বিশ্বকাপ পেতে নিজেদের ‘মেরে`ফেলবেন এমবাপেরা!

সত্যিকার অর্থেই এখন শিরোপার সুবাস পাচ্ছে ফ্রান্স। মঙ্গলবার রাতে বেলজিয়ামের স্বপ্ন ভেঙ্গে ফরাসিরা উঠে গেছে রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে। ১৫ জুন ট্রফির জন্য লড়বে ১৯৯৮ সালের চ্যাম্পিয়নরা। দলের নতুন প্রজন্মের ফুটবলাররা বিশ্বকাপের সোনা ট্রফির জন্য উন্মুখ হয়ে আছেন। যেভাবেই হোক শিরোপা চাই তাদের।

কিলিয়ান এমবাপে যেন সবচেয়ে মরিয়া। ১৯ বছর বয়সী এই বিস্ময় বালক এরইমধ্যে রাশিয়া বিশ্বকাপে ম্যাজিক দেখিয়েছেন। বল পায়ে মঙ্গলবারও তার কারিকুরি মুগ্ধ বিশ্ব! টিনেজ এই ফুটবলারটি বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি 'লম্বা রেসের ঘোড়া!' বেলজিয়ামের বিপক্ষে ৫৬ মিনিটে এই প্লেমকারের ব্যাকহিল পাস মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে দেখেছেন সবাই। কিন্তু অলিভার জিরুর্ডের শট ফিরিয়ে দেন বেলজিয়ামের গোলরক্ষক। অ্যান্তেনিও গ্রিজম্যানের পাস পেয়ে নিজে ৩৬০ ডিগ্রি অ্যাঙ্গেলে ঘুরে ডানপায়ের থেকে বল নিয়ে বামপায়ের পিছনে দিয়ে পাস দেন এমবাপে। এসেই পাস দেওয়ার ভিডিও ক্লিপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে এরইমধ্যে। গোল না পেলেও ম্যাচে বল পায়ে গতির ঝড় তুলেছেন তিনি।

সেই এমবাপে এখন আরেকটি ম্যাচ জেতার অপেক্ষায়! এজন্য জীবন বাজি রাখতেও রাজী তিনি। বলছিলেন, ‘সবকিছুর বিনিময়ে আমি বিশ্বকাপ জিততে চাই। ট্রফি নিয়ে তবেই ঘুমাতে চাই। দেখুন, আমি ১৯৯৮ সালে জন্ম নেইনি। এ কারণেই বিশ্বকাপের কোন স্মৃতি নেই। ফাইনালে আমার পুরোটা দেবো। ট্রফি জিততে প্রয়োজনে নিজেদেরকে মেরে ফেলব।’

এবারের ব্যালন ডি’অর জয়ের লড়াইয়েও আছেন এমবাপে। সেখানে তার লড়াই হবে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর সঙ্গে। এসব নিয়ে ভাবছেন না এই কৈশোরের ছাপ লেগে থাকা ফুটবলার। বললেন, 'দেখুন, ব্যালন ডি’ অর নিয়ে ভাবতে চাই না। আমি চাই বিশ্বকাপ!'

রাশিয়া বিশ্বকাপে এরইমধ্যে ৩ গোল করেছেন কিলিয়ান এমবাপে। ফাইনালে ম্যাজিক দেখালে ব্যালন ডি’ অর নয়, আরো কতো যে স্বীকৃতি যোগ হবে নামের পাশে, সেটা ভাল করেই জানেন তিনি। তাইতো সোনার ট্রফিটাই সবার আগে চাই গতির ঝড় তোলা এই ফুটবলারের।

খেলা এর আরও খবর