খুলনায় ৩৮ লাখ টাকাসহ ৩ প্রতারক গ্রেফতার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, খুলনা
গ্রেফতারকৃত তিন প্রতারক / ছবি: বার্তা২৪

গ্রেফতারকৃত তিন প্রতারক / ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

খুলনায় ব্যবসায় বিনিয়োগকৃত ৪৩ লাখ টাকা প্রতারণার মাধ্যমে আত্মসাতের অভিযোগে তিন প্রতারককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ সময় আত্মসাৎকৃত ৩৭ লাখ ৭৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

রোববার (২ মে) খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি) বার্তা২৪.কমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

পুলিশ জানায়, কয়েকজন প্রতারক পরস্পর যোগসাজসে নগরীর লবণচরার মোহাম্মদনগর বাইতুল মেরাজ জামে মসজিদের ডান পাশের (নওয়াব আলীর বাড়ির ভাড়াটিয়া) হাফেজ মো. সাহাবউদ্দীনের ব্যবসায় বিনিয়োগকৃত ৪৩ লাখ টাকা আত্মসাৎ করে। এ ঘটনায় সাহাবউদ্দীন গত ২৩ মে বাদী হয়ে লবণচরা থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় মোহাম্মদনগর এলাকার মোহাম্মদ আয়রন স্টোর (শাহিনের বাড়ীর ভাড়াটিয়া) মৃত আনোয়ার হোসেন মোড়লের ছেলে মো. রুবেল হোসেন (৩৮), জাহিদুর রহমান সড়ক ক্রস রোড এলাকার আব্দুল খালেক শেখের ছেলে মো. আতিকুর রহমান টনি (২৯) ও রুবেল হোসেনের স্ত্রী অনন্যা ইসলামকে (২৬) আসামি করা হয়।

এদিকে, লবণচরা থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার (১ জুন) অভিযান চালিয়ে নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর শহরের একটি হোটেল থেকে আসামি মো. রুবেল হোসেনকে গ্রেফতার করে। তার কাছ থেকে ৬ লাখ ৭৫ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তার ভাইয়ের ছেলে সাইফুল ইসলাম অভিকে মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার দক্ষিণ হলুদিয়া গ্রাম থেকে গ্রেফতার করা হয়। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় আরও ৩১ লাখ টাকা। পরবর্তীতে লবণচরা থানা এলাকা থেকে মামলার অপর আসামি মো. আতিকুর রহমান টনিকেও গ্রেফতার করা হয়।

কেএমপির অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া অ্যান্ড পিআর) শেখ মনিরুজ্জামান মিঠু বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘লবণচরা থানা পুলিশ আত্মসাৎকৃত ৪৩ লাখ টাকার মধ্যে ৩৭ লাখ ৭৫ হাজার টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে। বাকি টাকাও উদ্ধারের অভিযান অব্যাহত আছে।’

আপনার মতামত লিখুন :