Barta24

মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

রাজশাহীর ৩ রেস্তোরাঁর পৌনে ৪ লাখ টাকা জরিমানা

রাজশাহীর ৩ রেস্তোরাঁর পৌনে ৪ লাখ টাকা জরিমানা
জরিমানাপ্রাপ্ত রেস্তোরাঁগুলোর একটিতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার প্রস্তুত করার দৃশ্য মোবাইল ফোনে ধারণ করছেন ম্যাজিস্ট্রেট/ ছবি: বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
রাজশাহী


  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহী মহনগরীর তিন নামি রেস্তোরাঁয় ভ্রাম্যমাণ আদালত পারিচালনা করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। বৃহস্পতিবার (৯ মে) দুপুর ২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয়।

অভিযানে মহানগরীর সিঅ্যান্ডবি মোড়ের ‘নানকিং চাইনিজ রেস্টুরেন্ট’ কর্তৃপক্ষকে দুই লাখ টাকা, লক্ষ্মীপুর মোড়ে অবস্থিত ‘রাজ ক্যাফে’র এক লাখ টাকা ও ‘হোটেল তৃপ্তি’র মালিককে ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/09/1557420565774.jpg

র‌্যাব সূত্র জানায়, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার প্রস্তুত করা, রান্নার কাঁচামাল পচা ও বাসিসহ রেস্তোরাঁগুলোর পরিবেশ নোংরা থাকায় ভোক্তার অধিকার আইনে তাদের এই অর্থদণ্ড করা হয়। একই সঙ্গে রেস্তোরাঁগুলোর মান ‍উন্নয়নে কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. নিজামউদ্দিন। তিনি জানান, পবিত্র রমজান মাসে ভোক্তাদের কথা মাথায় রেখে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। সেখানে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ, পঁচা-বাসি খাবার পরিবেশনসহ বেশ কয়েকটি সুনির্দিষ্ট অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় কর্তৃপক্ষকে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘জরিমানা করার কারণগুলো তাদেরকে স্পষ্টভাবে বুঝিয়ে দিয়ে এসেছি। আগামীতে তাদেরকে এসব সমস্যা সমাধান করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যদি তারা তা না মানেন, তবে আরও কঠোর শাস্তি দেওয়া হবে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/09/1557420589071.jpg

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানের সময় সরেজমিনে দেখা যায়, মহানগরীর নামকরা এসব রেস্তোরাঁর রান্নাঘরে তেলাপোকা ও ইুঁদর ছুটে বেড়াচ্ছে। সেখানেই খোলা অবস্থায় খাবার রাখা হয়েছে। ফ্রিজের মাছ-মাংস বহুদিনের পুরনো ও পচা। ফ্রিজগুলো পরিষ্কার না করায় নোংরা হয়ে আছে।

র‌্যাব-৫ রাজশাহীর কোম্পানি কমান্ডার মাইনুল ইসলাম বলেন, ‘মহানগরীতে অভিযান চালিয়ে যে দৃশ্য দেখেছি, তা ভয়াবহ। প্রায় প্রত্যেকটি রেস্তোরাঁয় রান্নাঘর, ফ্রিজসহ খাবার তৈরিতে ব্যবহৃত কাঁচামাল বাসি ও পচা। স্বাস্থ্যকর রান্নার পরিবেশও নেই সেখানে। আগামী দিনেও মহানগরবাসীর অভিযোগের বিষয়ে খেয়াল রাখা হবে।’

আপনার মতামত লিখুন :

গণপিটুনিতে নিহত প্রতিবন্ধীর পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার দাবি

গণপিটুনিতে নিহত প্রতিবন্ধীর পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার দাবি
জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উপর নির্যাতন ও সহিংসতার প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধন/ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

গণপিটুনিতে নিহত প্রতিবন্ধী ব্যক্তির পরিবারকে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ ও আহতদের চিকিৎসা দেওয়ার দাবি জানিয়েছে প্রতিবন্ধী নাগরিক ঐক্য।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উপর নির্যাতন ও সহিংসতার প্রতিবাদে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এসব দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে উপস্থিত বক্তারা দাবি করেন, 'তথাকথিত 'ছেলেধরা' সন্দেহে ঢাকাসহ ৮ জেলায় মোট ১৫ জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে। এর মধ্যে দুজন নিহত হন। হতাহত প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মাঝে ৮ জন পুরুষ, ৭ জন নারী প্রতিবন্ধী। ১৫ জন প্রতিবন্ধীর মধ্যে ১৪ জন মানসিকভাবে অসুস্থ, একজন বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী ছিলেন।

বক্তারা বলেন, দেশে মোট জনসংখ্যার ১৬ ভাগ প্রতিবন্ধী ব্যক্তি। কিন্তু সুযোগ সুবিধার ক্ষেত্রে দশমিক এক ভাগও পায় না। কিন্তু গত কয়েকদিনে গণপিটুনির নামে হতাহত জনসংখ্যা ৬০ ভাগ এর অধিক ভিকটিম হলাম আমরা। আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা অত্যন্ত করুণ। আমাদের প্রতিরোধ ক্ষমতা নেই বলেই এত নির্যাতনের শিকার হতে হচ্ছে।

গণপিটুনিতে নিহত ব্যক্তির পরিবারকে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। এবং আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসা প্রদান ও প্রত্যেককে ২০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থাগ্রহণ ও দ্রুত নিষ্পত্তির মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করতে হবে। যেহেতু প্রতিবন্ধী ব্যক্তিগণ সহজে আক্রমণের শিকার হয়ে থাকেন সেহেতু তাদের সুরক্ষার জন্য নির্যাতন বিরোধী কোনও আইন প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করতে হবে।

মানববন্ধনে দেশের বিভিন্ন জেলার প্রায় ৫০ জন প্রতিবন্ধীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

 

বাড্ডার ঘটনায় সবাইকে শনাক্ত করে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বাড্ডার ঘটনায় সবাইকে শনাক্ত করে ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ব্রফিংয়ে বক্তব্য দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

রাজধানীর বাড্ডায় গণপিটুনিতে তাছলিমা বেগম রেনু (২৫) হত্যার ঘটনায় সবাইকে শনাক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) দুপুরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সমসাময়িক বিষয়ে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘কেউ যেন অহেতুক সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে উত্তেজিত না হয়। তারা যেন ঘটনাটা জানতে চেষ্টা করে, বুঝতে চেষ্টা করে। এটাতো একটা বোঝার ব্যাপার আছে। তবে যারাই এঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ ঘটনায় আমরা আজ সবাই ব্যথিত। এ ধরনের ঘটনা যেন আর না ঘটে, এজন্য সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।’

আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘ফেসবুকে যারা এ ধরনের গুজব ছড়িয়ে দিচ্ছে, আমাদের পুলিশ কিন্তু বসে থাকবে না। যারা এসব ঘটনার প্রচারণা করবেন তাদেরকেও শনাক্ত করব এবং তাদেরকেও আইনের মুখোমুখি করব। আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে এত অদক্ষ ভাববেন না। আপনারা উদ্দেশ্যমূলকভাবে প্রচারণা করবেন আর আমরা বসে থাকব, এটা আশা করববেন না।’

তিনি বলেন, ‘আমরা প্রত্যেক জেলার ডিসি এসপিদেরকে জানিয়ে দিয়েছি। তারা যেন এসব গুজবের বিষয়ে সতর্ক থাকে এবং সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করে।’

উল্লেখ্য, গত শনিবার (১৯ জুলাই) ছেলে ধরা সন্দেহে বাড্ডায় গণপিটুনিতে ওই নারীকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় পরদিন নিহতের বোনের ছেলে নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় একটি হত্যা মামলা করেছেন।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র