Barta24

শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

অর্থনৈতিক-রাজনৈতিক স্থিতিশীলতায় বাংলাদেশ অনন্য উচ্চতায়

অর্থনৈতিক-রাজনৈতিক স্থিতিশীলতায় বাংলাদেশ অনন্য উচ্চতায়
স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে আইএমএফ-এর এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের প্রধান দাইসাকু কিহারার সাক্ষাৎ
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার কারণে বাংলাদেশ এখন অনন্য উচ্চতায় অবস্থান করছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। তিনি বলেন, এই স্থিতিশীলতায় সংসদ সদস্যদের অবদান অনস্বীকার্য। জনগণের ভোটে নির্বাচিত হয়ে সংসদ সদস্যরা সংসদে জনগণের প্রতিনিধিত্ব করেন। সঙ্গত কারণে জনগণের কাছে সংসদ সদস্যরা জবাবদিহি করে থাকেন। অন্যদিকে সংসদের কাছে সরকার জবাবদিহি করে।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) জাতীয় সংসদ ভবনে নিজ কার্যালয়ে ইন্টারন্যাশনাল মনিটারি ফান্ড (আইএমএফ) এর এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের প্রধান দাইসাকু কিহারা’র নেতৃত্বাধীন প্রতিনিধিদলের সঙ্গে সাক্ষাৎকালে এসব কথা বলেন স্পিকার।

সাক্ষাৎকালে আইএমএফ-এর প্রতিনিধিদল বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, টেকসই উন্নয়ন, জলবায়ু পরিবর্তন, খাদ্য নিরাপত্তা, অর্থনৈতিক উন্নয়নে সংসদ সদস্যদের ভূমিকা ও আইএমএফ-এর কার্যক্রম নিয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিগত কয়েক বছর ধারাবাহিক ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জনের পাশাপাশি অর্থনৈতিক উন্নয়নে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এ প্রবৃদ্ধি বর্তমানে ৮.১ শতাংশ। রেমিটেন্স ও রিজার্ভও সমান গতিতে বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলশ্রুতিতে তৃণমূল পর্যায়ে উন্নয়ন সেবা পৌঁছে দিচ্ছে বর্তমান সরকার।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, জনবহুল বাংলাদেশের একটা বড় অংশই হচ্ছে তরুণ, তাই বিনিয়োগ বৃদ্ধির মাধ্যমে তরুণদের কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে চায় বাংলাদেশ। তরুণ জনসমষ্টিই ভবিষ্যৎ বাংলাদেশ গড়ার মূল কারিগর। বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ সুষ্টির জন্য কানেক্টিভিটি, বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিতে বিগত দশ বছর কাজ করছে সরকার।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে বাংলাদেশ শক্ত অর্থনৈতিক ভিতের ওপর দাঁড়িয়েছে। এই অবস্থানকে ধরে রাখতে দক্ষ মানবসম্পদের প্রয়োজন। আর দক্ষ মানবসম্পদ তৈরির জন্য প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। আইএমএফ প্রতিনিধিদলকে বাংলাদেশে অধিক সংখ্যক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন ও পরিচালনার আহবান জানান স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

আইএমএফ প্রতিনিধিদলের প্রধান দাইসাকু কিহারা অর্থনৈতিক উন্নয়নে সংসদ সদস্যদের অধিক সম্পৃক্তকরণের উপায় সম্পর্কে স্পিকারকে অবহিত করেন। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক, অবকাঠামোগত উন্নয়ন ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে দ্রুত প্রবৃদ্ধি অর্জনের প্রশংসা করেন তিনি।

তৈরি পোশাক শিল্পে বাংলাদেশ অনুকরণীয় উল্লেখ করে দাইসাকু কিহারা বলেন, কৃষিসহ অন্যান্য শিল্পে বাংলাদেশ বেশ অগ্রসরমান। তরুণ জনশক্তিকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ টেকসই উন্নয়নে অনেক ধাপ এগিয়ে যেতে পারে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ সময় একাদশ জাতীয় সংসদের সরকারী হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. রুস্তম আলী ফরাজী, বাংলাদেশে নিযুক্ত আইএমএফ-এর আবাসিক প্রতিনিধি র্যা গনার গুডমুন্ডসনসহ সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :

আবারও সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের যোগাযোগ বন্ধ

আবারও সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের যোগাযোগ বন্ধ
৭-৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে সিলেটের সাথে সারাদেশের সম্পূর্ণ যোগাযোগ, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার ওলিপুরে রেল ক্রসিং সংস্কার কাজ চলায় আবারও সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এতে আবারও দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে সিলেটের কয়েক হাজার যাত্রীদের। সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের যোগাযোগ অন্তত ৭/৮ ঘণ্টা বন্ধ থাকবে। 

শুক্রবার (১৯ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের যান চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। পরে রাত ৮টার দিকে রেল লাইন তুলে ফেলায় রেল যোগাযোগও বন্ধ হয়ে পড়ে। রাত ২/৩টার আগে রেল ক্রসিং সংস্কার কাজ শেষ হবে না বলে জানিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ।  

শায়েস্তাগঞ্জ স্টেশন মাস্টার এবিএম মঈনুল ইসলাম বলেন, 'ওলিপুর এলাকায় রেল ক্রসিং সংস্কার কাজ চলায় শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা থেকে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ করা হয়েছে। পরে রাত ৮টার দিকে লাইন তুলে ফেলায় রেল যোগাযোগও বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। রাত ২/৩টার দিকে ফের রেলসহ সব ধরণের যান চলাচল স্বাভাবিক করে দেয়া হবে।' 

পূর্ব ঘোষণা ছাড়া সংস্কার কাজ পরিচালনা করায় সীমাহীন ভোগান্তিতে পড়েছেন সিলেট বিভাগের চার জেলার কয়েক হাজার যাত্রী। সন্ধ্যা ৭টা থেকে মহাসড়কের দু'পাশে কয়েক শতাধিক যানবাহন আটকা রয়েছে।

এদিকে, রেল লাইন তুলে ফেলায় সিলেট থেকে ঢাকাগামী 'জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস' শায়েস্তাগঞ্জ জংশনে আটকা রয়েছে। এছাড়া রাতে আন্তঃজেলা ট্রেনসহ আরও বেশ কয়েকটি লোকাল ট্রেন বিভিন্ন স্টেশনে আটকা পড়বে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১১ জুলাই) সন্ধ্যার দিকে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার লস্করপুর রেল ক্রসিং সংস্কার করায় রাত দুইটা পর্যন্ত বন্ধ থাকে রেল ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের যান চলাচল। এতে ভোগান্তিতে পড়তে হয় যাত্রীদের। এছাড়া ১৮ জুন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার শাহবাজপুর সেতু ভেঙে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক প্রায় ১০দিনসহ দুইদিন সম্পূর্ণ যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ থাকে। 

'ইন্টারনেটমুখী হয়ে বই থেকে দূরে সরে যাচ্ছে নতুন প্রজন্ম'

'ইন্টারনেটমুখী হয়ে বই থেকে দূরে সরে যাচ্ছে নতুন প্রজন্ম'
খুলনা সিটি কর্পোরেশনর মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

জ্ঞান চর্চার জন্য বইয়ের বিকল্প নেই। নতুন প্রজন্ম অতিমাত্রায় ইন্টারনেটমুখী হওয়ায় বই থেকে দূরে সরে যাচ্ছে। তাদের মধ্যে পুস্তক পাঠের আগ্রহ সৃষ্টি করে জ্ঞানভিত্তিক ও মননশীল সমাজ গড়ে তুলতে হবে। তাহলে আজকের প্রজন্ম আগামী দিনে সুন্দর ও সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে ভূমিকা রাখতে পারবে বলে উল্লেখ করেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনর মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

শুক্রবার (১৯ জুলাই) বিকেলে নগরীর বিএমএ মিলনায়তনে বার্ষিক গ্রন্থ প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে তিনি ফিতা কেটে এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। জ্ঞান ভিত্তিক সমাজ গঠনের উদ্দেশ্য একাডেমিক ও গবেষণামূলক গ্রন্থ রচনা ও পাঠকের কাছে তা সহজলভ্য করে তোলার লক্ষ্যে প্রকাশনা সংস্থা 'ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড (ইউপিএল)' এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে। সিটি মেয়র নতুন প্রজন্মকে বইমুখী করার জন্য শিক্ষক, অভিভাবকসহ সুধীজনদের উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানান।  

বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) খুলনার সভাপতি ডা. শেখ বাহারুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক সাধন রঞ্জন ঘোষ এবং স্বাগত বক্তৃতা করেন ইউপিএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহরুখ মহিউদ্দীন। অন্যান্যদের মধ্যে পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি খুলনা শাখার সভাপতি মোঃ আলমগীরসহ সাংবাদিক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, এ প্রদর্শনীর মাধ্যমে প্রকাশনা সংস্থাটি খুলনায় তাদের কার্যক্রম শুরু করতে যাচ্ছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র