পৃথিবীতে কোনো আইনই স্বয়ংসম্পূর্ণ নয়: প্রধান বিচারপতি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সিলেট: প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন,‘পৃথিবীতে কোনো আইনকেই স্বয়ংসম্পূর্ণ বলা যাবে না। সব আইনের মধ্যেই কিছু ত্রুটি-বিচ্যুতি থাকে। তেমনি ভাবে বাংলাদেশে ২০১৩ সালে প্রণীত শিশু আইনেরও কিছু ত্রুটি রয়েছে বলে গবেষণায় চিহ্নিত হয়েছে। ক্রটি-বিচ্যুতি দূর করে শিশু আইন-২০১৩ সংশোধন করা হলে এ সংক্রান্ত মামলাগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করা সম্ভব হবে।’

বুধবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিচারের আওতায় আনা শিশুদের জন্য শিশু আইন ২০১৩ অনুযায়ী সিলেটে সংস্কারকৃত শিশুবান্ধব আদালতের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন,‘শিশু অপরাধের বিচার কার্যক্রম অনেক স্পর্শকাতর। এ কারণে বিচারকদের সতর্কতার সঙ্গে শিশু অপরাধের বিচারকার্য সম্পাদন করতে হবে।’

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন- ইউনিসেফ বাংলাদেশের শিশু সুরক্ষা বিভাগের প্রধান জন লেইভি। উপস্থিত ছিলেন হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ, বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার এবং বিচারপতি খিজির আহমদ চৌধুরী, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল ড. মো. জাকির হোসাইন, সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার সাইফুর রহমান, সিলেটের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ প্রমুখ।

উল্লেখ: দেশে শিশু আইন ২০১৩ প্রণয়নের পর থেকে সিলেটেও শিশু বান্ধব বিচার ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে নেয়া হয় নানা পদক্ষেপ। এর অংশ হিসেবে অতিরিক্ত মহানগর আদালত এবং অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালত শিশু আদালত হিসেবে কাজ করছে। বর্তমানে ইউনিসেফের সহযোগিতায় দুটি আদালতকেই শিশুদের জন্য আকর্ষণীয় করে তোলা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :