Barta24

মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

সীমানা জটিলতার নিষ্পত্তি, পবা উপজেলায় ভোট ১৮ জুন

সীমানা জটিলতার নিষ্পত্তি, পবা উপজেলায় ভোট ১৮ জুন
ছবি: সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
রাজশাহী


  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহীর পবা উপজেলার সীমানা জটিলতার অভিযোগ এনে করা রিট খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট। ফলে নির্বাচন স্থগিত রাখার যে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল, তা প্রত্যাহার করা হয়েছে। একই সঙ্গে সুনির্দিষ্ট তথ্য ছাড়াই রিট করে নির্বাচন বিলম্ব করায় রিটকারীকে ১ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন বিচারক।

রাজশাহী আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম সোমবার (১৩ মে) দুপুরে বার্তা২৪.কমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আদালতের স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার হওয়ায় পবা উপজেলা নির্বাচনে তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। তফসিল অনুযায়ী- পঞ্চম ধাপে আগামী ১৮ জুন দেশের অন্য ১৬টি উপজেলার মতো পবা উপজেলাতেও ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে মনোনয়পত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ২১ মে। মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাই হবে ২৩ মে এবং প্রত্যাহারের শেষ দিন ৩০ মে।

জানা যায়, পবায় সবশেষ ২০১৪ সালের উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন জামায়াত নেতা মকবুল হোসাইন। ভাইস-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা আশরাফুল হক তোতা ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হন জামায়াতের নারী নেত্রী খায়রুন নেছা।

২০১৫ সালের মাঝামাঝি সময়ে চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা মকবুল হোসাইন মারা যান। এর তিন মাস পর উপজেলায় উপ-নির্বাচনের তফলিস ঘোষণা করা হয়। তবে সীমানা জটিলতার অভিযোগ এনে ২০১৫ সালের ডিসেম্বরে হাইকোর্টে রিট করেন পারিলা ইউনিয়নের ডাংগীরপাড়া গ্রামের মৃত ইব্রাহীম হোসেনের ছেলে ফজলুল বারী।

ফলে ভোটের দু’দিন আগে তা স্থগিতের আদেশ দেন আদালত। পরে ওই রিট খারিজ হয়ে যায়। ২০১৯ সালে পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনে প্রথম ধাপে গত ১০ মার্চ উপজেলায় ভোটগ্রহণের কথা ছিল। তবে ফের ওই ফজলুল বারী সীমানা জটিলতার অভিযোগ এনে রিট করেন। ফলে এক বছরের জন্য নির্বাচন স্থগিত করা হয়।

পরে নৌকা প্রতীকে মনোনীত প্রার্থী মনসুর রহমান স্থগিতাদেশ তুলে নিতে আদালতে আবেদন করেন। ওই আবেদনের শুনানি শেষে সাম্প্রতি নির্বাচনের স্থগিতাদেশ তুলে নেন আদালত।

আপনার মতামত লিখুন :

এরশাদের কবর জিয়ারতে পল্লী নিবাসে ঢাকা উত্তরের নেতারা

এরশাদের কবর জিয়ারতে পল্লী নিবাসে ঢাকা উত্তরের নেতারা
রংপুর পল্লীনিবাসে এরশাদের কবর জিয়ারতে ঢাকা উত্তরের নেতারা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

সাবেক রাষ্ট্রপতি ও সাবেক জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান সদ্য প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের কবর জিয়ারত করেছেন দলের ঢাকা মহানগর উত্তরের নেতৃবৃন্দরা।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) দুপুরে রংপুরের পল্লী নিবাসে কবরের পাশে দাঁড়িয়ে তার মাগফিরাত কামনা করে জিয়ারত করা হয়।

এর আগে ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ফয়সাল চিশতির নেতৃত্বে এরশাদের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে এক মিনিট নীরবতা পালন করেন নেতাকর্মীরা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563874553061.jpg

এ সময় আরও অউপস্থিত ছিলেন, পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য শফিকুল ইসলাম সেন্টু, সুনীল শুভরায়, কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক মুন্সি আব্দুল বারী, কার্য্যনির্বাহি সদস্য শাফিউল ইসলাম শাফিসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতাকর্মীরা।

রংপুরের মানুষের ভালোবাসার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি ফয়সাল চিশতি বলেন, ‘বিশ্ববাসী দেখেছে বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপ্রধানকে সাধারণ জনগণ কত ভালোবাসে। রংপুরবাসী স্যারের (এরশাদের) জন্য যা করেছে, তা ভোলার জন্য। ভালোবাসার জয় হয়েছে।'

সংস্কারে ধীরগতি, শাহজাহানপুর-খিলগাঁও সড়কে ভোগা‌ন্তি

সংস্কারে ধীরগতি, শাহজাহানপুর-খিলগাঁও সড়কে ভোগা‌ন্তি
শাহজানপুরে প্রায় চার মাস ধরে চলছে রাস্তার সংস্কার কাজ, ভোগান্তিতে চলাচলকারীরা/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

রাজধানীর দ‌ক্ষিণ শাহজাহানপুর-খিলগাঁও সড়কে দীর্ঘ‌দিন যাবত মেরামতের কাজ চলছে ধীর গাতিতে। ঢি‌লেঢালা কাজের গ‌তি মানু‌ষের ভোগা‌ন্তি বা‌ড়ি‌য়ে দি‌য়ে‌ছে বলে অ‌ভি‌যোগ স্থানীয়‌দের। তা‌দের দা‌বি, ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের কাজে ধীরগতি এই এলাকার মানুষের জন্য দুর্ভোগ আরও বাড়াচ্ছে।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) শাহজাহানপু‌রে স‌রেজ‌মি‌নে দেখা যায়, ম‌তি‌ঝিল সরকা‌রি বালক উচ্চ‌ বিদ্যালয় থে‌কে খিলগাঁও রেল‌গেট সং‌যোগ সড়ক পর্যন্ত তীব্র যানজট। এই সড়‌কে স্কুল-ক‌লেজ পড়ুয়া যাতায়াতকারী বে‌শি। ভাঙা রাস্তায় চলাচ‌লে ভোগা‌ন্তির অ‌ভি‌যোগ চলাচলকারীদের মু‌খে মুখে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563873696840.gif

শাহজানপু‌রের স্থানীয় বা‌সিন্দা শওকত আলম ব‌লেন, ‘এ রাস্তাটা কে‌টে রাখা হ‌য়ে‌ছে রোজার শুরুর দি‌কে। আর এখনও এভা‌বেই আ‌ছে। গত ক‌য়েক‌দিনে একটু আধটু ক‌রে চল‌ছে এ সড়‌কের কাজ। রাজধানীর বু‌কে একটা সড়‌কের কাজ শেষ কর‌তে এত‌দিন সময় নি‌লে মানুষ চল‌বে কিভাবে?’

বাচ্চা‌কে নি‌য়ে স্কু‌লে আসা এক মা বার্তা‌টো‌য়ে‌ন্টি‌ফোর.কম-কে ব‌লেন, ‘আমা‌দের অনেক কষ্ট হয়। বি‌শেষ ক‌রে যখন বৃ‌ষ্টি হয়, তখন বৃ‌ষ্টির পা‌নি জ‌মে শুরু হয় জলাবদ্ধতা। বাচ্চা‌দের নি‌য়ে চলাচল করা ক‌ঠিন হ‌য়ে প‌ড়ে।’

রাস্তার এমন বেহাল দশায় বিপাকে পড়ে‌ছেন এ এলাকার ব্যবসায়ীরাও। দ‌ক্ষিণ শাহজাহানপুর থে‌কে শাহজাহানপুর থানাগামী এক‌টি সং‌যোগ সড়ক মেরাম‌তের না‌মে অকেজো হ‌য়ে প‌ড়ে আছে অন্তত তিন মাস। মানু‌ষের চলাচল কম থাকায় ব্যবসায় প‌ড়ে‌ছে ভাটা। সারা‌দি‌নের ব্যবসায় সংসার চালা‌নো ক‌ঠিন হ‌য়ে গে‌ছে এ এলাকার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী‌দের।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563873712725.gif

মোটর যন্ত্রাংশ বি‌ক্রেতা খাইরুল আলম বার্তা‌টো‌য়ে‌ন্টি‌ফোর.কম-কে ব‌লেন, ‘চার মাস ধ‌রে এ রাস্তা সংস্কারের কারণে বিপ‌দের মধ্যে আছি। রাস্তার এ অবস্থায় রোজার সময় ঠিকঠাক ব্যবসা হয়‌নি। আবার কোরবা‌নির ঈদ চ‌লে আস‌ছে। প‌রিবার নি‌য়ে ঈদের কী হ‌বে, ভ‌য়ে আছি।’

সংস্কার কাজের দায়িত্বপ্রাপ্ত ঠিকাদা‌রি প্র‌তিষ্ঠান ভুঁইয়া এন্ড কোং এর সুপারভাইজার শ‌রিফুল ব‌লেন, ‘প্র‌তি‌দিন ১০০’রও বে‌শি মানুষ কাজ কর‌ছে। আশা ক‌রি আগামী দুই সপ্তা‌হের ম‌ধ্যে পু‌রো কাজ শেষ ক‌রে ফেল‌তে পার‌বে।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র