সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন দেশবাসী মেনে নেবে না: পীর সাহেব চরমোনাই

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
মহাসমাবেশে বক্তব্য রাখছেন মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম পীর সাহেব চরমোনাই, ছবি: বার্তা২৪.কম

মহাসমাবেশে বক্তব্য রাখছেন মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম পীর সাহেব চরমোনাই, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

জাতীয় সংসদ বহাল রেখে কোনো নির্বাচন দেশবাসী মেনে নেবে না বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করিম পীর সাহেব চরমোনাই।

দুর্নীতি, দুঃশাসন, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবিতে শুক্রবার (৫ অক্টোবর) বাদ জুমা রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ইসলামী আন্দোলন আয়োজিত মহাসমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, স্বাধীনতার পর মানুষ ভেবেছিল তারা শান্তিতে বসবাস করবে। দেশ স্বস্তিতে থাকবে। কিন্তু পরিতাপের বিষয় হলো- এ পর্যন্ত যারাই ক্ষমতায় এসেছে তারাই দুর্নীতিতে ডুবে গেছে। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে ইসলামকে ক্ষমতায় প্রতিষ্ঠিত করতে হবে।

তিনি বলেন, অনেকেই বলে- ইসলাম ক্ষমতায় গেলে মানুষ শান্তি পাবে না। নারীরা ঘরের বাইরে বেরুতে পারবে না। আমরা স্পষ্ট করে বলছি, এ ধারণা ভুল। ইসলাম বিজয় হলে নারীরা আরও বেশি সম্মানিত হবে। সব নাগরিকের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা হবে। সবার অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া হবে। যে যেখানে আছে সে অবস্থায় বহাল থাকবে। কেবল দুর্নীতি ও অন্যায়-অত্যাচার থাকবে না।

মহাসমাবেশে দেশের বিভিন্ন এলাকা ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতাকর্মীরা যোগ দিয়েছেন। সমাবেশ শুরু হতেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যান কানায় কানায় ভরে যায়। ফলে এ এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। মহাসমাবেশগামী গাড়ির আধিক্যে ট্রাফিক পুলিশকে হিমশিম খেতে দেখা যায়।

সমাবেশে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নেতারা বক্তব্য রাখেন। দলটির নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল তার বক্তব্যে বলেন, বর্তমান সিইসি একজন রোবট, তাকে যা শিখিয়ে দেওয়া হয় তাই করে। এই রোবটকে মানুষ আর দেখতে চায় না। জনগণ নিরপেক্ষ নির্দলীয় ইসি চায়।

ইসলামী আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ মুসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী বলেন, শাপলা চত্বরে ২০১৩ সালে আমাদের ভাইকে রাতের আধারে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে, আমরা তাদের বিচার চাই।

প্রেসিডিয়াম সদস্য আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজী বলেন, আমরা আজ প্রমাণ করতে চাই, সব মার্কা দেখা শেষ হাতপাখার বাংলাদেশ।

ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি অধ্যাপক আশরাফ আলী আকন বলেন, আমাদের দেশের আয়ের অন্যতম উৎস পোশাক শ্রমিকরা। কিন্তু তাদের বেতন এতটাই কম যা উল্লেখ করার মতো নয়। এ বৈষম্য দূর করতে হবে।

ইসলামী আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাকী ও মাওলানা নেছার উদ্দীনের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, মহাসচিব অধ্যক্ষ মাওলানা ইউনুস আহমদ, সহকারী মহাসচিব অধ্যক্ষ এটিএম হেমায়েত উদ্দীন, মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, মাওলানা আবদুল কাদের, মাওলানা মাহবুবুর রহমান, প্রচার সম্পাদক মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ুম, ঢাকা দক্ষিণ মহানগর সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম ও ঢাকা উত্তর সভাপতি মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :