গভীর রাতে ঢাবির মল চত্বরে ভাঙচুর ও অগ্নি সংযোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মল চত্বরে বৈশাখ ও চৈত্র সংক্রান্তি উপলক্ষে অনুষ্ঠিতব্য কনসার্ট মঞ্চের পাশের কয়েকটি স্থানে অগ্নি সংযোগ করেছে ছাত্রলীগ। ভাংচুর ও অগ্নিকাণ্ডের পেছনে ছাত্রলীগের সভাপতির গ্রুপের সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) দিবাগত রাত একটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত, হল থেকে ছাত্রলীগের বিভিন্ন হলের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে উপস্থিত হচ্ছেন।
 
ঘটনাস্থল পরিদর্শনে উপস্থিত আছেন ডাকসুর জিএস ও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, ডাকসুর এজিএস ও ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনসহ ডাকসুর নেতৃবৃন্দ।
 
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Apr/13/1555101188566.jpg
 
অনুষ্ঠানে আয়োজকদের কর্মচারী দিদারুল আলম বার্তা২৪.কমকে বলেন, 'রাত ১টার দিকে বেশ কয়েকজন এসে ভাংচুর শুরু করে ব্যানারগুলোতে আগুন ধরিয়ে দেয়। কারা এল, কেন এল কিছু জানিনা'।
 
ছাত্রলীগের একাধিক সূত্রে জানা গেছে, কেন্দ্রের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগ অভ্যন্তরীণ কোন্দল কিছুদিন যাবত চরমে আছে। পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগ সভাপতিকে অবজ্ঞা করছে বাকী তিন নেতা, এমন অভিযোগ আছে কিছু নেতা-কর্মীদের মাঝে। সেখান থেকেই সভাপতি অনুসারীদের ক্ষোভের চূড়ান্ত রূপ দেখা গেলো রাতের তাণ্ডবে।
 
নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বার্তা২৪.কমকে জানায়, হামলার ঘটনায় অংশ নেওয়া বেশিরভাগই সভাপতির কর্মী সমর্থক। আর তাদের ক্ষোভের পেছনে আছে অবজ্ঞা ও অর্থ ভাগবাটোয়ারার দ্বন্দ্ব।
 

ঢাবির মল চত্বর এলাকা সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, কনসার্ট আয়োজদের সামগ্রী, স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের ব্যানার ফেস্টুন ছেড়া ফাটা, নির্মাণ সামগ্রী বাঁশ-কাঠ ভাঙ্গা, কোথাও আগুনে পুড়ে কয়লা হয়ে আছে। অন্যদিকে ঢাবির বিভিন্ন হল থেকে রাব্বানী, সনজিত ও সাদ্দামের কর্মী সমর্থকরা মল চত্বরে মিছিল নিয়ে এসে উপস্থিত হচ্ছেন।

সর্বশেষ খবর পর্যন্ত, ওই এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। বৈশাখী কনসার্টও এখন অনিশ্চিত। এদিকে ঘটনা সম্পর্কে জানার জন্য শোভন, রাব্বানী, সনজিৎ ও সাদ্দামকে মোবাইলে কয়েকবার কল দেয়া হলেও তারা কেউ সাড়া দেননি। তবে ডাকসুর সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও জহু হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসিফ তালুকদার বার্তা২৪.কমকে বলেন, 'মল চত্বরে একটু সমস্যা হয়েছে, আমরা বিষয়টা দেখছি'।

আপনার মতামত লিখুন :