টুয়েন্টি দলে জায়গা হয়নি ফাফ ডু প্লেসিসের।

টেস্ট থেকে অবসর নিয়েও টি-টুয়েন্টি দলে জায়গা না পেয়ে নির্বাচকদের প্রতি টুইট বার্তায় ক্ষোভ ঝেড়েছেন বর্ষীয়ান ফাস্ট বোলার ডেল স্টেইন। দল থেকে ছিটকে গিয়ে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও ক্রিকেট ভক্তদের কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন তিনি।

ভারতের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টি সিরিজ খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা। সিরিজ মাঠে গড়াবে ১৫ সেপ্টেম্বর।

তবে টেস্ট স্কোয়াডে ঠিকই ক্যাপ্টেন থেকে যাচ্ছেন ফাফ ডু প্লেসিস। তবে তার সহ-অধিনায়ক হিসেবে কাজ করবেন টেম্বা বাভুমা।

২ অক্টোবর থেকে শুরু হতে যাওয়া টেস্ট সিরিজের দলে ডাক পেয়েছেন তিনজন নতুন ক্রিকেটার। ফাস্ট বোলার অ্যানরিচ নর্টজে, বোলিং অলরাউন্ডার সেনুরান মুথুসামি ও উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান রুদি সেকেন্ড।

১৫ সেপ্টেম্বর থেকে ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত ভারত সফর করবে দক্ষিণ আফ্রিকা। সফরে তিনটি করে টি-টুয়েন্ট ও টেস্ট খেলবে আফ্রিকার দলটি।

টি-টুয়েন্টি দল: কুইন্টন ডি কক, রসি ফন ডার ডুসেন, টেম্বা বাভুমা, জুনিয়র ডালা, বর্ন ফরতুইন, বিউরান হেন্ডরিকস, রেজা হেন্ডরিকস, ডেভিড মিলার, অ্যানরিচ নর্টজে, আন্দিল ফেলুকায়ো, ডোয়াইন প্রিটোরিয়াস, কাগিসো রাবাদা, তাবরাইজ শামসি ও জন-জন স্মাটস।

টেস্ট দল: ফাফ ডু প্লেসিস, টেম্বা বাভুমা, থিউনিস ডি ব্রাউন, কুইন্টন ডি কক, ডিন এলগার, জুবায়ের হামজা, কেশভ মহারাজ, এইডেন মারক্রাম, সেনুরান মুথুসামি, লুঙ্গি এনগিডি, অ্যানরিচ নর্টজে, ভারনন ফিল্যান্ডার, ড্যান পায়েট, কাগিসো রাবাদা ও রুদি সেকেন্ড।

 

আপনার মতামত লিখুন :

অ্যান্টিগা টেস্টের লাগাম ভারতের হাতে

অ্যান্টিগা টেস্টের লাগাম ভারতের হাতে
কোহলি ও রাহানে উভয়ই হাফসেঞ্চুরি করেছেন, ছবি: সংগৃহীত

অ্যান্টিগা টেস্ট জয়ের অবস্থা প্রায় তৈরি করে ফেলেছে ভারত। তৃতীয়দিন শেষে ম্যাচে তাদের লিড ২৬০ রানের। হারিয়েছে মাত্র ৩ উইকেট। অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও অজিঙ্কা রাহানে উইকেটে সেট হয়ে ব্যাট করছেন, হাফসেঞ্চুরি নিয়ে। ৪০০ রানের টার্গেট দিয়ে ইনিংস ঘোষণার অপেক্ষায় ভারত। তবে সেই সঙ্গে তাদের সামনের দু’দিনের বৃষ্টির চিন্তাও মাথায় রাখতে হচ্ছে। সার্বিক হিসেব জানাচ্ছে, নাটকীয় কোনো কিছু না ঘটলে অ্যান্টিগায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাজ এখন একটাই-ম্যাচ বাঁচানো!

প্রথম ইনিংসে ভারতের চেয়ে খুব বেশি পিছিয়ে ছিল না ওয়েস্ট ইন্ডিজ। শেষের দিকে অধিনায়ক জেসন হোল্ডার ৩৯ রান করে ব্যবধান কমিয়ে আনেন। ভারতের ২৯৭ রানের জবাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ গুটিয়ে যায় ২২২ রানে।

দ্বিতীয় ইনিংসেও যথারীতি ভারতের ওপেনাররা ব্যর্থ। আগারওয়াল ফিরলেন ১৬ রানে। রাহুল করলেন ৩৮। ওয়ানডাউনে চেতশ্বর পুজারাও টানা ব্যর্থ। ৮১ রানে ৩ উইকেট হারানো ভারতকে পথ দেখালেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও অজিঙ্কা রাহানে। দু’জনেই হাফসেঞ্চুরি করে দলকে দ্বিতীয় ইনিংসে বড় স্কোরের পথে নিয়ে চলেছেন। তাদের চতুর্থ উইকেট জুটিতে যোগ হয়েছে হার না মানা ১০৪ রান। তৃতীয়দিন শেষ করে ভারত ৩ উইকেটে ১৮৫ রান তুলে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: ভারত ১ম ইনিং: ২৯৭/১০ (৯৬.৪ ওভারে, রাহুল ৪৪, আগরওয়াল ৫, পুজারা ২, কোহলি ৯, রাহানে ৮১, বিহারি ৩২, পান্থ ২৪, জাদেজা ৫৮, রোচ ৪/৬৬, গ্যাব্রিয়েল ৩/৭১, চেজ ২/৫৮)। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১ম ইনি: ২২২/১০ (৭৪.২ ওভারে, ব্রাভো ১৮, চেজ ৪৮, হোপ ২৪, হেটমায়ার ৩৫, হোল্ডার ৩৯, ঈশান্ত ৫/৪৩)। ভারত দ্বিতীয় ইনিংস: ১৮৫/৩(৭২ ওভারে, রাহুল ৩৮, আগারওয়াল ১৬, পুজারা ২৫, কোহলি ৫১*, রাহানে ৫৩*, রোচ ১/১৮)
*তৃতীয়দিন শেষে।

লিভারপুলের জয়, ম্যানইউয়ের হার

লিভারপুলের জয়, ম্যানইউয়ের হার
মোহাম্মদ সালাহর উদযাপন (ইনসেটে মাতিপ), ছবি: সংগৃহীত

মাঠের লড়াইয়ে জ্বলে উঠলেন মোহাম্মদ সালাহ। পেলেন জোড়া গোল। মিশরীয় ফুটবল রাজপুত্রের এ দাপুটে পারফরম্যান্সে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে ঘরের মাঠে লিভারপুল ৩-১ গোলে ধরাশায়ী করেছে আর্সেনালকে। তবে অঘটনের শিকার হয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। নিজেদের মাঠে ক্রিস্টাল প্যালেসের কাছে ২-১ গোলে হার মেনেছে কোচ ওলে গুনার শোলসজায়েরের দল।

দ্য অ্যানফিল্ডে লিভারপুলকে ৪১তম মিনিটে এগিয়ে দেন জোয়েল মাতিপ। আট মিনিট বাদে পেনাল্টি থেকে গোল ব্যবধান ২-০ তে নিয়ে যান কোচ জুর্গেন ক্লপের শিষ্য সালাহ। ৫৮তম মিনিটে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করেন দ্য রেড শিবিরের এ তারকা ফরওয়ার্ড।

ম্যাচ শেষের বাঁশি বাজার ৫ মিনিট আগে কোচ উনাই এমেরির গানারদের হয়ে একটি গোল শোধ করেন লুকাস তোরেইরা।

শনিবার রাতের অন্য ম্যাচে ওল্ড ট্রাফোর্ডে ৩২তম মিনিটেই জর্ডান আইয়ুর গোলে এগিয়ে যায় অতিথি ক্রিস্টাল প্যালেস। ম্যাচ শেষ হওয়ার এক মিনিট আগে রেড ডেভিলদের সমতায় ফেরান ড্যানিয়েল জেমস।

কিন্তু ইনজুরি টাইমে ম্যানইউ ফুটবলারদের হৃদয় ভেঙে দেন ক্রিস্টাল প্যালেসের ফুলব্যাক প্যাট্রিক ফন অ্যানহোল্ট (৯০+৩)। তার জয়সূচক গোলেই ১৯৮৯ সালের পর প্রথম বারের মতো ওল্ড ট্রাফোর্ডে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ল ক্রিস্টাল প্যালেস। কোচ রয় হজসনের কাছে যা ‘বীরত্ব গাঁথা জয়’।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র