দুই ম্যানচেস্টারের হার-জিতের দিন

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট,বার্তা ২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দুই ম্যানচেস্টার একই দিনে মাঠে নামল। কিন্তু দুই ম্যাচের ফল পুরো উল্টো। ম্যানচেস্টার সিটি প্রতিপক্ষ হার্ডারফিল্ডকে গোলোৎসবে ভাসিয়ে ৬-১ ব্যবধানে ম্যাচ জিতল। আর প্রতিবেশি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড হেরে গেল ব্রাইটনের কাছে ৩-২ গোলে।

ম্যান সিটির জয়ে নায়ক সের্গেই অ্যাগুয়েরো। আর্জেন্টাইন এই তারকা হ্যাটট্রিক করেন। ক্যারিয়ারে এটি তার ১৩তম এবং ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে নবম হ্যাটট্রিক। ইপিএলে সবচেয়ে বেশি ১১ হ্যাটট্রিকের মালিক ইংল্যান্ডের সাবেক স্ট্রাইকার অ্যালান শিয়েরারের রেকর্ড ছোঁয়ার অপেক্ষায় এখন অ্যাগুয়েরো।

নিজ মাঠে ম্যানচেস্টার সিটির এই বড় জয়ে দারুণ খুশি কোচ পেপে গার্দিওলা। বললেন-‘এই ম্যাচে অ্যাগুয়েরো যে ফুটবল খেলেছে তাতে আমি মুগ্ধ। তার এমন দুর্দান্ত গতিময় ফুটবল আমি আগে দেখিনি। এই ম্যাচের পুরোটা সময় বল পায়ে যা ইচ্ছে করতে চেয়েছে সেটাই করেছে অ্যাগুয়েরো।’

২০১৮ সালের ইংলিশ লিগ বেশ দাপটের সঙ্গেই শুরু করল ম্যানসিটি। আগের ম্যাচে তারা হারিয়েছিল আর্সেনালকে। জিতেছিল ২-০ গোলে। দুই ম্যাচে সিটির গোল সংখ্যা ৮। রোববার ম্যাচের ২৫ মিনিটে অ্যাগুয়েরো তার এবং ম্যাচের প্রথম গোল করেন। মিনিট সাতেকের মধ্যে গ্যাব্রিয়েল জেসুস জ্বলে উঠেন। ব্রাজিল দল থেকে বাদ পড়া এই স্ট্রাইকার ডি বক্সের কোনা থেকে শট নিয়ে গোল করেন। খেলার ৩৫ মিনিটের সময় অ্যাগুয়েরো নিজের দ্বিতীয় গোল করেন। বিরতির বাঁশি বাজার মিনিট দুয়েক আগে একটা গোল করে হার্ডারসফিল্ড। স্ট্র্যানকোভিচের পা থেকে আসে এই গোলটি। বিরতির পর গোল বাড়াতে আরো মরিয়া হয়ে উঠে ম্যান সিটি। ৪৮ মিনিটের সময় ডেভিড সিলভা দলের লিড ৪-১ করেন। অ্যাগুয়েরো হ্যাটট্রিকের আনন্দে মাতেন ম্যাচের ৭৫ মিনিটের সময়। বড় ব্যবধানে পিছিয়ে পড়া হার্ডারসফিল্ডের বিপদ আরও বাড়ে ম্যাচের শেষদিকে কঙ্গোলোর আত্মঘাতী গোলে।

টানা দুই ম্যাচে বড় জয়ে লিগ শুরু করা ম্যানসিটির কোচ গার্দিওয়ালা সন্তুষ্ঠির সুরে জানালেন-‘গত মৌসুমের চেয়ে এবার আমাদের শুরুটা বেশ ভাল হয়েছে। দুই ম্যাচের নব্বই মিনিট আমরা ভাল ফুটবল খেলেছি। দলের এই পারফরমেন্সে আমি খুশি।’

গার্দিওয়ালার খুশির দিকে ভীষণ মেজাজ খারাপ হোসে মরিনহোর। তারকা সমৃদ্ধ দল নিয়েও অখ্যাত ব্রাইটনের কাছে ৩-২ গোলে হেরে গেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। বিরতির আগেই ম্যান ইউ ৩-১ গোলে পিছিয়ে পড়ে। ব্রাইটনের মাঠ ম্যান ইউনাইটেডের জন্য সুখকর কোনকিছু নয়। গেল মৌসুমেও ব্রাইটনের মাঠে হেরেছিল ম্যান ইউ। এবারও তাই। পুরো ম্যাচে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড যে দুর্বল মানের ফুটবল খেলেছে তাতে সামনের ম্যাচে কোচ হোসে মরিনহো দলে বড় পরিবর্তন করলে অবাক হওয়ার কিছু নেই। সত্যি বলতে কি এই ম্যাচ থেকে ইতিবাচক কোনকিছু খুঁজে বের করার উপায় নেই ম্যান ইউ’র।

ইনজুরি টাইমে পেনাল্টি থেকে পাওয়া পল পগবার গোলের পর ম্যাচে ফেরার একটা সামান্য সুযোগ তৈরি হয়েছিল ম্যান ইউ’র সামনে। কিন্তু ততক্ষণে যে খেলার সময় শেষ!

লিগের প্রথম ম্যাচে জয়, দ্বিতীয় ম্যাচে হার। মৌসুমটা খুব সুখকর কায়দায় শুরু হল না ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের।

আপনার মতামত লিখুন :