পাকিস্তানের জালে বাংলাদেশের মেয়েদের ১৪ গোল

বাংলাদেশ ১৪ : পাকিস্তান ০

গোলবন্যা বললেও যেন কম হয়। পাকিস্তানের সীমানায় একের পর এক আক্রমণ! জলের দামে এসেছে স্কোর! বিস্ময়কর হলেও সত্য- এক পর্যায়ে গোল করতেও যেন ক্লান্ত হয়ে পড়ে বাংলাদেশের মেয়েরা। পাড়া-মহল্লার ফুটবলেও এমন একপেশে লড়াই হয় কীনা সন্দেহ। ঠিক চ্যাম্পিয়নের মতোই উড়ন্ত সূচনা হয়েছে লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের।

ভুটানের রাজধানী থিম্পুর চাংলিমিথাং স্টেডিয়ামে পাকিস্তানকে উড়িয়ে দিয়েছে মারিয়া মান্ডার দল। ১৪-০ গোলে পাকিস্তানকে হারিয়ে বৃহস্পতিবার সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ বালিকা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে শুভ সূচনা করেছে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।

গতবারের চ্যাম্পিয়নদের সামনে পাত্তাই পায়নি পাকিস্তানের মেয়েরা। ম্যাচের শুরুতেই গোল উৎসবের সূচনা। এরপর দুর্দান্ত দাপটে একের পর এক গোল করে গেছেন বাংলাদেশের কিশোরীরা। মজার ব্যাপার হল- ম্যাচে মোট পাকিস্তানের গোলপোস্টে ৫৮ শট নিয়েছে বাংলাদেশ। আর প্রতিপক্ষরা একটি শটও নিতে পারেনি! পুরোটা সময় পাকিস্তানের সীমানাতেই খেলা হয়েছে!

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Aug/09/1533827832570.jpg

এই জয়ে সেমিফাইনালে উঠা পথে এগিয়ে গেল মারিয়ার দল। ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে ১৩ আগস্ট নেপালের সঙ্গে লড়বে তারা।

পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথমার্ধেই বড় জয়ের আভাস দিয়েছিল বাংলাদেশের মেয়েরা। ৫ মিনিটে তহুরা খাতুনের গোলে এগিয়ে যায় দল। এরপর শুধু ব্যবধান বাড়ানোর গল্প। ৬-০ গোলে থেকে শেষ করে প্রথমার্ধ। এরপরও গোলের ক্ষুধা মিটেনি। দ্বিতীয়ার্ধে আসে ৮টি গোল! গোলবন্যার এই ম্যাচে ডাবল হ্যাটট্রিক পেতেই যাচ্ছিলেন শামসুন্নাহার। কিন্তু ৫ গোল নিয়ে তুষ্ট থাকতে হয় তাকে। ম্যাচের ৩১, ৫০, ৫৪, ৫৭ ও ৯০ মিনিটে গোলগুলো করে তিনি। তাকে আটকানোর কৌশলটা আসলে জানা ছিল না পাকিস্তানের মেয়েদের।

বৃহস্পতিবার ম্যাচে দুটি করে গোল করেছেন তহুরা খাতুন (৫ ও ১৯ মিনিটে) , সাজেদা খাতুন (৪৮ ও ৫৮ মিনিটে) ও আনাই মোগিনি (৬০ ও ৮৮ মিনিটে)। একটি করে গোল মনিকা চাকমা, সাজেদা ও মারিয়া মান্ডার।

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপের উদ্বোধনী ম্যাচে ভারতও জিতেছে অনায়াসে। তারা একইদিন ১২-০ গোলে হারায় শ্রীলংকাকে। ৮ মাস আগে ফাইনালে ভারতকে ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল বাংলাদেশ।

খেলা এর আরও খবর