Barta24

রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

English

কোটি টাকার সার আত্মসাতে প্রকৌশলীসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট

কোটি টাকার সার আত্মসাতে প্রকৌশলীসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট
ছবিঃ সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪ডটকম


  • Font increase
  • Font Decrease

১১ কোটি ৩ লাখ ৩৪ হাজার ৪০১ টাকা মূল্যের ইউরিয়া সার আত্মসাতের অভিযোগে বগুড়ার সান্তাহার বাফার গুদামের সাবেক উপ-প্রধান প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) ও গুদাম ইনচার্জ মো. নবির উদ্দিন খানসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (১৫ এপ্রিল)  দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বার্তা২৪ ডটকমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

দুদক সুত্র জানায়, চার্জশিট ভুক্ত অন্য আসামিরা হলেন- মতিঝিলের মেসার্স সাউথ ডেল্টা শিপিং অ্যান্ড ট্রেডিং লিমিটেডের নির্বাহী পরিচালক মো. মশিউর রহমান খান এবং  প্রো. মেসার্স রাজা এন্টারপ্রাইজের মো. রাশেদুল ইসলাম রাজা। 

এর আগে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে  দুদকের বগুড়ার সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আমিনুল ইসলাম  তদন্ত কর্মকর্তা হিসাবে  ২০১৭ সালের ২রা অক্টোবর আদমদীঘি (বগুড়া) থানা মামলা করেন। 

তদন্তে দেখা যায়, পরস্পর যোগসাজশে অসৎ উদ্দেশ্যে ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে জাল জালিয়াতি ও প্রতারণামূলকভাবে মোট ১১ কোটি ৩ লাখ ৩৪ হাজার ৪০১ টাকার মূল্যের ইউরিয়া সার আত্মসাৎ করে অভিযুক্তরা 

আপনার মতামত লিখুন :

বরিশাল লঞ্চঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়

বরিশাল লঞ্চঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়
বরিশাল লঞ্চঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়, ছবি:; বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

পবিত্র ঈদুল আজহা পালন শেষে রাজধানী শহর ঢাকার উদ্দেশে বরিশাল ছাড়ছেন কয়েক লাখ মানুষ।

শনিবার (১৭ আগস্ট) বরিশাল নৌবন্দরে ঢাকামুখী যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। দুপুর থেকেই বরিশালের বিভিন্ন জায়গা থেকে আসা লঞ্চ যাত্রীরা ভিড় করছে নোঙর করা লঞ্চগুলোতে।

বিকেল শেষ না হতেই লঞ্চের ডেক থেকে শুরু করে প্রথম শ্রেণীর কেবিনের বারান্দার কানায় কানায়ও পরিপূর্ণ হয়ে যায়। যার কারণে, বিআইডব্লিউটিএর নির্দেশে নৌ দুর্ঘটনা ও অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই অপরাধ এড়াতে অন্যান্য দিনের চাইতে ২/১ ঘণ্টা আগেই বরিশাল লঞ্চঘাট ছাড়ে কয়েকটি বিলাসবহুল লঞ্চ।

গত শুক্রবারও ছিল যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়। ওই দিনেও নির্ধারিত সময়ের এক ঘণ্টা আগেই বরিশাল নদীবন্দর ছেড়েছিল ঢাকাগামী বিলাশ বহুল কয়েকটি লঞ্চ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/18/1566075739275.JPG

বিআইডব্লিউটিএ’র বরিশালের নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের উপ-পরিচালক আজমল হুদা মিঠু সরকার বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘কোরবানির ছুটি শেষে স্ব স্ব কর্মস্থলে যোগ দিতে বরিশাল ছাড়ছে কয়েক লাখ মানুষ। কোরবানির দ্বিতীয় দিন থেকে ঢাকার উদ্দেশে লঞ্চযোগে বরিশাল নৌ বন্দর থেকে যাচ্ছে লঞ্চযাত্রীরা। তবে কয়েকদিনের চেয়ে শুক্রবার ও শনিবার যাত্রী চাপ অনেকটা বেশি ছিল।

তিনি আরেও জানান, অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই নিয়ে বরিশাল লঞ্চঘাট থেকে কোনো লঞ্চই ছাড়তে দেওয়া হচ্ছে না। বিশেষ করে লোড লাইন দেখে নির্ধারিত সময়ের আগেই লঞ্চগুলোকে ঘাট ত্যাগ করতে নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া ঝুঁকি নিয়ে লঞ্চে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করতে নিষেধ করা হচ্ছে। একই সাথে প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিদিনই মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে।

যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড়ের একই চিত্র লক্ষ্য করা গেছে সরকারি জাহাজগুলোতেও। লঞ্চযাত্রীদের নির্বিঘ্নে যাতায়াতের জন্য গত ৮ আগস্ট থেকে শুরু হয়েছে স্পেশাল লঞ্চ সার্ভিস। থাকছে ২০ আগস্ট পর্যন্ত। এর আওতায় পাঁচটি সরকারি জাহাজসহ ব্যক্তি মালিকানা ২০টি বিলাসবহুল লঞ্চ যাতায়াত করছে।

ছিনতাইয়ে ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্র রাব্বীকে কুপিয়ে হত্যা

ছিনতাইয়ে ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্র রাব্বীকে কুপিয়ে হত্যা
ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে নিহত কলেজছাত্র ফারদিন ইসনা আশারিয়া রাব্বী/ ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহী সিটি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী ফারদিন ইসনা আশারিয়া রাব্বীকে (১৯) হত্যার কথা স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন গ্রেফতারকৃত যুবলীগ কর্মী রওনক (২৩)। শনিবার (১৭ আগস্ট) সন্ধ্যায় রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে জানান, শনিবার বিকালে রাজশাহী মহানগর মুখ্য হাকিম আদালতের বিচারক সেলিম রেজার আদালতে তার জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়। তার জবানবন্দি অনুযায়ী হত্যাকাণ্ডে তিনি একাই অংশ নিয়েছিলেন। মাদকের অর্থ যোগাড় করতে রওনক ছিনতাই করতেন।

আরএমপি’র মুখপাত্র গোলাম রুহুল কুদ্দুস বলেন, আদালতে ঘাতক রওনক জানান- মাদকের টাকা জোগাড় করতে গত ৬ আগস্ট ভোরে উঠে রাস্তার ধারে ওঁৎপেতে ছিলেন তিনি। বাড়ি ফেরার জন্য স্টেশনে ট্রেন ধরতে ভোরে মেস থেকে বের হন রাজশাহী সিটি কলেজের ছাত্র ফারদিন আশারিয়া রাব্বী। ঐ সময় ‘আমরু কনফেকশনারী’ এর কাছাকাছি গেলে রওনক ধারালে অস্ত্র দেখিয়ে কলেজছাত্র রাব্বীকে ভয় দেখিয়ে মোবাইল ও মানিব্যাগ দিয়ে দিতে বলে।

রওনক আদালতে আরও জানান, তবে রাব্বী তাকে কৌশলে মাটিতে ফেলে দিয়ে চিৎকার শুরু করলে ধরা পড়ে যাওয়ার ভয়ে রওনক রাব্বীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে পেছন দিক থেকে কোপ দেয়। এতে প্রচণ্ড রক্তক্ষরণ শুরু হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে মানিব্যাগ ও মোবাইল না নিয়েই দ্রুত পালিয়ে যায় ঘাতক রওনক।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/17/1566060037670.gif
ছিনতাইকরা রওনক/ ছবি: সংগৃহীত

 

স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে রওনক আদালতে আরও জানান, তিনি আগে থেকে রাব্বীকে চিনতেন না। নেশায় আসক্ত হওয়ায় তিনি যেকোনো উপায়ে কিছু টাকা যোগাড় করতে পথে ওঁৎ পেতে বসেছিলেন। ঐ সময় রাব্বীকে পেয়ে তার ওপর হামলা করেন।

জানা যায়, গত ৬ আগস্ট ভোরে ঈদের ছুটিতে বাড়িতে যাওয়ার জন্য বের হয়ে রাস্তায় খুন হন কলেজছাত্র ফারদিন আশারিয়া রাব্বী। তার বাড়ি দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর থানার মমিনপুর গ্রামে। ঘটনার একদিন পর ৮ আগস্ট পুলিশ সন্দেহভাজন হত্যাকারী হিসেবে মাদকাসক্ত ও ছিনতাইকারী হিসেবে এলাকায় পরিচিত রওনককে গ্রেফতার করে।

রওনক রাজশাহীর মহানগরীর হেতেমখাঁ এলাকার মৃত কুদরত আলীর ছেলে। স্থানীয়রা তাকে যুবলীগের কর্মী হিসেবে চেনে। তিনি যুবলীগের বিভিন্ন মিছিল-মিটিংয়ে সক্রিয়ভাবে অংশ নেন। তবে যুবলীগ নেতারা দাবি করেছেন- মিছিল-মিটিংয়ে গেলেও রওনকের যুবলীগে কোন পদ-পদবি নেই।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র