সমান জয়ে শীর্ষে ভারত চার-পাঁচে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক, বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
অ্যাশেজে ইংল্যান্ডকে সমতায় ফেরানোর নায়ক জোফরা আর্চারকে নিয়ে সতীর্থদের উদযাপন, ছবি: সংগৃহীত

অ্যাশেজে ইংল্যান্ডকে সমতায় ফেরানোর নায়ক জোফরা আর্চারকে নিয়ে সতীর্থদের উদযাপন, ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের অ্যাশেজ সিরিজ ২-২ সমতা নিয়ে শেষ করেছে স্বাগতিক ইংল্যান্ড। একটি ম্যাচ অবশ্য রয়ে গেছে অমীমাংসিত। যে কারণে তাদের সংগ্রহও অস্ট্রেলিয়ার সমান ৫৬ পয়েন্ট। কিন্তু তারপরও আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ২০১৯-২১ মৌসুমের পয়েন্ট তালিকায় পঞ্চম স্থানে অবস্থান করছে ইংলিশরা। চতুর্থ স্থানে রয়েছে ক্যাপ্টেন টিম পেইনের অস্ট্রেলিয়া।

অন্য দিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই টেস্ট জিতে ভারত পেয়েছে ১২০ পয়েন্ট। সুবাদে তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে অধিনায়ক বিরাট কোহলির দল। কিন্তু ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়াও দুটি টেস্ট জিতেছে। তাহলে পয়েন্টের এতো হেরফের কেন?

এবার তাহলে কারণটা জানা যাক। ব্যবধানটা হয়েছে সিরিজের টেস্ট সংখ্যার ভিত্তিতে আইসিসির পয়েন্ট নির্ধারণের ভিন্নতার কারণে।

মানে আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী দুই টেস্টের সিরিজে এক জয়ের জন্য বিজয়ী দল পাবে ৬০ পয়েন্ট। ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের দুটি ম্যাচই জিতে ভারতের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ১২০ পয়েন্ট। যে কারণে ভারত এখন সবার ওপরে।

আর পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজে প্রতিটি জয়ের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ২৪ পয়েন্ট। আর ড্রয়ের জন্য দুদল পাবে আট পয়েন্ট করে।

অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড দুটি করে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে। বাকি ম্যাচটি করেছে ড্র। তবে সিরিজ ট্রফি রয়ে গেছে গতবারের চ্যাম্পিয়ন অজিদের হাতে। সে হিসেবে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ৫৬ পয়েন্ট করে। উইকেট প্রতি রান সংগ্রহ আর উইকেট প্রতি রান খরচের অনুপাতে এগিয়ে থাকায় সমান পয়েন্ট নিয়েও ইংল্যান্ডের ওপরে অবস্থান করছে অস্ট্রেলিয়া।

দুই টেস্টের সিরিজ ১-১ সমতায় শেষে করেছে নিউজিল্যান্ড আর শ্রীলঙ্কাও। যে কারণে ৬০ পয়েন্ট করে নিয়ে যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে তারা। উইকেট আর রানের অনুপাতে এগিয়ে থেকে লঙ্কানদের ওপরে কিউইরা।

আর কোনো পয়েন্ট না পাওয়ায় ষষ্ঠ স্থানে এখন ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ভারতের কাছে দুটি টেস্টেই হার মেনেছে তারা।

বাকি দক্ষিণ আফ্রিকা, বাংলাদেশ ও পাকিস্তান এখনো বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অধীনে কোনো ম্যাচ খেলেনি।

 

আপনার মতামত লিখুন :