রঙ ছড়াতে প্রস্তুত জাকার্তা, শুরু এশিয়ান গেমস

সেজে প্রস্তুত জাকার্তা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

সত্যিকার অর্থেই জাকার্তা এখন উৎসবের নগরী। রঙে রঙীন গোটা শহরে চোখ রাখলেই দেখা মিলছে- ‘সাকুসমা এশিয়ান গেমস’! মানে স্বাগত এশিয়ান গেমস। আজ ১৮ আগস্ট, সন্ধ্যা থেকেই আনুষ্ঠানিক পর্দা উঠবে ১৮তম এশিয়ান গেমস আসরের।

এশিয়ার অলিম্পিক গেমস এবার বসছে ইন্দোনেশিয়ার জার্কাতায়। রাজধানী ছাড়াও বিভিন্ন ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হবে সুমাত্রা পেলামবাং ও পশ্চিম জাভাতেও। শনিবার শুরু হয়ে এই আসর চলবে ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। অংশ নেবেন ৪৫টি দেশের প্রায় দশ হাজার অ্যাথলিট। ৪০টি ডিসিপ্লিনে থাকছে ৪৬৫টি ইভেন্ট।

এবার নিয়ে দ্বিতীয়বার এশিয়ান গেমসের আয়োজন করছে ইন্দোনেশিয়া।

তবে বিশ্বের পরিবর্তিত প্রেক্ষাপটে নিরাপত্তার ব্যাপারটা থাকছে সবার আগে। নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তার চাদর পুরো গেমস ভিলেজ আর ভেন্যুতে। ১ লক্ষ পুলিশের সঙ্গে আছেন ইন্দোনেশিয়ান সেনাবাহিনীও। ২০০২-এ বালি হামলার পর থেকেই নিরাপত্তা বড় ইস্যু দেশটিতে।

প্রধান ভেন্যু গেলোরা বুং কার্নো স্টেডিয়ামে বসবে উদ্বোধনী আয়োজন। এখানে মার্চপাস্টে বাংলাদেশের পতাকা থাকবে ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার সীমান্তের হাতে।

জাকার্তায় বাংলাদেশ অংশ নিচ্ছে ১৪টি ডিসিপ্লিনে। যা হচ্ছে- আর্চারি, অ্যাথলেটিক্স, বাস্কেটবল, গলফ, ফুটবল, বিচ ভলিবল, ব্রিজ, হকি, কাবাডি, শ্যুটিং, সুইমিং, ভারোত্তোলন, রেসলিং আর রোয়িং। এরইমধ্যে জাকার্তায় পৌঁছে গেছেন দলের ১১৭ জন অ্যাথলিট।

শ্যুটিং, আর্চারি, কাবাডি, ব্রিজ আর গলফে পদকের লক্ষ্য নিয়েই নামবে বাংলাদেশের প্রতিযোগীরা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাত করতে চায় আয়োজকরা। আজ শনিবার সন্ধ্যায় মঞ্চ মাতাবেন দেশটির জনপ্রিয় শিল্পী অ্যানগুন। থাকবে ৪ হাজার নৃত্যশিল্পীর ছন্দের তাল। যেখানে তারা ইন্দোনেশিয়ার ইতিহাসটাই তুলে আনবেন।

খেলা এর আরও খবর