Alexa

মুক্তিযুদ্ধের তথ্য ও দলিলপত্র প্রদর্শনী

মুক্তিযুদ্ধের তথ্য ও দলিলপত্র প্রদর্শনী

প্রদর্শনীতে তরুণরা, ছবি: বার্তা২৪

৪৮তম বিজয় দিবস উপলক্ষে তরুণ প্রজন্মের মাঝে মুক্তিযুদ্ধকালীন নানা তথ্য পুনরায় উপস্থাপন করতে দিনব্যাপী মুক্তিযুদ্ধের তথ্য ও দলিলপত্র প্রদর্শনীর এক ব্যতিক্রমী আয়োজন করেছে বরিশাল রিপোটার্স ইউনিটি (বিআরইউ)।

রোববার (১৬ ডিসেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে এবং বিভাগীয় আনসার ও ভিডিপির সহযোগিতায় নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যানের আনসার ও ভিডিপি কার্যালয়ের হলরুমে মুক্তিযুদ্ধের তথ্য ও দলিলপত্র প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। চলবে সন্ধ্যা ৭ টা পর্যন্ত।

আয়োজনকারী সংগঠন বরিশাল রিপোটার্স ইউনিটির (বিআরইউ) সাবেক সভাপতি আনিসুর রহমান স্বপন বার্তা ২৪.কমকে জানান, তরুণ প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের নানা অজানা ইতিহাস তুলে ধরার জন্য প্রতিবছরই স্বাধীনতা ও বিজয় দিবসে এই ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Dec/16/1544937494974.gif

আনিসুর বলেন, 'এই প্রদর্শনীতে মুক্তিযুদ্ধের বই-পত্র ছাড়াও মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত নানা উপকরণ, চিঠি, ডায়েরি, নির্দেশনাসহ বহু দুর্লভ জিনিস প্রদর্শিত হচ্ছে। ফলে তরুণ প্রজন্ম বই পড়ে জ্ঞান অর্জন করার পাশাপাশি এই প্রদর্শনী থেকে মুক্তিযুদ্ধের বাস্তব ধারনা লাভ করতে পারবে।'

তিনি আরো বলেন, 'মুক্তিযুদ্ধের তথ্য ও দলিলপত্র প্রদর্শনীতে প্রায় চারশ মুক্তিযুদ্ধের বই, তিনশ ছবি, মুক্তিযুদ্ধে ব্যবহৃত গানবোটের কামানের গোলা, রেডিও, শত্রুপক্ষের নৌযান ডুবানের কাজে ব্যবহৃত মাইনের খণ্ডাংশ, মুক্তিযুদ্ধে বরিশাল সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ে স্থাপিত দক্ষিণাঞ্চলীয় সচিবালয়ে মুক্তিযুদ্ধ সংক্রান্ত বিভিন্ন নির্দেশনা, মুদ্রণে ব্যবহৃত সাইক্লোস্টাইল মেশিন, বেশ কয়েকটি বন্দুকও রয়েছে।'

বিআরইউ’র সাবেক সভাপতি বলেন, 'মুক্তিযুদ্ধের পর বরিশালে প্রথম ভাস্কর্য বিজয় বিহঙ্গের ডিজাইন, ১৯৭১ সালে নৌ কমান্ডদের ব্যবহৃত কস্টিউম এবং বাংলাদেশের প্রথম সংবিধান (যা সম্পূর্ণটাই হাতে লেখা) রয়েছে এই প্রদর্শনীতে। এছাড়া মুক্তিযুদ্ধকালীন বিভিন্ন পত্রিকা এবং শান্তি কমিটির একটি চিঠিও প্রদর্শনীতে রয়েছে।'

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2018/Dec/16/1544937535117.gif

এদিকে মুক্তিযুদ্ধের তথ্য ও দলিলপত্র প্রদর্শনীতে তরুণদের আগ্রহটা সব থেকে বেশি। প্রদর্শনীতে কথা হয় বেশ কিছু তরুণদের সাথে।

বরিশাল জিলা স্কুলের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ফারহান আহমেদ বার্তা ২৪.কমকে বলেন, 'আমরা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সম্পর্কে বইয়ে পড়েছি এবং স্যারদের কাছে শুনেছি। কিন্তু এই প্রদর্শনীতে এসে মুক্তিযুদ্ধের অনেক কিছু বিষয়ের সাথে নতুন ভাবে পরিচিত হয়েছি। মুক্তিযুদ্ধের তথ্য ও দলিলপত্র প্রদর্শনীতে সব থেকে বেশি ভাল লেগেছে হাতে লেখা বাংলাদেশের প্রথম সংবিধান ও শত্রুপক্ষের নৌযান ডুবানের কাজে ব্যবহৃত মাইনের খণ্ডাংশটি।'

এর আগে সকাল সাড়ে ৮টায় দিনব্যাপী প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার রাম চন্দ্র দাস।

অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ কমিশনার মোঃ মোশারফ হোসেন, বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি শফিকুল ইসলাম, জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান, পুলিশ সুপার সাইফুল ইসলাম, স্থানীয় সরকারের উপপরিচালক আবুল কালাম আজাদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ ইকবাল আখতার। এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে বরিশাল রিপোর্টস ইউনিটির সভাপতি নজরুল বিশ্বাস, সাবেক সভাপতি আনিসুর রহমান স্বপন, সাধারণ সম্পাদক বাপ্পি মজুমদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সুশান্ত ঘোষ, কামরুল আহসান, বিজয় দিবস উদযাপন উপ-কমিটির আহবায়ক মাসুক কামালসহ বিভিন্ন দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :