ফের খুলে দেয়া হয়েছে উত্তরা আড়ং

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
আড়ং, ছবি: বার্তা২৪

আড়ং, ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

সাময়িক বন্ধ ঘোষণার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই আবারও খুলে দেয়া হয়েছে উত্তরা আড়ংয়ের আউটলেট। সোমবার (৩ জুন) দুপুরে গ্রাহকের অভিযোগের ভিত্তিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের ম্যাজিস্ট্রেট উত্তরা আড়ংকে সাময়িক বন্ধের নির্দেশনা দেন এবং তাদেরকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা করেন।

সোমবার রাত ৮টায় ম্যাজিস্ট্রেট মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের উপস্থিতিতে আবারও খুলে দেয়া হয় উত্তরার আড়ং।

এর আগে দুপুরে, গ্রাহকের অভিযোগ ছিল- এক গ্রাহক ২৫মে আড়ংয়ের আউটলেটটি থেকে একটি পাঞ্জাবি ৭১৩ টাকায় কেনেন। কিন্তু ৩১ মে সেই পাঞ্জাবি একই আউটলেটে ১৩১৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এই অভিযোগের ভিত্তিতে এ জরিমানা করা হয়েছে।

ভোক্তা অধিদফতরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেছিলেন সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল জব্বার মণ্ডল।

এ বিষয়ে আড়ংয়ের সিওও মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে বলেন, আমরা আমাদের ভুল স্বীকার করে নিয়েছি। আমরা কখনোই চলমান উৎসবের মধ্যে কোনো পণ্যের দাম পরিবর্তন করি না। অন্য একটি পণ্যের প্রাইস ট্যাগ (মূল্য তালিকা) ভুলে আরেকটিতে লাগিয়ে দেয়ার কারণে এমন অনিচ্ছাকৃত ভুল হয়েছিল।'

এদিকে আড়ং বন্ধের ব্যাপারে দুপুরে ম্যাজিস্ট্রেট মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বার্তা২৪.কম-কে জানিয়েছিলেন, গত ২৫ মে এক ক্রেতা উত্তরা আড়ং আউটলেট থেকে একটি পাঞ্জাবি কেনেন ৭১৩ টাকায়। একই পাঞ্জাবি ৩১ মে কিনতে গেলে দাম রাখা হয় ১৩১৫। অধিদফতরে এমন অভিযোগ করেন এক ভোক্তা।

তিনি বলেন, 'এ পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার উত্তরা আড়ংয়ে অভিযান চালিয়ে এর সত্যতা পায় অধিদফতর। আড়ং অভিনব কায়দায় বেশি দাম লিখে ভোক্তাদের ঠকাচ্ছে। কী অবাক করা বিষয় ছয়দিনে একটি পাঞ্জাবির দাম বেড়েছে ৬০০ টাকা। যার কোনো কারণ জানাতে পারেনি আড়ংয়ের শোরুমের কর্মকর্তারা।'

আপনার মতামত লিখুন :