তিনদিন পরে স্কুলছাত্রের লাশ মিলল মাটির নিচে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
তিনদিন পরে স্কুলছাত্রের লাশ মিলল মাটির নিচে। ছবি: বার্তা২৪.কম

তিনদিন পরে স্কুলছাত্রের লাশ মিলল মাটির নিচে। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নিখোঁজের তিনদিন পর মাটিতে পুঁতে রাখা অবস্থায় স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করেছে পাবনার আতাইকুলা থানা পুলিশ।

শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত আশিক মাহমুদ অনি (১৪) আতাইকুলা থানার দুবলিয়া গ্রামের ব্যবসায়ী রবিউল প্রামাণিকের ছেলে। সে এ বছর দুবলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জেএসসি পরীক্ষা দিয়েছিল। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন দুইজনকে পুলিশি হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

নিহত স্কুলছাত্রের মামাতো ভাই পাবনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শাওন রেজা খান জানান, গত সোমবার (২৬ নভেম্বর) সন্ধ্যায় অনি তার বাবার টিনের দোকান দেখতে যায়। এর কিছুক্ষণ পরে তার বাবা রবিউল প্রামাণিক তাকে বাড়ি ফিরে যেতে বলে। তবে সে দোকান থেকে বের হয়ে আর বাড়িতে যায়নি। এরপর অনেক খোঁজাখুঁজি করে তার সন্ধান না পেয়ে ২৭ নভেম্বর আতাইকুলা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন বাবা রবিউল।

শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) দুবলিয়া পুলিশ ক্যাম্পের সামনে বাগানের ভেতরে মাটির নিচে শেয়ালকে কিছু একটা টানাটানি করতে দেখে স্থানীয়রা। পরে তারা বিষয়টি পুলিশকে জানায় এবং ওই বাগানের মধ্যে মাটির নিচে পুঁতে রাখা স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। খবর পেয়ে জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (পদোন্নতিপ্রাপ্ত) গৌতম কুমার বিশ্বাস জানান, এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড বলে ধারণা করা হচ্ছে। হত্যার পর তাকে মাটির নিচে পুঁতে রেখেছিল হত্যাকারীরা। তবে কারা কী কারণে অনিকে হত্যা করেছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

আতাইকুলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান জানান, হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে অনির দুই সহপাঠীকে পুলিশি হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তবে নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত তাদের নাম পরিচয় জানানো সম্ভব হচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :