শেষের হিসাব মিলল না বাংলাদেশের, চ্যাম্পিয়ন ভারত

আপন তারিক, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ফাইনালে হেরে গেল বাংলাদেশের মেয়েরা

ফাইনালে হেরে গেল বাংলাদেশের মেয়েরা

  • Font increase
  • Font Decrease

রূপকথার গল্পেরও শেষ আছে। একটা সময় গল্প ফুরিয়ে যায়। থামতেই হয়! বাংলাদেশের মেয়েরাও থামল। হৃদয় জিতলেও শনিবার ম্যাচটা জিততে পারল না মারিয়া মান্ডার দল। তাদের ১-০ গোলে হারিয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতে নিয়েছে ভারত।

থিম্পুর চাংলিমিংথা স্টেডিয়ামে শিরোপা ধরে রাখার মিশনে নেমেছিল বাংলাদেশের কিশোরীরা। ভারতের জন্য প্রতিশোধ মিশন। গতবছর এই দলটার কাছেই যে ফাইনালে হেরেছিল তারা। এবার মাঠের ফুটবলে ছন্দ না দেখাতে পারলেও সুযোগ কাজে লাগিয়ে দল পেয়ে গেল শিরোপা।

৬৬ মিনিটে সুনিতা মুন্ডার দেওয়া গোলে ট্রফি জিতে মাঠ ছাড়ে ভারতীয় দল। নিজেরা ২২ গোল করার পর এটাই এবারের টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের জালে প্রথম গোল!

অথচ ম্যাচের পুরোটা সময় জুড়েই দাপট ছিল লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের। একের পর এক আক্রমণে গেলেও ফিনিশিংটা ভাল ছিল না। এমন কী ভাগ্যটাও সঙ্গে ছিল না তাদের। ভারতীয় গোলকিপারকে বারপোস্ট, সাইডবারের বল লেগে ফিরে এসেছে একাধিকবার! আবার দলটির গোলকিপারও প্রাচীর তুলে পোস্টের নীচে দাঁড়িয়েছিলেন। 

ম্যাচে পিছিয়ে পড়ার পর আরো বেশি আক্রমনাত্মক হয়ে উঠে বাংলাদেশের মেয়েরা। সেই মরিয়া কিশোরীরা এগিয়ে যেতেই পারতো ৭৬তম মিনিটে। কিন্তু শ্রেফ দুর্ভাগ্য পিছু নিয়েছিল তাদের। মনিকা চাকমার দূরপাল্লার শট ক্রসবারে চুমু খেয়ে ফিরে আসে।

একইভাবে ৮২তম মিনিটে তহুরা খাতুন এগিয়ে দিতে পারতেন দলকে। কিন্তু তার শট ডান দিকের পোস্টে লেগে ফিরে আসে! ইনজুরি সময়েও সুযোগ হাতছাড়া হয় তাদের। রোজিনা আক্তারের বাড়নো ক্রসে পা ছুঁইয়ে দিলেই গোল। কিন্তু তহুরা কাজে লাগাতে পারেন নি সুযোগটা।

এর আগে ফাইনালের প্রথমার্ধের খেলা ০-০ গোলে ড্র ছিল। তবে টুর্নামেন্টে প্রথমবারের মতো কঠিন পরীক্ষা দিতে হয়েছে বাংলাদেশের গোলকিপারকে। মাহমুদা আক্তারের দৃঢ়তায় শুরুতেই রক্ষা পেয়েছে বাংলাদেশ। অবশ্য ফিনিংশটা ভাল হলে এগিয়ে যেতে পারতো বাংলাদেশের মেয়েরাও।

তবে পাকিস্তান, নেপাল ও ভুটানের মতো এখানেও দুর্দান্ত দাপট দেখানোর সুযোগ ছিল না বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ ফুটবল দলের। কারণ শক্তির বিচারে ভারতও যে সমানে সমান! তারপরও দৃষ্টিনন্দন ফুটবল খেলেছেন তহুরা-আঁখি আক্তাররা। ফাইনাল জেতা হল না। তবে হৃদয় ঠিকই আরো একবার জিতে নিলেন লাল-সবুজের এই ক্ষুদে প্রতিনিধিরা! একইভাবে বাংলাদেশ দল জিতে নেয় ফেয়ার প্লে অ্যাওয়ার্ড।



আপনার মতামত লিখুন :