পুরস্কার পেল ‘নো হেলমেট-নো পেট্রল’ আইডিয়া

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
পুরস্কার পেল ‘নো হেলমেট-নো পেট্রল’ আইডিয়া। ছবি: বার্তা২৪.কম

পুরস্কার পেল ‘নো হেলমেট-নো পেট্রল’ আইডিয়া। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সড়ক পথে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা রোধসহ জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে দেশব্যাপী আলোচিত ‘নো হেলমেট-নো পেট্রল’ উদ্যোগকে সফলতার সঙ্গে ছড়িয়ে দেয়ায় পুরস্কার পেয়েছে রংপুর জেলা পুলিশ।

রোববার (৭ অক্টোবর) দুপুরে রংপুরের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানের হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য। রংপুর রেঞ্জ ডিআইজি কার্যালয়ে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

পুরস্কার প্রদানের আগে অনুষ্ঠিত রংপুর বিভাগে গত সেপ্টেম্বর মাসের আইন-শৃঙ্খলা ও অপরাধ পর্যালোচনা সভায় ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য বলেন, অপরাধ দমন থেকে শুরু করে সব ক্ষেত্রে স্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি ও সড়ক দুর্ঘটনা রোধে আইন মেনে চলার বিকল্প নেই। ট্রাফিক আইন মেনে চললে সড়কে শৃঙ্খলা ফিরবে। মানুষ নিরাপদ ও স্বস্তিতে বাসায় ফিরতে পারবে। এ জন্য সবাইকে সচেতন হতে হবে। আইন মানতে উদ্যোগ নিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, রংপুর জেলা পুলিশ ‘নো হেলমেট-নো পেট্রল’ আইডিয়ার মাধ্যমে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়িয়েছে। এমন এক্সক্লুসিভ আইডিয়া নিয়ে মানুষকে আইন মেনে চলতে উদ্বুদ্ধ করারও পরামর্শ দেন তিনি।

সভায় রংপুর রেঞ্জের গত সেপ্টেম্বর মাসের অপরাধ পরিস্থিতি, গ্রেফতারি পরোয়ানা তামিল, আইন-শৃঙ্খলা ও অপরাধ পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়। পরে রেঞ্জে কর্মরত সকল স্তরের পুলিশ সদস্যদের মধ্যে কর্মস্পৃহা ও কর্মচাঞ্চল্য বাড়ানোর লক্ষ্যে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তাদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন ডিআইজি দেবদাস ভট্টাচার্য্য।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন- শ্রেষ্ঠ সার্কেল দিনাজপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুশান্ত সরকার, শ্রেষ্ঠ সাব-ইন্সপেক্টরসহ মাদক ও চোরাচালান মালামাল উদ্ধারকারী অফিসার হিসেবে কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী থানার এসআই মো. আকতার হোসেন, শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারী কর্মকর্তা গাইবান্ধা সদর থানার এএসআই মো. আবদুল কুদ্দুছ, শ্রেষ্ঠ সহকারী সাব-ইন্সপেক্টর গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ থানার এএসআই মো. শওকত আলম সিদ্দিকী, শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইউনিট লালমনিরহাট ট্রাফিক, শ্রেষ্ঠ থানা হিসেবে নীলফামারী সদর থানা এবং শ্রেষ্ঠ জেলা হিসেবে নীলফামারী পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন নির্বাচিত হন।

এছাড়া সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে মহাসড়কে ট্রাফিক সাইন লাগানোর জন্য লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক, অস্ত্র উদ্ধার জনিত কারণে দিনাজপুর জেলার বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক এটিএম গোলাম রসুল বিশেষ পুরস্কার অর্জন করেন।

এর আগে সকালে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা নির্বিঘ্নে ও উৎসবমুখর পরিবেশে উদযাপনের লক্ষ্যে রেঞ্জের আট জেলা পুলিশ সুপারসহ হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের নেতাদের নিয়ে’ আইনশৃঙ্খলা ও নিরাপত্তা বিষয়ক বিশেষ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় নির্বিঘ্নে ও নিরাপদ পরিবেশে দুর্গোৎসব উদযাপনে পুলিশি টহল ব্যবস্থা জোরদার করাসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতা বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়।

এ সময় ডিআইজি দেবদাস জানান, রংপুর রেঞ্জের ৫০৯৮টি (মেট্রো এলাকা ব্যতীত) পূজামণ্ডপে অপরাধ প্রতিরোধের নিমিত্তে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে পুলিশ। পূজা এবং একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে বিশৃঙ্খলা বা সহিংস ঘটনা এড়াতে বিশেষ ব্যবস্থাও নেয়া হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :