Alexa

সিলেটে মনোনয়ন বঞ্চিতদের হুংকার

সিলেটে মনোনয়ন বঞ্চিতদের হুংকার

ছবি: সংগৃহীত

নূর আহমদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে নতুন মোড় নিয়েছে সিলেটের তৃণমূল আওয়ামী লীগে। মনোনয়ন বঞ্চিতরা বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ার হুংকার দিচ্ছেন। কেউ কেউ স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়ার ঘোষণাও দিয়েছেন। বিশেষ করে খনিজ সম্পদে ভরপুর পাথর কোয়ারি অধ্যুসিত উপজেলাগুলোতে বিদ্রোহী প্রার্থী বেশি।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত সিলেটের ১২টি উপজেলার মধ্যে ১১টিতে ২য় ধাপে আগামী ১৮ মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই ১১ উপজেলায় মনোনয়নপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করে আওয়ামী লীগ। উপজেলা নির্বাচনে একক প্রার্থী নির্বাচন করতে গিয়ে চরম বাধার মুখে পড়ে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ। একমাত্র গোলাপগঞ্জ এবং জকিগঞ্জ উপজেলা ছাড়া কোথাও সফল হননি জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা। এমনকি একাধিক উপজেলায় মারামারিরও ঘটনা ঘটেছে।

পাথর কোয়ারি অধ্যুসিত সীমান্তবর্তী কোম্পানীগঞ্জে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর আলম। ওই সময় কেন্দ্র থেকে নাম ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে তার অনুসারীরা আনন্দ উল্লাস করে একে অপরের মধ্যে মিষ্টি বিতরণ করে। তবে ইতোমধ্যে সেখানে বিদ্রোহী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা শামিম আহমদ। কোয়ারি এলাকায় একক আধিপত্য রয়েছে তার।

শামিম আহমদ এর মতে কেন্দ্র কাকে মনোনয়ন দিয়েছে তা দেখার বিষয় নয়। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবেই নির্বাচন করবেন। এতে কেন্দ্রের যেকোনো সিদ্ধান্ত মেনে নিতে প্রস্তুত রয়েছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘জিতলে ঘরের ছেলে ঘরেই ফিরবে, এর নজির ভূরি ভূরি রয়েছে।’

গোয়াইনঘাট উপজেলায়ও বিদ্রোহী প্রার্থী হতে পারেন বার বার জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন বঞ্চিত যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমদ। তিনি এবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। এবার আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন গোলাম কিবরিয়া হেলাল। ফারুক আহমদ জানান, ঢাকা থেকে ফিরেই তিনি তার সিদ্ধান্ত জানাবেন।

কানাইঘাট উপজেলায় কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ও সিলেট মহানগরের সভাপতি আব্দুল মোমিনকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। এই উপজেলায় ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক খায়ের চৌধুরী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের একটি পক্ষ তাকে সমর্থনও দিয়েছে।

জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত আলীকে মনোনয়ন দিয়েছে দলটি। লিয়াকতকে এক পক্ষ সমর্থন দিলেও তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মাঝে তাকে নিয়ে নানা মতবিরোধ দেখা দিয়েছে। অপরদিকে ওই উপজেলায় আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী কামাল আহমদ অভিযোগ করেছেন একটি চক্র টাকা খেয়ে তার নাম নির্বাচনী বোর্ডেই পাঠায়নি। তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মাঠেই রয়েছেন। বিগত নির্বাচনেও বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বচান করেছিলেন কামাল আহমদ।

অন্যদিকে লিয়াকত আলী নানা কারণে বিতর্কিত। বিশেষ করে কোয়ারি এলাকায় একক আধিপত্য বিস্তার করতে গিয়ে নানা রাহাজানি সৃষ্টির অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

সিলেট সদর উপজেলায় মনোনয়ন পেয়েছেন গত ২ বারের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ। তার সঙ্গে মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক। তিনিও স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে পারেন।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুর রহমান চৌধুরী জানান, কেউ দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অপরদিকে সিলেটের ১১ উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীরা হলেন- বিশ্বনাথে মো. নুনু মিয়া, দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় মো. আবু জাহিদ, বালাগঞ্জ উপজেলায় মো. মোস্তাকুর রহমান, জকিগঞ্জ উপজেলায় মো. লোকমান উদ্দিন চৌধুরী, গোলাপগঞ্জ উপজেলায় মো. ইকবাল আহমদ চৌধুরী, বিয়ানীবাজার উপজেলায় আতাউর রহমান খান।

জাতীয় এর আরও খবর