১৮১৮ অবৈধ ভবনের তালিকা প্রকাশ করবে রাজউক

শাহজাহান মোল্লা, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

অবশেষে আলোর মুখ দেখতে যাচ্ছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) তদন্ত রিপোর্ট। যদিও বেঁধে দেওয়া সময় পার হয়ে একমাস অতিবাহিত হতে যাচ্ছে।

গত ৩১ মার্চ রাজউক অডিটোরিয়ামে এক অনুষ্ঠানে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম ১৫ দিনের মধ্যে রাজধানীর সকল অবৈধ ভবন মালিকদের তালিকা গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছিলেন। রাজউকের নোটিশ বোর্ডে টাঙিয়ে দেওয়া হবে বলেও বলা হয়েছিল।

মন্ত্রী সেদিন বলেছিলেন, 'আমরা সেই সকল কালপ্রিটদের চেহারা উন্মোচন করতে চাই। আমরা দেখাতে চাই কারা বড় বড় কথা বলে অথচ তারা এই ধরনের অপরাধে লিপ্ত। এ লক্ষ্যে গত ১ এপ্রিল রাজউকের ২৪টি টিম মাঠে নামে।'

সেই টিম বহুতল ভবনগুলো নীতিমালা মেনে হয়েছে কিনা সেসব বিষয়ে খতিয়ে দেখতে মাঠে নামে। ওই টিমগুলোর তদন্তে বেরিয়ে এসেছে এক হাজার ৮১৮টি ভবনের বিভিন্ন রকম ত্রুটি রয়েছে।

রাজউকের মাঠ পর্যায়ের রিপোর্টে বেরিয়ে এসেছে ওই এক হাজার ৮১৮টি ভবনের মধ্যে কোনো ভবনের সম্পূর্ণটাই অবৈধ, আবার কোনোটার আংশিক অবৈধ, কোনোটা আবার নিচের পার্কিংয়ের জায়গা দখল করে রাখা হয়েছে। এ সংক্রান্ত রিপোর্ট প্রকাশের পর ভবন মালিকদের সময় বেঁধে দেবে মন্ত্রণালয়। এরপর যারা নীতিমালার আওতায় না আসবে তাদের ভবন ভেঙে দেওয়া হবে।

আগামী সপ্তাহে এই রিপোর্ট প্রকাশ হতে পারে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'আমরা রিপোর্ট হাতে পেয়েছি। রিপোর্ট অ্যানালাইসিস করছি। আশাকরি দুই একদিনের মধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশ করতে পারব।'

আপনার মতামত লিখুন :