রামেকে ভুল চিকিৎসায় নার্সের মৃত্যু, পরিচালকের কক্ষ ভাঙচুর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
হাসপাতালের গেটে নার্সদের বিক্ষোভ, ছবি: বার্তা২৪

হাসপাতালের গেটে নার্সদের বিক্ষোভ, ছবি: বার্তা২৪

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে সিজার করাতে গিয়ে ভুল চিকিৎসায় একজন নার্সের মৃত্যু হয়েছে। রোববার (১৬ জুন) রাত পৌনে ৮টার দিকে এই ঘটনা ঘটে।

মৃত ওই নার্সের নাম মোছা. দিলারা খাতুন (৩০)। তিনি রাজশাহীর বাঘা উপজেলার নওটিকা গ্রামের মিঠুন মিয়ার স্ত্রী এবং রামেক হাসপাতালে দায়িত্বরত ছিলেন। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় দিলারা খাতুনের স্বজনরা দাবি করেন- চিকিৎসকের ভুলে দিলারার মৃত্যু হয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/16/1560699737505.jpg

এদিকে, চিকিৎসকের ভুলে দিলারা খাতুনের মৃত্যুর খবর হাসপাতালে কর্মরত নার্সদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে তারা বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে তারা হাসপাতালের পরিচালকের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেন। একপর্যায়ে বিক্ষুব্ধ নার্সরা পরিচালকের কক্ষের কাচের দরজায় ভাঙচুর চালান। রাত ৯টায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সেখানে বিক্ষোভ চলছিল।

জানা যায়, গর্ভবতী ওই নারী নার্স গত তিনদিন ধরে রামেক হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি ছিলেন। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন। রোববার (১৬ জুন) সন্ধ্যায় তার সিজারের ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু সিজারের সময় তিনি মারা যান.

জানতে চাইলে হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জামিলুর রহমান মোবাইলে বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘আমি বাইরে আছি। তবে বিষয়টি জেনেছি। নার্স দিলারা খাতুনের সিজারে যে চিকিৎসক এবং নার্সরা যুক্ত ছিলেন, তাদেরকে ডাকা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে খতিয়ে দেখা হবে।’

আপনার মতামত লিখুন :