রোববার থেকে ট্রেন বিলম্বে ছাড়বে না: স্টেশন ম্যানেজার

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
কমলাপুর রেলস্টেশন, ছবি: ফাইল ফটো

কমলাপুর রেলস্টেশন, ছবি: ফাইল ফটো

  • Font increase
  • Font Decrease

কয়েকটি ট্রেন ছাড়তে দেরি হয়েছে, রোববার থেকে আর দেরি হবে না বলে আশ্বাস দিয়েছেন কমলাপুরের স্টেশন ম্যানেজার মোহাম্মদ আমিনুল হক।

শুক্রবার (৩১ মে) রেলমন্ত্রীর পর শনিবার (১ জুন) কমলাপুর স্টেশন পরিদর্শনের পর তিনি সাংবাদিকদের কাছে এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

আমিনুল হক বলেন, ‘শনিবার সারাদিন ৫২টি ট্রেন আমরা চালাব। এর মধ্যে আন্তঃনগর ও মেইল ট্রেন মিলে (সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ) ১৭টি ট্রেন ছেড়ে গেছে। তার মধ্যে দু-একটি এক ঘণ্টা আধা ঘণ্টা দেরি হয়েছে। এটা ঠিক দেরি বলা যায় না। তারপরও চেষ্টা করব রোববার থেকে যাতে দেরি না হয়।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/01/1559377559998.jpg
বক্তব্য রাখছেন কমলাপুরের স্টেশন ম্যানেজার মোহাম্মদ আমিনুল হক, ছবি: বার্তা২৪

 

তিনি বলেন, ‘রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনটা ছাড়তে গতকাল সাত ঘণ্টা লেট হয়েছিল। কিন্তু মন্ত্রী মহোদয়ের আশ্বাসের ভিত্তিতে আজকে আমরা বিকল্প রেক দ্বারা চালাচ্ছি। কিছুক্ষণ আগে (সোয়া ১০টায়) ছেড়ে গেল।’

আসনবিন্যাসে অব্যবস্থাপনার বিষয়টি ম্যানেজার আমিনুল হকও স্বীকার করেন। এ নিয়ে যাত্রীদের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এই ট্রেনটিতে আমরা সাধ্যমতো আসন রিপ্লেস করেছি। দুইটি এসি চেয়ারকোচ কম থাকাতে ফার্স্টক্লাস চেয়ারে বা ফার্স্টক্লাস কেবিনে সিট দিয়েছি। সবগুলো সিটই আমরা বরাদ্দ দেওয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সিট সঙ্কুলান করতে না পারায় কিছু সিট সাধারণ শ্রেণিতে দিতে হয়েছে।’

রংপুর এক্সপ্রেসের সূচি পরিবর্তনের কারণ বলতে গিয়ে এই কর্মকর্তা বলেন, ‘গত ৩০ মে আমরা ট্রেনটি রাইট (সঠিক) টাইমে ছেড়েছিলাম। বঙ্গবন্ধু সেতুতে যাওয়ার পর ট্রেনটির একটি কোচ ডেমেজ (নষ্ট) হয়ে যায়। ফলে ওইখানেই প্রায় তিন-চার ঘণ্টা সময় লেগেছিল। যেতে-আসতে দেরি হওয়ায় আজকেও সেটি ছাড়তে দেরি হয়েছে। আগামীকাল থেকে সেটা হবে না বলে আশা করছি।’

আপনার মতামত লিখুন :