Barta24

বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

খুলনায় প্রস্তুত ঈদগাহ, প্রধান জামাত সকাল ৮টায়

খুলনায় প্রস্তুত ঈদগাহ, প্রধান জামাত সকাল ৮টায়
প্রস্তুত খুলনার ঈদগাহ, ছবি: বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
খুলনা


  • Font increase
  • Font Decrease

যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভীর্যের সঙ্গে খুলনায় পবিত্র ঈদু ফিতর উদযাপনের লক্ষ্যে সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

সোমবার (৩ জুন) জানা যায়, খুলনায় আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে শহরের সার্কিট হাউজ ময়দানে ঈদুল ফিতরের প্রথম ও প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৮টায়। দ্বিতীয় ও শেষ জামাত খুলনা টাউন জামে মসজিদে সকাল ৯টায় অনুষ্ঠিত হবে।

আবহাওয়া প্রতিকূল হলে টাউন জামে মসজিদে প্রথম ও প্রধান জামাত সকাল ৮টায়, দ্বিতীয় জামাত ৯টায় এবং তৃতীয় ও শেষ জামাত ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে। আবহাওয়া প্রতিকূল হলে কোর্ট জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৮টায় একটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া বসুপাড়া ইসলামাবাদ ঈদগাহ ময়দানে, খুলনা আলিয়া কামিল মাদরাসা জামে মসজিদ, নিউমার্কেটস্থ বায়তুন-নূর মসজিদ কমপ্ল‌েক্স, খালিশপুর ঈদগাহ ময়দান, সোনাডাঙ্গা আবাসিক এলাকা (২য় ফেজ), বায়তুল্লাহ জামে মসজিদ, নিরালা আবাসিক এলাকা ঈদগাহ, খানজাহান নগর খালাসী মাদরাসা ঈদগাহ, দৌলতপুর ঈদগাহসহ অন্যান্য মসজিদ ও ঈদগাহসমূহে সংশ্লিষ্ট কমিটিদ্বারা সময় নির্ধারণ সাপেক্ষে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে।

খুলনা সিটি করপোরেশনের ৩১টি ওয়ার্ডে সিটি করপোরেশনের সহায়তায় ও ওয়ার্ড কাউন্সিলরগণের তত্ত্বাবধানে পৃথকভাবে নির্ধারিত সময় অনুযায়ী ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

ঈদের দিন সকল সরকারি, আধা-সরকারি, বেসরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ভবনে যথাযথভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা এবং সূর্যাস্তের পূর্বে নামানো হবে। নগরীর প্রধান প্রধান সড়কসমূহ ও গুরুত্বপূর্ণ চত্বর, সড়কদ্বীপ ও সার্কিট হাউস ময়দান জাতীয় পতাকা ও ঈদ মোবারক (বাংলা ও আরবি) খচিত ব্যানার দিয়ে সজ্জিত করা হবে।

ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাংলাদেশ বেতার, খুলনা বিশেষ অনুষ্ঠানমালা এবং স্থানীয় সংবাদপত্রসমূহ নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় বিশেষ সংখ্যা প্রকাশ করবে। বিভিন্ন হাসপাতাল, কারাগার, সরকারি শিশুসদন, ভবঘুরে কল্যাণ কেন্দ্র ও দুস্থ কল্যাণ কেন্দ্রে এ উপলক্ষে বিশেষ খাবার পরিবেশন করা হবে। ঈদের পরে সুবিধাজনক দিন ও সময়ে শহীদ হাদিস পার্কে খুলনা জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে রাষ্ট্রীয় নীতি ও ধর্মীয় অনুভূতির সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ চলচ্চিত্র ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হবে।

ঈদুল ফিতরের গুরুত্ব সম্পর্কে ইসলামিক ফাউন্ডেশন এবং ইমাম পরিষদের উদ্যোগে সুবিধামত সময়ে সেমিনার ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে। ঈদের দিন বিকেলে শিশু পার্কসমূহে দুস্থ ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বিনামূল্যে প্রবেশের ব্যবস্থা থাকবে। সুবিধাজনক সময়ে জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে প্রীতি ফুটবল, জেলা শিল্পকলা একাডেমী সুবিধাজনক সময়ে অফিসার্স ক্লাবে ঈদ পুনর্মিলনী এবং জেলা শিশু একাডেমী সুবিধাজনক সময় ও স্থানে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জন্য শিশু আনন্দমেলার আয়োজন করবে।

ঈদে আইনশৃংঙ্খলা রক্ষার্থে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মহানগর ও মহানগরের বাইরের বিভিন্ন স্পটে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। ঈদুল ফিতরের সময় আতশবাজি ও পটকা ফোটানো, রাস্তা বন্ধ করে স্টল তৈরি, উচ্চস্বরে মাইক, ড্রাম বাজানো, রঙিন পানি ছিটানো এবং বেপরোয়াভাবে মটর সাইকেল চালান যাবে না।

ঈদ উপলক্ষে রাস্তায় যত্রতত্র গেট নির্মাণ, প্যানা বা ব্যানার টাঙালে রাস্তা সংকুচিত হয়ে দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকে এবং শহরের সৌন্দর্য নষ্ট হয়। এজন্য গেট নির্মাণ, প্যানা বা ব্যানার টাঙানোর বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের নিরুৎসাহিত করতে হবে। ঈদের সময় অজ্ঞান ও মলম পার্টি, ছিনতাইকারী ও পকেটমারদের তৎপরতা বন্ধে টার্মিনাল সংযোগ সড়ক, রেলস্টেশন, বাস ও নৌযান টার্মিনালসমূহে সাদা পোশাকধারী পুলিশ মোতায়েন থাকবে এবং ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে। এছাড়া জাল টাকা বিস্তাররোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। ঈদের সময় ইভটিজিং বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রধান জামাত অনুষ্ঠানের সময় মুসল্লিদের গাড়ি পার্কিং এর জন্য খুলনা সার্কিট হাউজের হ্যালিপ্যাড, খুলনা অফিসার্স ক্লাব এবং জেলা স্টেডিয়াম সংলগ্ন আউটার স্টেডিয়াম সংরক্ষিত থাকবে। মুসল্লিদের অজুর জন্য পানির ব্যবস্থাও রাখা হবে। বাস, লঞ্চ, স্টিমারে যাতে অতিরিক্ত যাত্রী উঠতে না পারে এবং বেপরোয়াভাবে যান চলাচল করতে না পারে তার জন্য আইনশৃংঙ্খলা বাহিনী নিয়োজিত থাকবে। জেলার শান্তিশৃঙ্খলা বিঘ্নের কোন সংবাদ পেলে তাৎক্ষণিকভাবে র‌্যাবের কন্ট্রোল রুমের মোবাইল নম্বর ০১৭৭৭৭১০৬৯৯-এ জানানো যাবে। যাকাতের একটি অংশ অর্থ সোনালী ব্যাংক, খুলনা করপোরেট শাখা, চলতি হিসাব নম্বর-৩৩০০০৮৩৫; ইসলামী ব্যাংক, খুলনা শাখা, চলতি হিসাব নম্বর-২১৫ এবং জনতা ব্যাংক খুলনা করপোরেট শাখা, চলতি হিসাব নম্বর-৩৩০০৭৫৭ অথবা উপপরিচালক, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, বয়রা, খুলনা-এর নিকট সরাসরি প্রদান করা যাবে। উপজেলা সমূহেও স্থানীয়ভাবে অনুরূপ কর্মসূচি পালিত হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

রাজধানীতে গড়ে উঠা সীসা বার উচ্ছেদের দাবি

রাজধানীতে গড়ে উঠা সীসা বার উচ্ছেদের দাবি
বিশ্ব মাদকবিরোধী দিবসে প্রেসক্লাবে মানববন্ধনে স্কুলছাত্ররা/ ছবি: বার্তা২৪.কম

মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস বা বিশ্ব মাদকবিরোধী দিবসে রাজধানী ঢাকায় গড়ে উঠা অবৈধ সীসা বার উচ্ছেদের দাবি জানিয়েছে মাদকবিরোধী সংগঠন ‘প্রত্যাশা’।

বুধবার ( ২৬ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘মাদক কে না বলুন’ শীর্ষক মানববন্ধন এ দাবি জানায় সংগঠনটি। সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশেও বিশ্ব মাদকবিরোধী দিবসটি পালন করা হয়ে থাকে।

‘প্রত্যাশা’র সাধারণ সম্পাদক হেলাল আহমেদের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মাদকদ্রব্য বিরোধী ফেডারেশনের মহাসচিব আশরাফুল আলম কাজল, সংগঠনটির নির্বাহী সদস্য গোলাম কাদের, আব্দুল রাজ্জাক, মনিরউদ্দিন প্রমুখ। এ সময় বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/26/1561565422611.jpg

মানববন্ধনে ফেডারেশনের মহাসচিব আশরাফুল আলম কাজল বলেন, ‘দেশে মাদকের ব্যবহার যে হারে বৃদ্ধি পেয়েছে, তা খুবই উদ্বেগজনক। এখনই এর লাগাম টেনে ধরতে না পারলে ভবিষ্যত প্রজন্মকে সুস্থ ও সুন্দরভাবে গড়ে তোলা অসম্ভব হবে।’

হেলাল আহমেদ বলেন, ‘সম্প্রতি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর নতুন করে প্রাইভেট ক্লাব, অভিজাত শপিংমলসহ বিভিন্ন স্থাপনায় বারের লাইসেন্স প্রদান করছে। এটি বর্তমান সরকারের মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা ও প্রধানমন্ত্রী মাদক নির্মূলে যে অঙ্গীকার করেছেন, তা বস্তবায়নে জটিলতা তৈরি হবে।’

একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির মূল পাঠ্যবই ছাপানোর অভিযোগে গ্রেফতার ২

একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির মূল পাঠ্যবই ছাপানোর অভিযোগে গ্রেফতার ২
র‍্যাবের অভিযানে বইসহ আটক ২, ছবি: সংগৃহীত

এনসিটিবি’র অনুমোদন বিহীন একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির মূল পাঠ্যবই ছাপানোর অভিযোগে ২ জনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। এঘটনায় বিপুল পরিমাণ নিন্মমানের নকল পাঠ্যবই উদ্ধার করেছে সংস্থাটি।

বুধবার (২৬ জুন) বার্তা২৪.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‍্যাব সদরদফতরের সিনিয়র এএসপি মিজানুর রহমান।

র‍্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিবাগত রাতে র‌্যাব-১১ ঢাকার সূত্রাপুরে ১৫নং রূপচাঁদ লেন বাড়ির নিচ তলার ভাড়াটিয়া প্রতিষ্ঠান ‘ভাই ভাই বুক বাইন্ডিং’ এবং ঢাকা জেলার ডেমরা থানাধীন মাতুয়াইল হাজী বাদশা মিয়া রোডস্থ ‘ফাইভ স্টার প্রিটিং প্রেস এন্ড পাবলিকেশন্স’ এ অভিযান চালায়।

অভিযানে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির বাংলা মূল পাঠ্য বইয়ের নকল প্রিন্টেড কপির ৪ হাজার ৫০০টি বইয়ের সমপরিমাণ ৪৭টি বান্ডিল ও বাংলা সাহিত্য ও সহপাঠ মূল বইয়ের এনসিটিবি এর নকল লোগোসহ ২ বান্ডেল বই উদ্ধার করা হয়।

এসময় মূল পাঠ্যবই ছাপানোর অভিযোগে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ভাই ভাই বুক বাইন্ডিং এর মালিক মোঃ নবী খাঁন (৩৫), ফাইভ স্টার প্রিটিং প্রেস এন্ড পাবলিকেশন্স এর ম্যানেজার মোঃ আইয়ুব হোসেন (৫৩)।

র‍্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, এই অসাধু ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন যাবৎ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় কলেজ ও মাদরাসার মূল পাঠ্য বইয়ের নকল প্রিন্টেড কপির প্রিন্ট, বাইন্ডিং, সংরক্ষণ ও বিক্রয় করে প্রতারণামূলক ব্যবসা চালিয়ে আসছে। নকল এই পুস্তকগুলোতে অনেক মুদ্রনজনিত ত্রুটি ও তথ্যের বিভ্রাট রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র