থানার ওসি পদে পুলিশ ক্যাডার পদায়নের সুপারিশ দুদকের



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪

ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

বর্তমানে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস বা বিসিএস দিয়ে যারা অফিসার পদে নিয়োগ পাচ্ছেন এবং ভবিষ্যতেও যারা অফিসার নিয়োগ পাবেন তাদের অধিকাংশই সৎ। তাই দেশের সব থানায় অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) হিসাবে পুলিশ ক্যাডার নিয়োগের সুপারিশ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (১৩ মে) বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের কাছে বার্ষিক প্রতিবেদন জমা দেওয়ার পর সাংবাদিকদের তিনি এই সুপারিশের কথা জানান দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ।

ব্যাংক খাতে যারা অবৈধভাবে ঋণ মঞ্জুর করছেন তাদের সংশোধন হওয়ার পরামর্শ দেন দুদক চেয়ারম্যান। বলেন, আপনারা এখনই সংশোধন না হলে সামনে আপনাদের জন্য কঠিন দিন অপেক্ষা করছে। তবে যারা নিয়ম মেনে ঋণ গ্রহণ করবে তাদের ক্ষেত্রে দুদক কখনো হস্তক্ষেপ করবে না।

প্রতিবেদন হস্তান্তরের পর রাষ্ট্রপতি কোনো পরামর্শ দিয়েছেন কি-না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে দুদক চেয়ারম্যান জানান, রাষ্ট্রপতি শিক্ষা এবং স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে চলা দুদকের অভিযানের প্রশংসা করেছেন। তবে তিনি শিক্ষা এবং স্বাস্থ্য খাত নিয়ে উদ্বিগ্ন। এসব খাতে যেন দুর্নীতি না থাকে সে ব্যাপারে সচেতন থাকার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

প্রতিবেদনে ২০১৮ সালে ১৬ হাজার ৬০৬টি মামলার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১২৬৫টি মামলা অনুসন্ধানের জন্য গ্রহণ করা হয়েছে।দুদকে মামলা ও চার্জশিটের সংখ্যা কমার পাশাপাশি সাজার হার কমেছে ৫ শতাংশ। ।

এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক ও কর্মকর্তা নিয়োগে মেধাবীদের প্রাধান্য দেওয়ার কথা, বাংলাদেশের সরকারি সব নিয়োগ সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) মাধ্যমে করা, সব মন্ত্রণালয়ে কার্য উন্নয়ন কমিটি গঠন এবং ভূমি ব্যবস্থাপনায় ভূমি সেবা মেলা করাসহ ভূমি সংক্রান্ত সব সেবা ডিজিটালাইজেশন করার কথা বলা হয়েছে।

এছাড়াও প্রতিবেদনে পাসপোর্ট করার ক্ষেত্রে গেজেটেড কর্মকর্তার ছবি সত্যায়ন প্রক্রিয়া বিলুপ্ত করা, পুলিশ ভেরিফিকেশন একটি নির্দিষ্ট সময়াবদ্ধ করে দেওয়া এবং পাসপোর্টের মেয়াদ ১০ বছর করাসহ প্রায় ১২০টি সুপারিশ করা হয়।