‘ভেবেছিলাম ইভিএম অনেক কঠিন, কিন্তু না’

উবায়দুল হক, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ময়মনসিংহ
ভোট দিয়ে ফিরছেন কণা রাণী ও তার পরিবার। ছবি: বার্তা২৪.কম

ভোট দিয়ে ফিরছেন কণা রাণী ও তার পরিবার। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

জীবনে অনেকবারই ভোট দিয়েছেন কণা রাণী দে (৬৫)। কিন্তু এবারই প্রথম ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দিলেন। ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়ানোর বিরক্তি না থাকায় স্বল্প সময়েই ভোট দিতে পেরে খুশি তিনি। অভিজ্ঞতা জানিয়ে বললেন, ‘ভেবেছিলাম ইভিএম অনেক কঠিন। কিন্তু না, এরচেয়ে সহজ আর কিছু হতে পারে না। নিজের ভোট নিজেই দিয়েছি।’

রোববার (০৫ মে) সকালে ময়মনসিংহ নগরীর রাধা সুন্দরী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে কথা হয় এই প্রবীণ ভোটারের সঙ্গে। ছেলের বউ ও মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে নিজের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে এসেছেন তিনি। যোগ্য প্রার্থী বাছাই করে ভোটও দিয়েছেন।

কণার মেয়ে রীতা রাণী বলেন, ‘নিজেকে অনেক সৌভাগ্যবান মনে হচ্ছে। সিলমারা ভোটের দিন শেষ। ডিজিটাল পদ্ধতি চালু হলো আর নিজের প্রথম ভোটটি দিলাম। এই ভোটে স্বচ্ছতা রয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/05/1557036662727.gif

নগরীর মৃত্যুঞ্জয়ী স্কুলে ইভিএমে ভোট দিতে পেরে নিজের সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন রুমানা হক নামে এক নারী ভোটার। তিনি বলেন, ‘ইভিএমে কবে ভোট দেব এ নিয়ে অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় ছিলাম। অবশেষে মনের আশা পূরণ হলো।’

ইভিএমে প্রথম ভোট দিতে পেরে উচ্ছ্বসিত ৭ নং ওয়ার্ডের তরুণ ভোটার ইব্রাহিম খলিল। তিনি বলেন, ‘কোনো ধরনের ঝামেলা ছাড়াই খুব তাড়াতাড়ি ভোট দিলাম। দ্রুত ভোট নেওয়ার ফলে লাইনেও বেশি সময় দাঁড়াতে হয় না। কারচুপি করারও কোনো সুযোগ নেই।’

রৌদ্রজ্জ্বল আবহাওয়ার মধ্য দিয়ে রোববার (০৫ মে) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন (মসিক) নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। সকালের শুরুতে ভোটকেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি খুব একটা না থাকলেও সময় গড়াতেই ভোটকেন্দ্রমুখী হচ্ছে সাধারণ ভোটাররা। এর মধ্যে নারী ভোটারদের উপস্থিতিই বেশি।

ভোটের আগেই প্রতিদ্বন্দ্বী কোনো প্রার্থী না থাকায় ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের (মসিক) মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইকরামুল হক টিটু। নগরীর ৩৩টি ওয়ার্ডে সাধারণ ও সংরক্ষিত আসন মিলিয়ে ৩১২টি কাউন্সিলর পদে ভোটগ্রহণ চলছে। এ নির্বাচনে ভোট দিচ্ছে ২ লাখ ৯৬ হাজার ৯৩৮ জন ভোটার।

আপনার মতামত লিখুন :