Alexa

‘শিল্প বিপ্লবের সঙ্গে তাল না মেলালে পিছিয়ে পড়তে হবে’

‘শিল্প বিপ্লবের সঙ্গে তাল না মেলালে পিছিয়ে পড়তে হবে’

বিজনেস লিডারশিপ মিট-এ বক্তব্য দেন ড. গওহর রিজভী / ছবি: বার্তা২৪

শিল্প বিপ্লবের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দেশের প্রযুক্তি খাত যদি উন্নত না করা যায় সে ক্ষেত্রে প্রত্যেকটি সেক্টরে ধ্বস নামবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক উপদেষ্টা প্রফেসর ড. গওহর রিজভী।

তিনি বলেছেন, ‘প্রযুক্তিগত পরিবর্তন হচ্ছে প্রতিটি খাতেই। তাই সব ক্ষেত্রেই প্রযুক্তির ব্যবহার হতে হবে। তা না হলে আমাদের পিছিয়ে পড়তে হবে।’

বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশের প্রস্তুতি বিষয়ক আলোচনা সভায় ‘বিজনেস লিডারশিপ মিট'-এ যোগ দিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। এছাড়া দেশের নীতিনির্ধারণী ও ব্যবসায়িক নেতারাও সভায় যোগ দেন।

সভায় ঢাকা চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি ওসামা তাসির বলেন, ‘আমাদের সংগঠনের ৪ হাজার সদস্যের মধ্যে ৮০ শতাংশ এসএমই। তাদেরকে আমরা ইতোমধ্যে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য প্রস্তুত করতে কাজ শুরু করে দিয়েছি। এই জন্য আমরা একটি উদ্যোগ নিয়েছি, যার নাম রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপ ইন বাংলাদেশ।’

ইউনিসেপ বাংলাদেশের চেয়ারপারসন পারভীন মাহমুদ বলেন, ‘শুধুমাত্র তাত্ত্বিক জ্ঞান নয় কারিগরি জ্ঞান দেশের যুবসমাজকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে। কেন না বিশ্ব এখন প্রযুক্তিনির্ভর দক্ষ কারিগর প্রয়োজন।’

ইনসেপটা লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল মুকতাদির বলেন, ‘ওষুধ শিল্পে পৃথিবীর অন্যান্য দেশের চেয়ে আমরা ৮০ শতাংশ এগিয়ে আছি। হয়তো সেদিন খুব বেশি দূরে নেই যেদিন ওয়েস্টার্ন স্টেট অথবা ইউরোপীয়ান কান্ট্রিগুলো আমাদের ওষুধের উপর নির্ভর করবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশে অনেক ওষুধ কোম্পানিগুলো অনেক নতুন এবং আধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করে। যেখানে বিভিন্ন সফটওয়্যার নিয়ন্ত্রণ করতে আমরা বাইরে থেকে জনবল নিয়ে আসি। কিন্তু বেসিস সদস্য কোম্পানিরা যদি এই বিষয়গুলোতে এক্সপার্ট হয়ে সেবা দিতে পারে। তাহলে আমরা লোকাল সাপোর্টে নিব। কারণ, এখন বাংলাদেশের সময়। আমরা সম্মিলিতভাবে উন্নয়নশীল বাংলাদেশ গড়ব।’

জাপানে বাংলাদেশের প্রযুক্তিগত বাজারে সম্ভাবনা সম্পর্কে বলতে গিয়ে বাংলাদেশ জাপান আইটির প্রধান নিবার্হী আকবর জেএম বলেন, ‘জাপান আসলে সফটওয়্যারগত দিক থেকে নয়, হার্ডওয়্যারগত ব্যবসায় সফল। আর আমাদের ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বিজেআইটির বর্তমান ব্যবসার অর্ধেক আসে জাপান আর অর্ধেক আসে আমেরিকা থেকে। আউটসোর্সিং ইন্ডাস্ট্রিতে বাংলাদেশ ভাল করছে। তাই এই খাত থেকে ২০ বিলিয়ন ডলার ১০ বছরে আয় করা সম্ভব। এখন সফটওয়্যারের দুটি মার্কেট, একটা দেশে আরেকটা বিদেশে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান বলেন, ‘আমরা বাংলাদেশে অনেক কিছু দেরিতে শুরু করলেও বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শিতার কারণে খুব তাড়াতাড়ি সেই জায়গাটা ধরতে পেরেছি। আমরা এখন প্রযুক্তি নিয়ে চিন্তা করার পাশাপাশি দক্ষ জনবল গড়ার পেছনে চিন্তা করছি। আমরা যেহেতু খুব তাড়াতাড়ি শিখতে পারি। তাই আমরা মনে করি সরকারের সেই পজেটিভ অ্যাপ্রোজ আছে, আমরা প্রযুক্তিকে গুরুত্ব দিচ্ছি।’

আপনার মতামত লিখুন :