পাথর খনিতে উৎপাদনের নতুন মাইল স্টোন সৃষ্টি

পাথর খনিতে উৎপাদনের নতুন মাইল স্টোন সৃষ্টি। ছবি: বার্তা২৪.কম

রিয়াজুল ইসলাম রিয়াজ, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

দিনাজপুরের মধ্যপাড়া পাথর খনিতে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা এবং পাথর উত্তোলনে প্রতিমাসে উৎপাদনের নতুন মাইল স্টোন সৃষ্টি করেছে জার্মানিয়া-ট্রেস্ট কনসোর্টিয়াম (জিটিসি)। পাথর খনির তিন শিফটে প্রতিমাসে উৎপাদন বেড়েই চলছে। ফলে আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের অংশীদারে অবদান রাখতে এবং খনিটি লাভজনকে পরিণত করা এখন সময়ের ব্যাপার।

গত অক্টোবর মাসের পাথর উত্তোলনের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে নভেম্বর মাসে সাপ্তাহিক ছুটির দিন ব্যতীত ২৫ দিনে তিন শিফটে প্রায় ১ লাখ ২৪ হাজার মেট্রিক টন পাথর উত্তোলন করে আবারো খনির উৎপাদনে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছে জিটিসি।

খনি সূত্র জানায়, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের উন্নয়নের অংশীদার হিসেবে অবকাঠামো উন্নয়ন ও নির্মাণ কাজ পাথরের চাহিদা মেটাতে এবং পাথর খনিটিকে লাভজনকে পরিণত করতে জিটিসি কাজ করে যাচ্ছে। ফলশ্রুতিতে প্রতিমাসে উৎপাদন বেড়েই চলেছে। জিটিসির দ্বারা প্রতিদিন এখন তিন শিফটে পাথর উত্তোলন হচ্ছে গড়ে প্রায় ৫ হাজার মেট্রিক টন ।

গত অক্টোবর মাসে জিটিসি তিন শিফটে প্রায় ১ লাখ ২৩ হাজার মেট্রিক টন পাথর উত্তোলন করে রেকর্ড তৈরি করেছিল। নভেম্বর মাসে প্রতিদিন তিন শিফট পরিচালনা করে মাত্র ২৫ দিনেই সেই রেকর্ডকে ছাড়িয়ে প্রায় ১ লাখ ২৪ হাজার মেট্রিক টন পাথর উত্তোলন করেছে। এই ভাবে পাথর উত্তোলন হলে খনিটি লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করা সম্ভব বলে সূত্র মনে করে।

জিটিসির মহাব্যবস্থাপক জামিল আহমেদ জানান, মধ্যপাড়া পাথর খনির উন্নয়ন ও উৎপাদনে অর্ধশতাধিক বিদেশি খনি বিশেষজ্ঞ, অর্ধশত দেশি প্রকৌশলী এবং ৭ শতাধিক দক্ষ খনি শ্রমিকসহ প্রায় দেড় শতাধিক কর্মকর্তা কর্মচারী তিন শিফটে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। প্রতিমাসে উৎপাদনে নতুন নতুন রেকর্ড সৃষ্ঠি করে পাথর খনিটিকে সরকারের লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে জিটিসি অঙ্গীকারবদ্ধ।

জাতীয় এর আরও খবর