Barta24

বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

কৃষিকে বাণিজ্য ও যান্ত্রিকীকরণ করা হবে: কৃষিমন্ত্রী

কৃষিকে বাণিজ্য ও যান্ত্রিকীকরণ করা হবে: কৃষিমন্ত্রী
বিএমডিএ’র অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক/ ছবি: বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেট
বার্তা২৪.কম
রাজশাহী


  • Font increase
  • Font Decrease

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ‘সরকার কৃষিকে বাণিজ্য ও যান্ত্রিকীকরণ করার জন্য প্রতিটি সেক্টরে কাজ করছে। এটি শতভাগ বাস্তবায়িত হলে কৃষকরা তাদের চাষাবাদকৃত ফসলের ন্যায্য মূল পাবেন।’

শনিবার (৬ জুলাই) রাজশাহী শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত ‘দ্বিতীয় বারিন্দ এগ্রো-ইকো ইনোভেশন রিসার্চ প্লাটফর্ম’ শীর্ষক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। বারিন্দ মাল্টিপারপাস ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (বিএমডিএ) রাজশাহীর উদ্যোগে এই সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘কৃষকরা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে ধান উৎপাদন করছেন। কিন্তু ধানের ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় তারা আর্থিকভাবে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। ন্যায্য দাম না পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনেক উদ্বিগ্ন। বিষয়টি নিয়ে সরকার প্রতিটি সেক্টরে কাজ করে যাচ্ছে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/06/1562414692181.jpg

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের ৬০ থেকে ৬৫ শতাংশ মানুষ গ্রামে বসবাস করে। তারা কোনো না কোনোভাবে কৃষির সঙ্গে সম্পৃক্ত। বর্তমানে উপজেলা পর্যায়ে শহরের সকল আধুনিক সুযোগ-সুবিধা পৌঁছে গেছে। কিন্তু শিক্ষাক্ষেত্রে উপজেলাগুলো শহর থেকে একটু পিছিয়ে রয়েছে। পর্যায়ক্রমে উপজেলা পর্যায়ে উন্নত শিক্ষা বাস্তবায়ন করা হবে।’

রাজশাহী অঞ্চলের কৃষির বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বরেন্দ্র এলাকার মাটি কৃষির জন্য উন্নত। তাই ফসল চাষের জন্য এই অঞ্চল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আর উন্নত ফসল উৎপাদনের জন্য প্রচুর পানির প্রয়োজন। তাই বরেন্দ্র অঞ্চলের পুকুরগুলোকে সংস্কার করে এতে পানি সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা প্রয়োজন। এজন্য এলাকার জন্য সরকার সকল ধরনের সহযোগিতা প্রদান করবে।’

সাবেক সাংসদ ও বিএমডিএ’র চেয়ারম্যান ড. আকরাম হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী-১ আসনের সংসদ সদস্য ওমর ফারুক চৌধুরী, রাজশাহী-৫ আসনের সংসদ সদস্য মনসুর রহমান, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাংসদ আদিবা আনজুম মিতা, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার নুর-উর রহমান,বিএমডিএ’র সহকারী পরিচালক কৃষিবিদ আব্দুর রশীদ, জেলা প্রশাসক হামিদুল হক প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :

রেনু হত্যার প্রধান আসামি হৃদয় গ্রেফতার

রেনু হত্যার প্রধান আসামি হৃদয় গ্রেফতার
তাসলিমা বেগম রেনু হত্যার মূল আসামি হৃদয়/ ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনু হত্যা মামলার প্রধান আসামি হৃদয়কে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পূর্ব বিভাগের মাদক উদ্ধার টিম।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জের ভূলতা থেকে তাকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার মাহবুব আলম। তিনি বলেন, ‘আজ সন্ধার দিকে তাসলিমা বেগম রেনু হত্যা মামলার প্রধান আসামি হৃদয়কে গ্রেফতার করে ডিবির একটি টিম।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563900973518.jpg

এর আগে মঙ্গলবার বিকালে রাজধানীর গুলিস্তানের গোলাপ শাহর মাজার থেকে উত্তর বাড্ডায় গণপিটুনিতে নিহত তাসলিমা বেগম রেনু হত্যা মামলার প্রধান আসামি হৃদয় সন্দেহে এক যুবককে শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে তুলে দেয় সাধারণ মানুষ।

এ বিষয়ে শাহবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল হাসান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, ‘গুলিস্তানের গোলাপ শাহর মাজার থেকে তাসলিমা বেগম রেনু হত্যা মামলার প্রধান আসামি হৃদয় সন্দেহে এক যুবককে আটক করে সাধারণ মানুষ আমাদের কাছে নিয়ে আসে। সে হৃদয় কিনা তা আমরা জানি না। আমরা বাড্ডা থানা পুলিশের কাছে তাকে পাঠিয়ে দিয়েছি। এখন তারা নিশ্চিত করবেন আটক যুবক হৃদয় কিনা।’

আরও পড়ুন: রেনু হত্যার প্রধান আসামি হৃদয় সন্দেহে যুবক আটক

চট্টগ্রামে দগ্ধ হয়ে মা-মেয়ের মৃত্যু

চট্টগ্রামে দগ্ধ হয়ে মা-মেয়ের মৃত্যু
আগুন

চট্টগ্রাম নগরীর ইপিজেড এলাকায় একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে মা-মেয়ের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) রাত সাড়ে আটটায় কলসী দীঘির বস্তিতে আগুনের সূত্রপাতহয়।

এ অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে মারা গেছেন নাসিমা বেগম (৩৫) ও তার মেয়ে লামিয়া (৭)।

চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক জসিম উদ্দীন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে জানান, অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিটের দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থল থেকে মা-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র