সিলেটে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, সিলেট
ইন্টার্ন নারী চিকিৎসককে ছাত্রলীগ নেতার ধর্ষণের হুমকি ও লাঞ্ছনার ঘটনায় কর্মবিরতিতে নেমেছেন নারী ইন্টার্ন চিকিৎসকরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

ইন্টার্ন নারী চিকিৎসককে ছাত্রলীগ নেতার ধর্ষণের হুমকি ও লাঞ্ছনার ঘটনায় কর্মবিরতিতে নেমেছেন নারী ইন্টার্ন চিকিৎসকরা, ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজে ইন্টার্ন নারী চিকিৎসককে ছাত্রলীগ নেতার ধর্ষণের হুমকি ও লাঞ্ছনার ঘটনায় কর্মবিরতিতে নেমেছেন নারী ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। শনিবার (১১ মে) দুপুর সাড়ে ১২ টা থেকে চিকিৎসকরা সেবা কার্যক্রম বন্ধ রেখে কলেজের মূল ফটকে অবস্থান নেন। এ সময় ছাত্রলীগ নেতা সারোয়ারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিও জানান আন্দোলনরত চিকিৎসকরা। 

বৃহস্পতিবার (৯ মে) দুপুরে হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগে শিক্ষানবিশ নারী চিকিৎসককে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজের পাশাপাশি অস্ত্র উঁচিয়ে হত্যা এবং ধর্ষণের হুমকি দেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সারোয়ার হোসেন। এ ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়ে। পাশাপাশি লাঞ্ছনার শিকার ওই চিকিৎসক ফেসবুকে একটি আবেগঘন স্ট্যাটাস দেন। এ ঘটনায় তোলপাড় শুরু হয়। এছাড়া ওইদিন রাতে চিকিৎসকরা আন্দোলনে নামেন। পরে কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে তারা আন্দোলন থেকে সরে আসে। 

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/11/1557566890121.jpg

শনিবার আন্দোলন চলাকালে সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের সার্জারি বিভাগের ডা. মো. ইশফাক জামান জানান, সিলেটের সবকটা মেডিকেল কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা তাদের আন্দোলনে একাত্মতা পোষণ করেছেন। এমনকি বিএমএ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে তাদের আলোচনা চলছে। আগামীকাল রোববার (১২ মে) সবাই সম্মিলিতভাবে আন্দোলনে নামবেন।

এছাড়া সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা কলেজের গেইটে ছাত্রলীগ নেতা সারোয়ারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন।

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) জেদান আল মুসা জানান, বিষয়টি তাদের নজরে এসেছে। পুলিশ ঘটনা পর্যবেক্ষণ করছে। পুলিশের পক্ষ থেকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অভিযোগ দিলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে পুলিশ যথাযথ ব্যবস্থা নেবে। 

আপনার মতামত লিখুন :