‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে আকাশে উড়িয়ে দেয় স্বাধীন পতাকা

নাসিরনগরে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলক, ,ছবি: বার্তা২৪

৭ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর উপজেলা পাক হানাদার মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলার দামাল ছেলেরা সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে পরাজিত করে নাসিরনগর মুক্ত করে স্বাধীন বাংলার লাল-সবুজ পতাকা দিয়ে উড়িয়ে দেয় ‘জয় বাংলা’ স্লোগান দিয়ে।

১৯৭১ সালের ১৫ নভেম্বর পাকহানাদার বাহিনী জেলার নাসিরনগরে তাদের বিপুল সংখ্যক সৈন্য ও তাদের এদেশীয় দোসর, রাজাকার, আলবদর ও আলসামস বাহিনীর সহযোগিতায় উপজেলার ফুলপুর, নুরপুর, কুলিকুন্ডা, সিংহগ্রাম ও তিলপাড়া গ্রামবাসীর উপর নিষ্ঠুর অত্যাচার ও নির্যাতন চালায়। অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট করে ঘরবাড়িতে। মুক্তিযোদ্ধা ও সংগ্রামী জনতা পাক-বাহিনীর বিরুদ্ধে দীর্ঘ ৯ মাস লড়াই করে ৭ ডিসেম্বর থানা অভ্যন্তরে (পুলিশ ষ্টেশন) স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে এই দিন নাসিরনগরকে পাক-হানাদার মুক্ত করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধে যে সকল বীরসেনা আত্মহুতি দিয়েছিলেন তাদের স্মৃতি ধরে রাখার জন্য দীর্ঘ ৪৭ বছর অতিবাহিত হওয়ার পর নাসিরনগরে মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতি ফলক নির্মিত হলেও তা এখন উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে। ২০০৮ সালের ২৬ মার্চ উপজেলা পরিষদ চত্বরে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতি ফলকের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করার দীর্ঘদিন পর প্রয়াত মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী এডভোকেট মোহাম্মদ ছায়েদুল হক এমপির সার্বিক সহযোগিতা ও পৃষ্ঠপোষকতায় প্রায় ১৮ লাখ টাকা ব্যয়ে স্মৃতিসৌধটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

 

জাতীয় এর আরও খবর

সপ্তাহ শেষে শীত বাড়বে

ঝিরঝির বৃষ্টি। ঠাণ্ডা হিমেল হাওয়া। এ যেন শীতের আগমনী বার্তা। চলতি সপ্তাহের শেষের দিকে সেই বার্তা বাস্তবে রুপ নিত...

//election count down //sticky sidebar