Alexa

ধানের দাম পুনঃনির্ধারণের দাবি বিএনপির

ধানের দাম পুনঃনির্ধারণের দাবি বিএনপির

ধানের দাম বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে বিএনপি, ছবি: বার্তা২৪.কম

খুলনায় কৃষক বাঁচাতে ধানের দাম পুনঃনির্ধারণ ও সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে ধান সংগ্রহের দাবি জানিয়েছেন খুলনা মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

বুধবার (১৫ মে) এক বিবৃতিতে বিএনপি নেতারা বলেন, 'আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু ধানের বাম্পার ফলন কৃষকের মুখে হাসি ফোটানোর পরিবর্তে তাদের গলার কাঁটায় পরিণত হয়েছে।'

ধান চাষ, সার-কীটনাশক প্রয়োগ, আগাছা পরিষ্কার করা, সেচ দেওয়া এবং সবশেষে ধান কাটার জন্য দিনমজুর সংগ্রহ করতে গিয়ে কৃষকের মণ প্রতি ব্যয় হচ্ছে হাজার টাকার ঊর্ধ্বে। অথচ সেই ধান পাইকারদের কাছে বিক্রি করতে হচ্ছে হচ্ছে পাঁচশ থেকে সাড়ে পাঁচশ টাকা দরে। সরকার প্রতি মণ ধানের দাম বেধে দিয়েছেন এক হাজার ৪০ টাকা।

ধানের দাম পুনঃনির্ধারণের দাবি বিএনপির

কিন্তু এই ধান সংগ্রহ করা হচ্ছে মিল মালিকদের কাছ থেকে। অর্থাৎ লাভ হচ্ছে মিল মালিক ও মধ্যসত্বভোগীদের। অথচ মাথার ঘাম পায়ে ফেলে, শত কষ্ট ক্লেশ স্বীকার করে মাঠে সোনার ফসল ফলাচ্ছেন যে কৃষক, লোকসানের বোঝা টেনে হতদরিদ্র হতে হচ্ছে তাকে। গণমাধ্যমের খবরে জানা গেছে, ক্ষোভে কৃষক খেতের ধান আগুনে পুড়িয়ে দিচ্ছে। কেউ আবার ধান না কেটে মাঠেই ফেলে রাখছে। এ পরিস্থিতিতে কৃষককে বাঁচাতে ধানের দাম পুনঃনির্ধারণ এবং তা সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে সংগ্রহের দাবি জানানো হয়েছে।

ধানের দাম পুনঃনির্ধারণের দাবি বিএনপির

বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'প্রতি বছর কৃষকের ঘরের ধান শেষ হলে সরকারিভাবে ধান কেনা শুরু হয়। এতে করে কৃষকরা কোনভাবে লাভবান হতে পারেন না। সরকারিভাবে শিগগিরই ধান-চাল ক্রয় শুরু করা না গেলে এই অচলাবস্থা থেকে বের হওয়া সম্ভব নয়। এজন্য দ্রুত সরকারিভাবে ধান-চাল কেনার ব্যবস্থা করতে হবে।'

বিবৃতিদাতারা হলেন- বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এম নুরুল ইসলাম দাদু ভাই, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, কাজী সেকেন্দার আলী ডালিম প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :