Barta24

বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

বরিশালে বাস শ্রমিকদের কাছে জিম্মি যাত্রীরা

বরিশালে বাস শ্রমিকদের কাছে জিম্মি যাত্রীরা
বরিশাল রুটের একটি বাস, ছবি: বার্তা২৪.কম
আব্দুস সালাম আরিফ
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
পটুয়াখালী


  • Font increase
  • Font Decrease

বরিশালে বাস শ্রমিকদের কাছে জিম্মি সাধারণ যাত্রীরা। অভিযোগ আছে, শেষ গন্তব্যের আগেই যাত্রীদের নামিয়ে দেওয়া হয়। যাত্রীরা প্রতিবাদ করলে তাদের সাথে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন বাস শ্রমিকরা।

গত ২০ মে দুপুর দেড়টার দিকে বরিশাল থেকে একটি অটোরিকশায় করে রূপাতলী বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা যায়, সড়কের ওপর দাঁড়িয়ে রাইজিং পরিবহনের শ্রমিকরা পটুয়াখালী-পটুয়াখালী বলে ডেকে যাত্রী তুলছে। গাড়ি কখন ছাড়বে- জানতে চাইলে পাশের কাউন্টার থেকে এক যুবক জানান ১টা ৫৫ মিনিটে। ভালো সিট আছে। তাড়াতাড়ি টিকিট নেন। সাথে সাথে আমি তিনটি টিকিট নিলাম।

বরিশাল থেকে ১টা ৫৮ মিনিটে পরিবহনটি পটুয়াখালীর উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে। গাড়িতে ওঠার আগে ব্যাগগুলো বাসের বাঙ্কারে রাখলাম। তবে বাসের একটি সিট থেকে অরেকটি সিটের দূরত্ব খুবই কম। ফলে হাঁটু সোজা করে বসার উপায় নেই। বরিশাল থেকে রাইজিং পরিবহনের ঢাকা মেট্রো জ ১৪-২৭০৬ গাড়িটি ২টা ৪৭ মিনিটে লেবুখালী ফেরিঘাটের কাছাকাছি জায়গায় থামায়।

একটু পর লক্ষ্য করলাম বাসের হেলপার যাত্রীদের নামতে তাগাদা দিচ্ছেন। হেলপার জানালো, বাস আর যাবে না। পরে পটুয়াখালী কেন যাবে না- জানতে চেয়ে কয়েকজন যাত্রী প্রতিবাদ করলে বাস শ্রমিকরা জানান, বাস আর যাবে না। আপনারা অন্য বাসে চলে যান।

পরে বাস থেকে বাধ্য হয়ে নেমে ব্যাগগুলো নিয়ে হেলপারের সাথে কথা কাটাকাটি শুরু করে দিলেন কয়েকজন যাত্রী। এক পর্যায়ে তিনজন যাত্রীকে ২০ টাকা করে ফেরত দিল। পরে তারা ফেরি পার হয়ে অন্য একটি বাসে উঠে গন্তব্যে পৌঁছাল।

এদিকে, পটুয়াখালী ফিরতে ফিরতে বাসের ছবি দিয়ে ফেইসবুকে একটি পোস্ট দিলাম। পোস্টের কমেন্টে অনেকে জানালেন, বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়কে এই ভোগান্তি দীর্ঘদিনের। এই সড়কের পথে পথে যাত্রী হাত বদল হয়। বিশেষ করে বরিশালের যাত্রীদের পটুয়াখালীর লেবুখালী ও কুয়াকাটায় নেওয়ার কথা বলে চৌরাস্তায় নামিয়ে দেওয়া হয়। অনেক সময় কুয়াকাটার পরিবর্তে আমতলি কিংবা কলাপাড়া ব্রিজেও নামিয়ে দেয়া হয়। যদিও বরিশাল থেকে ছেড়ে আশা সব পরিবহনে বরিশাল- কুয়াকাটা লেখা থাকে। ফলে যাত্রীরা না বুঝেই পরিবহন শ্রমিকদের হাতে প্রতারিত ও লাঞ্ছিত হন।

এ বিষয়ে পটুয়াখালী ট্রাফিক ইন্সপেক্টর হেলাল উদ্দিন বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘যাত্রীদের সাথে এমন প্রতারণার বিষয়ে আমরা প্রায়ই অভিযোগ পাই। তাই এ বিষয়ে একটি সুষ্ঠু সমাধান বের করা প্রয়োজন।’

তবে এ বিষয়ে বক্তব্য জানতে পটুয়াখালী বাস মালিক সমিতির নেতাদের সাথে যোগাযোগ করা হলেও কেউ কথা বলতে রাজি হন নি।

আপনার মতামত লিখুন :

ঘাতক নয়নকে আটকাতে বরগুনার মোড়ে মোড়ে চেকপোস্ট

ঘাতক নয়নকে আটকাতে বরগুনার মোড়ে মোড়ে চেকপোস্ট
স্ত্রীর সামনে কুপিয়ে হত্যা করা হয় শরীফকে, ছবি: বার্তা২৪.কম

বরগুনায় স্ত্রীর সামনে স্বামী শাহ নেওয়াজ রিফাত শরীফকে (২৫) কুপিয়ে হত্যা করেছে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় পর থেকে ঘাতক নয়ন ও তার সহযোগীদের হন্যে হয়ে খুঁজছে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশের সদস্যরা।

পুলিশ বলছে, নয়ন যেন বরগুনা জেলার সীমানা থেকে বের হয়ে যেতে না পারে, সেজন্য রাস্তার মোড়ে মোড়ে পুলিশি চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।

বুধবার (২৬ জুন) দিনগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে বার্তা২৪.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন বরগুনা জেলার পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন।

আরও পড়ুন: আপ্রাণ চেষ্টা করেও স্বামীকে বাঁচাতে পারলেন না স্ত্রী



রাজধানীতে গড়ে উঠা সীসা বার উচ্ছেদের দাবি

রাজধানীতে গড়ে উঠা সীসা বার উচ্ছেদের দাবি
বিশ্ব মাদকবিরোধী দিবসে প্রেসক্লাবে মানববন্ধনে স্কুলছাত্ররা/ ছবি: বার্তা২৪.কম

মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস বা বিশ্ব মাদকবিরোধী দিবসে রাজধানী ঢাকায় গড়ে উঠা অবৈধ সীসা বার উচ্ছেদের দাবি জানিয়েছে মাদকবিরোধী সংগঠন ‘প্রত্যাশা’।

বুধবার ( ২৬ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘মাদক কে না বলুন’ শীর্ষক মানববন্ধন এ দাবি জানায় সংগঠনটি। সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশেও বিশ্ব মাদকবিরোধী দিবসটি পালন করা হয়ে থাকে।

‘প্রত্যাশা’র সাধারণ সম্পাদক হেলাল আহমেদের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মাদকদ্রব্য বিরোধী ফেডারেশনের মহাসচিব আশরাফুল আলম কাজল, সংগঠনটির নির্বাহী সদস্য গোলাম কাদের, আব্দুল রাজ্জাক, মনিরউদ্দিন প্রমুখ। এ সময় বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/26/1561565422611.jpg

মানববন্ধনে ফেডারেশনের মহাসচিব আশরাফুল আলম কাজল বলেন, ‘দেশে মাদকের ব্যবহার যে হারে বৃদ্ধি পেয়েছে, তা খুবই উদ্বেগজনক। এখনই এর লাগাম টেনে ধরতে না পারলে ভবিষ্যত প্রজন্মকে সুস্থ ও সুন্দরভাবে গড়ে তোলা অসম্ভব হবে।’

হেলাল আহমেদ বলেন, ‘সম্প্রতি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর নতুন করে প্রাইভেট ক্লাব, অভিজাত শপিংমলসহ বিভিন্ন স্থাপনায় বারের লাইসেন্স প্রদান করছে। এটি বর্তমান সরকারের মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা ও প্রধানমন্ত্রী মাদক নির্মূলে যে অঙ্গীকার করেছেন, তা বস্তবায়নে জটিলতা তৈরি হবে।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র